please click here to view dainikshiksha website

আইসিটি শিক্ষকের আত্মকথা

নিজস্ব প্রতিবেদক | আগস্ট ১৬, ২০১৭ - ১২:২৩ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

আমি আই সি টি শিক্ষক। আমার জন্ম বঙ্গবন্ধুর কন্যা, গণমানুষের নেতা, আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়নকারী আমার প্রিয় নেতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের হাত ধরে ২০১৩ খ্রিস্টাব্দে। আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য সন্তান, বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র,  তরুণ প্রজন্মের অহংকার, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যক্তিত্ব সজীব ওয়াজেদ জয়ের স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের অনুঘটক হিসেবে আমার জন্ম।

আমার জন্মের পর থেকে স্কুল কলেজে প্রযুক্তি সম্পর্কিত সকল কাজ করার দ্বায়িত্ব আমার। এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বেতনশীট, ভর্তি, বিভিন্ন ধরণের ফরম পূরণ, ল্যাবে ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে সমস্যা বা শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব সম্পর্কিত ডি সি অফিসে মিটিং, বিভিন্ন সেমিনার, আলোচনা সভা, আমার সহকর্মীদের ইনডোর ট্রেনিংসহ সকল জায়গায় গৌরবময় উপস্থিতি আমার।

প্রতিদিন আমি বাংলা, ইংরেজি শিক্ষকদের মত শ্রেনিকক্ষে পাঠদান করি, নিয়মিত দশটা-চারটা কলেজে উপস্থিতি, সবাই বলে কত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, কত কাজ, সময় উপযোগী, কত প্রশংসা! চারিদিকে কত মাতামাতি আমাকে নিয়ে। আর আমি শুধু হাসি, কত সুখী আমি! আমি প্রশ্ন করি আমাকে, কী পাপ আমার? কী অপরাধ আমার? কেন আমাকে নিয়ে এত উপহাস? সবাই যখন মাস শেষে বেতন নিয়ে পরিবার নিয়ে ভালভাবে দু’বেলা খেতে পায়, তখন আমার ভাগ্যে জুটে কলেজ প্রদত্ত পাঁচ হাজার টাকা, আবার জুটেও না। কেন আমার বেতন নাই, কেন আমি অভুক্ত, আমার পরিবার, সন্তানেরা অভুক্ত?

একবার বরিশাল থেকে আমার এক সহকর্মী আমাকে ফোন করে বললেন, স্যার, এনটিআরসিএ ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে আমাকে নিয়োগ দিয়েছে কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ আমাকে এক টাকাও দেয় না। উল্টো বলে সরকার আপনাকে নিয়োগ দিয়েছে, তারাই বেতন দিবে। আমি বরিশাল শহরে থাকি, আসা যাওয়ায় দু’শ টাকা খরচ, কী ভাবে চলি বলুন?

যে সরকার আমাকে সৃষ্টি করেছে তারা আমার খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা, শিক্ষা ও বিনোদনের ব্যবস্থা করার কথা । কিন্তু আজ পাঁচ বছরেও তারা আমাকে কিছুই দিতে পারেনি বা দিতে চায়না। সরকার বলে আমার বেতন কলেজ থেকে দেওয়া হবে কিন্তু কত দেওয়া হবে তা বলেনি । আর বললেও তা দেওয়া হয় কি না যাচাই করেনি। যেখানে এক কেজি চালের দাম ৫০ টাকা, আলু ২২ টাকা, এক কেজ়ি গরুর মাংস পাঁচশ টাকা, উপজেলা হেডকোয়ার্টারে দুই রুমের বাসা ভাড়া পাঁচ হাজার টাকা, গ্যাসের সিলিন্ডার এক হাজার টাকা, বিদ্যুৎ বিল পাঁচশ টাকা, সেখানে আমি কলেজ প্রদত্ত পাঁচ হাজার  টাকা দিয়ে কীভাবে চলব?

