অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ - মেডিকেল ও কারিগরি - দৈনিকশিক্ষা

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি |

মানিকগঞ্জ সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে প্রশিক্ষণার্থীদের নানাভাবে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্পূর্ণ বিনা পয়সায় কোর্স সমাপ্ত হওয়ার কথা থাকলেও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে। এসব ঘটনায় ভুক্তভোগী প্রশিক্ষণার্থীরা মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর মানিকগঞ্জ কার্যালয়ে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন। তবে কারিগরি কেন্দ্রের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) নূর অতত্রব আহম্মদ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলে কতিপয় বিপথগামী প্রশিক্ষণার্থী তারা অন্যায়ভাবে বিশেষ সুবিধা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে এসব অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, মানিকগঞ্জ শহরের বান্দুটিয়া এলাকায় অবস্থিত সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। এই কেন্দ্রে ভর্তি হওয়া প্রথম ব্যাচের প্রশিক্ষণার্থী বুলবুলি আক্তার, তৃতীয় ব্যাচের জাহিদুল ইসলাম শাকিলসহ প্রশিক্ষণার্থী কনিকা সাঈদ ও ঝুমা আক্তার অভিযোগ করেন, অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) নূর অতত্রব আহম্মদ তাদের কাছ থেকে নানা অজুহাতে সরকারি নিয়মবর্হিভূত টাকা আদায় করছেন।

ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছেন, ভর্তি হওয়ার জন্য ফরম কেনা থেকে শুরু করে পদে পদে তাদের গুনতে হচ্ছে টাকা। টাকা ছাড়া কোনো সেবা মেলে না ওই কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে। অথচ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ এ প্রকল্পে সম্পূর্ণ সরকারি খরচে সেবা দেয়ার কথা থাকলেও তাদের গুনতে হচ্ছে হাজার হাজার টাকা।

তাদের অভিযোগ, বিনামূল্যের ফরম কিনতে হচ্ছে ৫০ টাকায়। বিনামূল্যের বই বাবদ দিতে হয়েছে ২শ টাকা করে। এছাড়া সরকারি হাসপাতালে বিনা টাকার মেডিকেল টেস্টেও ৩শ টাকা করে দিতে হচ্ছে। অপর দিকে পুলিশ ভেরিভিকেশনের জন্য তাদের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা আর ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে বিআরটির কথা বলে নেয়া হচ্ছে ২ হাজার টাকা করে। এ রকম আরও বিনামূল্যের খাত থেকে টাকা দিতে বাধ্য করা হচ্ছে।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছে, তারা নিয়মিত ক্লাস করলেও তাদের বিভিন্ন সময় অনুপস্থিত দেখিয়ে তাদের প্রাপ্য যাতায়াত খরচ ও ভাতার টাকা আত্মসাৎ করা হচ্ছে।

এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website