অর্ধেক চাকরিকাল গণনা করে সরকারিকৃত প্রাথমিক শিক্ষকদের পদোন্নতির দাবি - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

অর্ধেক চাকরিকাল গণনা করে সরকারিকৃত প্রাথমিক শিক্ষকদের পদোন্নতির দাবি

রাজশাহী প্রতিনিধি |

৫০ শতাংশ বেসরকারি চাকরিকাল গণনা করে পদোন্নতি তালিকা তৈরিসহ ১০ দফা দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন রাজশাহীর সরকারিকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। ‘জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মহাজোট’ রাজশাহী জেলা শাখার ব্যানারে বুধবার (১২ জুন) সকালে রাজশাহী জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন তাঁরা।

শিক্ষক প্রতিনিধিরা জানান, সরকারিকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন নির্ধারণের জন্য চাকরিকাল গণনা ও অন্যান্য আর্থিক সুবিধাদি প্রাপ্যতায় ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণসহ মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নে ১০ দফা দাবি জানানো হয়।

শিক্ষকদের দাবিগুলো হলো- প্রধান শিক্ষকদের প্রাপ্ত টাইমস্কেলের ভিত্তিতে উন্নীত স্কেল বাস্তবায়ন করা, প্রধান শিক্ষকদের গেজেটে বাদ পড়া শিক্ষকদের নাম অন্তর্ভূক্ত করে আবার গেজেট প্রকাশ, সরকারিকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৯৯ কোড পরিবর্তন করে এক নম্বর কোডে নিয়ে আসাসহ ‘রেজি.’ শব্দটি বাদ দেওয়া, পূর্বের নিয়োগকৃত শিক্ষকদের যোগ্যতা ভিত্তিক স্কেল প্রদান, বর্তমানে শুধুমাত্র সহকারী শিক্ষক পিএসসির মাধ্যমে নিয়োগ দিয়ে প্রাথমিক ক্যাডার সার্ভিস চালু করা, বর্তমান নিয়োগ বিধিতে সহকারী শিক্ষকদের ন্যূনতম যোগ্যতা বিএ পাস নির্ধারণ করা হয়েছে বিধায় সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড ও শতভাগ পদোন্নতির ব্যবস্থা করা এবং পিআরএলে যাওয়া জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের আর্থিক সমস্যা সমাধান করা।

এছাড়া বাদপড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ, সরকারিকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকদের পদ সৃষ্টি করা এবং সরকারিকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী-কাম-নৈশ প্রহরী নিয়োগের ব্যবস্থা করা।

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মহাজোট রাজশাহী জেলা শাখার আহ্বায়ক লিয়াকত কাদিরসহ সংগঠনের নেতারা।

এমপিওভুক্তির দাবিতে ফের রাজপথে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু - dainik shiksha এমপিওভুক্তির দাবিতে ফের রাজপথে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website