আবার বাংলাদেশের সামাজিক পেক্ষাপটে আমার সহকর্মীদের কাছ থেকে শুনতে হয় আমি ননএমপিও  শিক্ষক, কলুর বলদ ইত্যাদি। সরকার আমাদের বেতন দেয় না শুধু খাটায়, আমাদের ভবিষ্যৎ নাই। সরকার পরিবর্তনের সাথে সাথে এই বিষয় বন্ধ করে দেওয়া হবে আরও কত কী! তাদের মত যথা নিয়মে নিয়োগ পাওয়া সত্ত্বেও আমি গেস্ট শিক্ষক, কলেজ থেকে এত বেতন দিয়ে রাখার দরকার কী?

মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, পাঁচ বছর ধরে পাঁচ হাজার  টাকা বা তিন হাজার টাকায় চাকরির নামে সেবা প্রদান করে আসছি। বারবার আমার এমপিও নিয়ে কথা হলে আপনি বলেন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। শিক্ষকতা মহান পেশা ভেবে আমার কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয়ের অনুপ্রেরণায় ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে কলেজে শিক্ষকতা করতে এসেছি। আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়েও আমাকে কলেজে যোগদান করতে না করেছিলেন। কিন্তু আমি বললাম, তুমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে ভূমিকা রেখেছ। আর আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ভালবেসে তাঁর স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে অনুঘটক হিসেবে কাজ করতে চাই।

কিন্তু আজ আমি হতাশাগ্রস্ত, দিশাহারা ও দুঃখিত। কারণ বাবা-মায়ের চিকিৎসা, খাদ্য, ঔষধ বা তাদের সেবায় কোন ভূমিকা রাখতে পারছি না।

মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, পাঁচ বছর ধরে আপনি আমাদের এমপিও দিতে পারছেন না। তাহলে প্রশ্ন ওঠে আপনার আর কত সময়ের প্রয়োজন? আমরা কি আদৌ এমপিও পাব? পেলে কবে নাগাদ পাব? যদি না পাই তাহলে বলে দেন, আমরা অন্য পেশা খুঁজবো। আমার সন্তান, পরিবার -পরিজ়নের মুখের দিকে তাকালে আমার খুব কষ্ট হয়। যদি এমপিও নাই দিবেন তবে শুধু আইসিটি কেন সকল এমপিও বন্ধ করে দিন। যদি এমপিও নাই দিবেন বা মাননীয় অর্থমন্ত্রী অর্থের যোগান নাই দিতে পারেন তবে প্রশ্ন, আমাকে কেন সৃষ্টি করলেন? যেহেতু করেছেন আমার জ়ীবন ধারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করুন না হয় গলা টিপে আমাকে হত্যা করুন। প্রমাণ করুন আমার সৃষ্টি ভুল ছিল।

মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ও মাননীয় অর্থমন্ত্রী আপনারা আমাদের প্রতি দয়া করুন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আমাদের কথা বলুন। তিনি আমার আপনার আমাদের সবার অভিভাবক ষোল কোটি মানুষের নেতা। তিনি একবার বললেই এর সমাধান হয়ে যাবে। পরিশেষে বলি আমার লেখায় কোন ভুল থাকলে , কষ্ট পেলে সন্তান হিসাবে ক্ষমা করবেন।

লেখক: মোঃ মোবারক করিম খান, প্রভাষক (আই সি টি), ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজ।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ১১৮টি

  1. বিজয় says:

    হয়তোবা আপনি দক্ষ একজন আইসিটি শিক্ষক, তাই আপনার মনে এত ক্ষোভ। কিন্তু অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অদক্ষ আইসিটি শিক্ষক নিয়োগ রয়েছে। তাদের যদি এমপিওভুক্ত হয় সরকারের লাভ তো হবে না বরং শিক্ষার্থীদের আজীবন আইসিটি নামে ধোকা দিতে থাকবে।

    • Tanzema akter says:

