অনশন ভাঙলেন শিক্ষার্থীরা, রোকেয়া হলে তালা - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

অনশন ভাঙলেন শিক্ষার্থীরা, রোকেয়া হলে তালা

ঢাবি প্রতিনিধি |

চার দিন পর অনশন ভাঙলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ডাকসু নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত করা হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আশ্বাস দেওয়ার পর গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তারা অনশন ভাঙেন। উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ লাচ্ছি ও পানি পান করিয়ে তাদের অনশন ভাঙান। এ সময় তিনি স্বীকার করেন, ডাকসু নির্বাচনে কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি ছিল। 

জানা গেছে, উপ-উপাচার্য রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশনরত শিক্ষার্থীদের কাছে রাত ১১টার দিকে উপস্থিত হন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক একেএম গোলাম রব্বানী, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল, ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর, জিএস গোলাম রাব্বানী, এজিএস সাদ্দাম হোসাইন প্রমুখ।

ডাকসু নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থী গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশনে বসেন। এরপর তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও দুই শিক্ষার্থী। পরের দিন বুধবার তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও একজন। চার দিন ধরে অনশনে বসলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কেউ সেখানে না যাওয়ায় ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছিল।

অনশনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে অধ্যাপক সামাদ বলেন, 'প্রশাসন থেকে আমাকে পাঠানো হয়েছে। উপাচার্য আমাকে তোমাদের কাছে পাঠিয়েছেন তোমাদের কথা শোনার জন্য। আমি চাইলেই তো আসতে পারি না। প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে আমাকে আসতে হয়েছে। ডাকসু নির্বাচন ২৮ বছর পর হয়েছে। ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকতে পারে। তবুও একটা শুভসূচনা হোক।'

তিনি বলেন, 'তোমরা লিখিতভাবে অভিযোগ দাও। তোমরা তো আমাদের ছেলেমেয়ের মতো। তোমরা লিখিতভাবে সবকিছু জানাও। আমাদের সঙ্গে বসো। আমরা তোমাদের সব অভিযোগ শুনব।' এ সময় আগামী ১৮ মার্চ সকাল ১০টায় সবাই আলোচনায় বসবেন বলে তিনি ঘোষণা দেন।

চার দিন ধরে শিক্ষার্থীরা অনশন করলেও প্রশাসনের কেউ কেন তাদের দেখতে এলো না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক সামাদ বলেন, 'শুনেছি প্রক্টর এসেছিলেন।' প্রক্টর আসেননি জানালে তিনি বলেন, 'আমরা ব্যথিত, দুঃখিত। সমস্যা তো হয়েছে, আমরা তদন্ত করছি। ২৮ বছর পর ডাকসু নির্বাচন হয়েছে। ছাত্ররা ভোট দিতে অভ্যস্ত না, শিক্ষকরা দায়িত্ব পালনে অভ্যস্ত না। কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি ছিল।' 

অধ্যাপক মাকসুদ কামাল আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের কথা শোনার আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, 'তোমাদের সকল কথা আমরা শুনেছি। এ বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের সকলের। তোমরা আসো। একসঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বলি। আমরা তোমাদের কথা শুনব। তোমাদের সঙ্গে আছি। সবকিছুর তদন্ত রিপোর্ট হবে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে যত ধরনের সহযোগিতা করা দরকার আমরা করব। আমরা চাই না বিশ্ববিদ্যালয় ক্ষতিগ্রস্ত হোক।'

ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, এ নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে, যা সবাই জানি। এজন্য কুয়েত মৈত্রী হলে হলের প্রাধ্যক্ষকে অপসারণ করা হয়েছে আর রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষকে অপসারণ করার দাবির ব্যাপারে আমিও একমত। আমি আপনাদের সঙ্গে আছি এবং আগামীতে থাকব। স্যাররা সমস্যাগুলো শুনেছেন। দেখেন তারা কোনো পদক্ষেপ নেন কি না।

এজিএস সাদ্দাম হোসেন বলেন, নির্বাচনে এমন কিছু হয়নি যাতে ফলাফল পাল্টে গেছে। তিনি বলেন, সবাইকে দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে। আমরা চাই ডাকসু একটি ক্যালেন্ডার ইভেন্টে পরিণত হোক।

