please click here to view dainikshiksha website

অস্ট্রেলিয়ার ভিসায় অ্যাকাউন্টিং শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর

দৈনিক শিক্ষা ডেস্ক | আগস্ট ৬, ২০১৭ - ৯:৩৬ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

অভিবাসন আইনে দীর্ঘদিন ধরেই পরিবর্তন আনছে অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ। একের পর এক আসা এসব পরিবর্তন নিয়ে বেশ শঙ্কাতেই থাকেন অস্ট্রেলিয়ায় অভিবাসন প্রত্যাশী ও প্রবাসীরা। তবে গত ৩ আগস্ট অ্যাকাউন্ট্যান্ট ও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারসহ আরও কিছু পেশায় স্থায়ীভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসের জন্য ভিসা আবেদনকারীদের জন্য খুশির খবর দিয়েছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। এখন থেকে ইন্ডিপেনডেন্ট স্কিলড ভিসা শ্রেণি ১৮৯-এর অধীনে আগের চেয়ে দ্বিগুণেরও বেশি ভিসা মঞ্জুর করবে বলে জানিয়েছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ।

সম্প্রতি ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের জন্য ভিসা মঞ্জুরের সংখ্যা প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ। সেখানে বলা হয়, জনপ্রিয় বেশ কয়েকটি পেশায় স্কিল সিলেক্ট পয়েন্ট হ্রাসসহ বাড়ানো হয়েছে ভিসা মঞ্জুরের সংখ্যাও। এর মাঝে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীসহ অনেকেই অ্যাকাউন্টিং পড়াশোনা করে পয়েন্ট কম থাকায় এ ভিসায় আবেদন করতে পারছিলেন না। অ্যাকাউন্ট্যান্ট পেশার জন্য ভিসার সংখ্যা ২ হাজার ২ শ ৮৫টি থেকে এখন ৪ হাজার ৭ শ ৮৫টিতে উন্নীত করেছে। এ ছাড়া, সফটওয়্যার ও অ্যাপ্লিকেশন ইঞ্জিনিয়ারসহ অন্যান্য আরও কিছু পেশায় ভিসার সংখ্যা বেড়েছে। ফলে, এখন অনেকই ইন্ডিপেনডেন্ট স্কিলড ভিসা শ্রেণি ১৮৯ ভিসায় আগের থেকে বেশি আবেদন করতে পারবেন। দ্রুত আবেদন করা শ্রেয় কারণ, কোটা শেষ হলে আবার পরবর্তী অর্থবছরের জন্য অপেক্ষা করতে হতে পারে।

উল্লেখ্য, ইন্ডিপেনডেন্ট স্কিলড শ্রেণি ১৮৯ হচ্ছে পয়েন্টভিত্তিক ভিসা, যেখানে বয়স, ইংরেজি জানার দক্ষতা, কাজের অভিজ্ঞতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে যে পয়েন্ট হয় সেটার ওপর নির্ভর করে অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য আবেদন করা যায়। পয়েন্ট বেশি হলে বেশি সুযোগ থাকে ভিসা মঞ্জুরের। অন্যান্য অর্থবছরে ভিসা সংখ্যা কম থাকায় আবেদনকারীদের পয়েন্ট অনেক বেশি থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীরা এ ভিসায় আবেদন করতে পারছিলেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ১টি

আপনার মন্তব্য দিন