      স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আমিও একজন আই সি টি শিক্ষক । আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগতযোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে কিন্তু আইসিটি শিক্ষেদের এমপিও হচ্ছেনা।

    • Md Younus Ali says:

      স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আমিও একজন আই সি টি শিক্ষক । আপনার মত আমার অবস্থাও একই । ব্যাংকের চাকরিটা ছেড়ে জীবনে যে ভুল করেছি তার মাসুল দিচ্ছি । ভালো নেই, ভালো থাকার উপায়ও নেই । ডিজিটাল বাংলার জয় হোক ।আই সি টি শিক্ষক নিপাত যাক । তোমারা খাও কোরমা পোলাও, আমরা পাইনা ফেন, ভবে আইলাম ক্যান ।

  2. Tuhin Roy says:

    স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আমিও একজন আই সি টি শিক্ষক । আপনার মত আমার অবস্থাও একই । ব্যাংকের চাকরিটা ছেড়ে জীবনে যে ভুল করেছি তার মাসুল দিচ্ছি । ভালো নেই, ভালো থাকার উপায়ও নেই । ডিজিটাল বাংলার জয় হোক ।আই সি টি শিক্ষক নিপাত যাক । তোমারা খাও কোরমা পোলাও, আমরা পাইনা ফেন, ভবে আইলাম ক্যান ।

  3. শহিদুল ইসলাম,প্রভাষক,মনজুর কাদের মহিলা কলেজ,পাবনা says:

    ১৩.১১.১১ তারিখের কালো পরিপএ বাতিল করা হোক।

  4. md. billal hossain says:

    আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগতযোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে কিন্তু আইসিটি শিক্ষেদের এমপিও হচ্ছেনা।

  5. Mehedi says:

    আপনার মন্তব্য Sir ***Production management & marketing somporky akto likhun.

    • মো: জাহাঙ্গীর আলম , আই সি টি শিক্ষক, মামুদনগর উচ্চ বিদ্যালয়, নাগরপুর,টাংগাইল। says:

      আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে হায়রে কপাল হায়রে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা একজন লাইব্ররীরয়ান নিয়োগ নিচ্ছে আর এমপিও হচ্ছে অথচ শতকরা ৯৫% স্কুলে লাইব্রেরী নাই তাদের কাজ নাই । কিন্তু আইসিটি শিক্ষকরা প্রতিদিন কম্পিউটারে মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ নেয়া অনলাইনে ফরম পূরন অফিসিয়াল কাজসহ , ৬ষ্ঠ শ্রেনী হতে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত ক্লাশ নেয়া । আর সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রুপকার হল আইসিটি শিক্ষক । ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রুপকাররা যদি অভুক্ত থাকে তাহলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না। আমরা করুনার পাত্র নই আমরা বাস্তব শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে প্রস্তুত । আমাদের দ্রুত এমপিও চাই ।

  6. Tanvir ahmed ICT Teacher says:

    vhai apnake santona debo se vasa je nei amar. amrao apnar sathe ekmot, jodi mpo dite na e parben tahole keno amader create korlen? honourable education minister apni manonio prodhan montri bonga bondo konna seikh hasina ke bolon. tini obossoy amader mpo er bebosta korben.

  7. বনি আমিন, আই সি টি শিক্ষক, বাকচুয়া লক্ষ্মীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়। says:

    আমাদের এমপিও দিন আমরা আমাদের কষ্টের কথা ভুলে যাব।

  8. কামরুজ্জামান(কামরুল) নিশ্চিন্তপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়,পাংশা,রাজবাড়ি says:

    আপরাধ একটাই ict শিক্ষক

  9. মোঃ হাফিজুল ইসলাম। সহঃশিঃ (আইসিটি)তেলীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, নড়িয়া, শরীয়তপুর। says:

    ভাই! এর চেয়ে ভাল কথা মনে হয় নাই,খুব
    সুন্দর এবং সঠিক বাস্তব কথা বলেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