ক্যাম্পাসে ভুখামিছিল :এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে (ডাকসু) পুনর্নির্বাচনের দাবিতে ক্যাম্পাসে ভুখামিছিল করেছেন অনশনে থাকা প্রার্থী ও শিক্ষার্থীরা। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টায় রাজু ভাস্কর্য থেকে মিছিল শুরু হয়। ভিসির বাসভবনের রাস্তা, মল চত্বর, কলাভবন ও কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে দিয়ে ঘুরে ফের রাজু ভাস্কর্যে এসে মিছিল শেষ হয়। 

এদিকে ডাকসুর সাবেক ভিপি সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম গতকাল টিএসসিতে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পর অনশনকারীদের খোঁজখবর নিতে যান। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রশাসন এমন একটি নির্বাচন করেছে, যেখানে একজন সাবেক ভিপি হিসেবে আমি লজ্জা পাচ্ছি। 

এছাড়া গতকাল অনশনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করেন ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর। অনশনকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, 'আমি আপনাদের সঙ্গে আছি।' এ সময় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাকর্মীরাও সঙ্গে ছিলেন। সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ভিপি নুর বলেন, 'চার দিন ধরে আমার ভাইবোনেরা এখানে অনশন করছেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের সঙ্গে একবারের জন্য কথা বলতেও আসেননি, দেখতেও আসেননি। এতে হতাশ হয়েছি।' 

শনিবার (আজ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গণভবনে যাচ্ছেন কি-না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'এই অনিয়ম এবং কারচুপির পরও যারা বিজয়ী হয়েছেন তাদের প্রধানমন্ত্রী চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। যেহেতু তিনি ডেকেছেন তাই আমি যাওয়ার পক্ষে। সমস্যাগুলোর কথা তার কাছে তুলে ধরব। তবে আন্দোলনকারী ভাইবোনদের সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেব।'

ছাত্রলীগে নতুন করে যোগ দেওয়ার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে নুর বলেন, 'আমাকে নিয়ে কিছু বিভ্রান্তি তৈরি করা হচ্ছে। বিশেষ করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিভ্রান্ত করা এবং আমার ইমেজ ক্ষুণ্ণ করার জন্য এ ধরনের প্রচারণা। আমি আগে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলাম; এখন ছাত্রলীগের কোনো ধরনের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত নেই। এখন একটি সংগঠনের (সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ) সঙ্গেই আছি। তাহলে অন্য রাজনৈতিক দলে আমি কেন যাব, এর প্রশ্নই ওঠে না।'

২৪ ঘণ্টার আলটিমেটামে অগ্রগতি নেই:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগ, হল সংসদে পুনর্নির্বাচনসহ চার দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার রাতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছিলেন হলের ছাত্রীরা। ছাত্রীদের দেওয়া আলটিমেটামের কোনো অগ্রগতি হয়নি বলে জানান হল সংসদে ভিপি প্রার্থী শেখ মৌসুমী। রাত সাড়ে ১০টায় বেঁধে দেওয়া সময় শেষ হয়। তিনি বলেন, সময় শেষ হওয়ার পরও কোনো অগ্রগতি না হলে হল অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হবে। প্রভোস্টকে এরই মধ্যে হলে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। । 

ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হলে আইনগত ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার - dainik shiksha ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হলে আইনগত ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার ২০৯৯ শিক্ষককে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত - dainik shiksha ২০৯৯ শিক্ষককে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত যোগদানে বাধা: আরও ৩৯ জনের এমপিও বাতিল হচ্ছে - dainik shiksha যোগদানে বাধা: আরও ৩৯ জনের এমপিও বাতিল হচ্ছে ছাত্ররা স্টাইল করে চুল ছাঁটলেই ৪০ হাজার টাকা জরিমানা - dainik shiksha ছাত্ররা স্টাইল করে চুল ছাঁটলেই ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২৬-২৭ জুলাই - dainik shiksha ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২৬-২৭ জুলাই শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করতে সরকার বদ্ধপরিকর: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করতে সরকার বদ্ধপরিকর: শিক্ষামন্ত্রী আলিম পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha আলিম পরীক্ষার সূচি প্রকাশ এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ, শুরু ১ এপ্রিল - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ, শুরু ১ এপ্রিল ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website