অক্সফোর্ড স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সভাপতি বাংলাদেশি আনিশা - বিদেশে উচ্চশিক্ষা - Dainikshiksha

অক্সফোর্ড স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সভাপতি বাংলাদেশি আনিশা

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

বিশ্ববিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় অক্সফোর্ডের ছাত্রদের নেতৃত্বদানকারী  সংগঠন, ( ছাত্র সংসদ)  অক্সফোর্ড স্টুডেন্ট ইউনিয়নের  সভাপতি নির্বাচিত হলেন আনিশা ফারুক। অক্সফোর্ডের ইতিহাসে আনিশা ফারুক  প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শিক্ষার্থী যিনি সভাপতি নির্বাচিত হলেন। 

৭ (ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় অক্সফোর্ডের ওয়েস্টন লাইব্রেরিতে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

তিন দফায় অনুষ্ঠিত ছাত্রদের প্রতিনিধিত্বশীল এই সংগঠনে চুড়ান্ত পর্বে  ১৫২৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আনিশা ফারুক। ৪৭৯২ জন ভোটার নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। আনিশা এর আগে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের লেবার পার্টির কো চেয়ার হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

আনিশার বাবা অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর ফারুক আহামেদ, মেয়ের এই সাফল্যে খুবই উচ্ছ্বসিত। বলেন, আনিশা শুধু আমার মুখ উজ্জ্বল করেনি,  আমার দেশের মুখও উজ্জ্বল করেছি। নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে করছেন বলে উল্লেখ করেন। মেজর ফারুক জানান,আনিশা খুবই প্রচার বিমুখ স্কুল এবং কলেজ পর্যায়ে রেকর্ড পরিমান  এ স্টার পেয়েও  তাকে কোন পত্রিকা টেলিভিশনে সাক্ষাতকার দেয়ানো যায়নি। 

ফারুক মেয়ের জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।মেজর ফারুক আহামেদ ও   রেহানা চৌধুরীর এক ছেলে  মেয়ের মধ্যে প্রথম সন্তান আনিশা ফারুক আরেক সন্তান  জবরান ফারুক এ লেভেলে পড়ছে। বাংলাদেশের ভোলা জেলার চর ফ্যাশন উপজেলায় ফারুক আহামেদের গ্রামের বাড়ি। 

উল্লেখ্য অক্সফোর্ড স্টুডেন্ট ইউনিয়ন শুধুমাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা নীতি নির্ধারন ও  দাবী দাওয়া নিয়েই কাজ করেনা, পাশাপাশি জাতীয়  শিক্ষা কারিকুলামের উচ্চ শিক্ষায়  সরকারের নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে ও দেনদরবার করে থাকে।   আনিশা ফারুক শুধু বাংলাদেশ নয় এশিয়ান বংশোদ্ভূত দ্বিতীয় শিক্ষার্থী যিনি এই গৌরব অর্জন করলেন।

এর আগে ১৯৯৩ সালে প্রথম জাতিগত সংখ্যালঘু হিসাবে আকাশ মহারাজা সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবং ১৯৯৪ সালে ছাত্র ইউনিয়নের ক্ষমতা খর্ব করার বিলের বিরুদ্ধে প্রচারভিযান চালিয়ে সফল হয়েছিলেন। এবং  সেই সময়ের শিক্ষামন্ত্রী  জন প্যাটেনকে  বরখাস্ত করতে ভূমিকা রেখেছিলেন।

জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক - dainik shiksha শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় - dainik shiksha প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website