  10. মোঃমাহবুব আলম মাহী says:

    উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন বিষয়ের শিক্ষকদের ও একই অবস্থা।আর পারছিনা মাগো, একটু তাকান।

  11. মোঃ শহিদুল ইসলাম says:

    আপনার মন্তব্য:আর কত কাল এ ভাবে আটকিয়ে থাকবে আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও।হে আল্লাহ শিক্ষা মন্ত্রীর মাথায় একটু এই বিষয় টা ঢুকিয়ে দাও।

  12. Md. Ashraful Haque says:

    কলেজে আবশ্যিক বিষয় খোলার একটা উদ্দেশ্য বুঝিয়ে দিচ্ছে যে এখানে শিক্ষক রূপি শ্রমদাস বছরের পর বছর বিনা বেতনে খাটানো সম্ভব! এটা শুধু এ দেশেই সম্ভব

  13. মুহাম্মাদ নেছার উদ্দীন,সহকারি শিক্ষক কম্পিউটার says:

    স্যার আপনাকে ধন্যবাদ আপনার লেখার জন্য। মোবাইল নম্বর পেলে কথা বলতাম।

  14. কাজল দাস says:

    স্যার,আপনার কমেন্টটি পড়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারলাম না,কারন আমিও একজন হতভাগা আইসিটি নামের কুলোর বলধ।

  15. কাজল দাস says:

    হে সৃষ্টিকর্তা যারা আমাদের বেতন নিয়ে এত বাহানা করছেন তাদেরকেও এমন দিন দিও।এটাই তোমার কাছে ফরিয়াদ।

  16. মো: ফেরদৌস কামাল, প্রধান শিক্ষক, নুরালাপুর উচ্চ বিদ্যালয়, নুরালাপুর, নরসিংদী। says:

    আই সি টি শিক্ষকদের এম পি ও ভূক্ত করা সময়ের দাবি।

  17. Julfiker says:

    আমার ও একই অবস্থা

  18. মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন says:

    আর কত দিন আর কত কাল এইভাবে অনাহারে দিন যাবে।

  19. মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন says:

    যাদের হাতধরে দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠা হচ্ছে তারা আজ অবহেলিত।

  20. এম.সোলায়মান এম.এ says:

    ওগো দৈনিক শিক্ষা তোমার ঋন আইসিটি স্যারেরা কোন দিন পরিশোধ করতে পারবেন

  21. এ,এস,এম দেলওয়ার হোসেন says:

    ধন্যবাদ মোবারক ভাই। আমি এন জি ও তে ৩৩০০০/= টাকা বেতনের চাকরি ছেড়ে মহান পেশা শিক্ষকতা বেছে নিয়ে আই সি টি শিক্ষক হিসেবে যোগদান করলাম ২০১৪ সালে। পেলাম শুধু বঞ্চনা। আমিও একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আমিও চাই সরকারের কর্তা ব্যক্তিরা আমাদের এবং আমাদের বিবি-বাচ্চাদের ন্যায্য অধিকারের উপর সদয় হোক।

  22. মো: শহিদুল ইসলাম says:

    আমি একজন আইসিটি শিক্ষক
    আমরা এমপিও চাই

  23. Rubel says:

    plz plz plz আমাদের এমপিও দিন।

  24. মোঃ বাবুল গাজী সহকারি শিক্ষক(গণিত), গলাচিপা ,পটুযাখালী। says:

    দয়া করে তাদের বেতন দিন।

  25. জাহেদ says:

    আমি ২০১৬ এনটিআরসিএ এর নিয়োগ পেয়ে গত নভেম্বর থেকে আজো কোন বেতন আমাকে প্রতিষ্ঠান দেয়নি ভাই,অনেক কষ্টে আছি।

  26. Mahmud Firoze says:

    স্যার, আমিও একজন আবহেলিত আইসিটি শিক্ষক । আমার প্রতিষ্ঠান থেকে ০১ টাকাও দেয়না । শুধু আমি কেন বাংলাদেশের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আইসিটি শিক্ষকদের কোনও বেতন দেয়না । আপনার লেখাটি অনেক সুন্দর হয়েছ,আমাদের মনের লুকিয়ে থাকা কষ্টগুলো ফুটে উঠেছে । তবে শত কষ্টের মাঝেও একটু হাসিও পেল ! কারন, বঙ্গবন্ধুর নামে কলেজটিতেও আপনি নন এমপিও !
    জাতি আজ হতবাক ! এ লজ্জা কার ? এটাই কি ডিজিটাল বাংলাদেশর বৈশিষ্ট্য ?

  27. মো: শাহ আলম- ঘোগাদহ, কুড়িগ্রাম সদর। says:

    স্যার সরকার কে বলে লাভ কী ? তারা বুঝেও আইসিটির ব্যাপারে অবুঝ।

  28. শফিয়ার রহমান says:

    আজ কাল দিনটা বড় বেমালুম যাচ্ছে,
    তারপরও আইসিটি শিক্ষকের আত্মকথা,
    কে শুনবে ভাই হৃদয় গাধা কষ্টকথা,
    কথায় বলে হায় হায় এ জগতে সেই বেশী চাই
    ………………………………………..
    স্যার মোঃ মোবারক করিম খান আপনি
    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ও মাননীয় অর্থমন্ত্রী কাছে যে দয়া চেয়েছেন, এটা আমার মনে হয় দয়া চাওয়া নয়, এটা আইসিটি শিক্ষকদের করুনা নয়, এটা আইসিটি শিক্ষকদের প্রাপ্য। আইসিটি শিক্ষকরা অন্য শিক্ষকদের মত একজন শিক্ষক। তাই দয়া করে, দয়া না চেয়ে আপনার/আপনাদের ন্যায্য অধিকার আদায় করার লক্ষ্যে আন্দোলন করা উচিত। আজ কাল আন্দোলন বা মৃত বরণ না করলে কেউ কিছু দিতে চাই না। তার অনেক দৃষ্টান্তর আপনার আমার আশে পাশে আছে। আর মন্ত্রী, এমপি বা আমলারা আপনার লেখাই বা আন্দোলনে কেন গুরুত্ব দেবে তাদের তো কোন অভাব বা স্ত্রী-সন্তান, মা-বাবা নিয়ে কোন কষ্ট নেই। মাস গেলে বেতন পাচ্ছে, অতিরিক্ত আয় হচ্ছে, সংসার চলছে ঠিকঠাক। স্ত্রী-সন্তান যখন যা চাচ্ছে তাই পাচ্ছে। আর লিখতে পারবো না কারণ আমারও অনেক কষ্ট আছে, ব্যাথা আছে, আছে যন্ত্রনা ……………

  29. Md Rabiul Islam says:

    I am a non mpo English teacher who takes six classes everyday. I get 3000|=

  30. কামরুজ্জামান says:

    স্ার ক ধন্্বাদ

  31. মোঃ সালা উদ্দিন says:

    আর ভালো লাগে না। একটা চাকরি আমাকে নষ্ট করে দিচ্ছে।

  32. মোঃ ফরিদুল ইসলাম মোল্যা says:

    একজন আইসিটি শিক্ষক হিসেবে আপনাদের দুঃখ অনুভব করি কিন্তু দুঃখিত আমার কিছু করার নেই। যাদের এত প্রশংসা করলেন তারা কিছু করবে বলে মনে হচ্ছে না।

  33. moni says:

    bhi onek thank aponak.ki je kare.mpo den plz.

  34. মোঃ হাফিজুল ইসলাম। সহঃশিঃ (আইসিটি)তেলীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, নড়িয়া, শরীয়তপুর। says:

    প্রধান মন্ত্রী এ লেখা পড়েন,তাহলে এ বারই এম পি ও পাব ইনশাআল্লাহ।

  35. মোঃ আখতারুজ্জামান says:

    আমাদের একটু খেয়ে বাচার সুযোগ করে দিন মাননীয় প্রধান মন্ত্রি।
    মোঃ আখতারুজ্জামান
    সহ শি
    দরশনা ডি এস ডিগ্রী মাদ্রাসা
    দামুরহুদা,চুয়াডাঙ্গা

  36. Md. Nazim udddin says:

    এমপিও বঞ্চিত আইসিটি সংগঠন এর মাধ্যমে জানা যায়, ডিজিমহোদয়, শিক্ষামন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী ও অন্যান্য কর্মকর্তাগন এমপিও বঞ্চিত আইসিটি শিক্ষকদের মানবেতর জীবন যাপনের কথা জানেন। একমাত্র আল্লাহর কৃপায় তাদের অণুপ্রেরণায় যেন তাড়াতাড়ী এমপিও পাই এ ব্যাপারে আল্লাহ যেন তাদের হেদায়েত করেন।

  37. HOSSAIN AHMED says:

    দুঃখের কথা কে আর শুনে ।

  38. মো. কামরুল হক says:

    আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে কিন্তু আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছেনা। আমরা আইসিটি শিক্ষকদের দ্রুত এমপিও চাই ।

  39. নিউটন says:

    মনে হয় আইসিটি শিক্ষক সরকারের জারজ সন্তান। না পারে এদের এমপিও দিত, না পারে ফেলেদিতে। ক্ষমা করবেন অনেক কষ্টে কথাটা বললাম।

  40. md.monjurul says:

    আমার জীবনের প্রথম ভুল একটি চাকরি ছেড়ে,আইসিটি শিক্ষক হিসেবে যোগদান করা।

  41. মোঃ এরশাদুল হক, প্রভাষক (জীববিজ্ঞান ও আইসিটি), আদর্শ এতিমখানা দ্বি-মুখী সিনিয়র মাদ্রাসা। says:

    স্যার,
    একেই বলে ডিজিটাল হত্যা! স্পর্শ ছাড়াই!
    সোনার বাংলায় আজ বাটপার ফলে!
    খনি ছাড়াই হীরক মেলে!

  42. md. billal hossain says:

    এ দেশের সবাই ভালো আছে আইসিটি শিক্ষকেরা কেন ভালো থাকবেনা।কেন আমাদেরকে ২১ শতকের শ্রমদাস বানাচ্ছে? এটাকী সকল শিক্ষকদের লজ্জা নয়। একই প্রতিষ্ঠানে সবাই বেত্ন পাবে আমরা কেন পাবনা? আমাদের কী অপরাধ।
    আসছে ঈদ সব শিক্ষকেরা ভালোবাবে ঈদ করবে আইসিটি শিক্ষকদের কথা কি কেহ ভাবে?

  43. মো:হাসান উললাহ says:

    ফিন্যানস,ব্যাংকিংও বিমা,ICT,উৎপাদন ব্যবস্থাপনাওবিপণন এর MPO চাই

  44. Jakirin Alam Abdul Gofur High School South Sunamgonj. says:

    Doya Kore amader Mpo din.Onek koste as I.

  45. Md.khorshed alam khan says:

    Amio i c t teacher , sir good says

  46. মোঃ হান্নান মিয়া পাটিকেলবারি দরগাহ দাখিল মাদ্রাসা নেছারাবাদ,পিরোজপুর says:

    আপনার মন্তব্য। নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের এমপিও কবে হবে। সরকার শুধু জাতীয় করন করে। যারা খাইছে তারা আরো খাবে আর যারা না খেয়ে আছে তারা যাবে কই। তারা মানুষ না। আমি মোঃ হান্নান মিয়া আমার জন্ম১৯৮৪ সালে। ২০০৪ সালে পাটিকেলবারি দাখিল মাদ্রাসায় নিয়োগ পাই। অদ্য বদী আজ পর্যন্ত এমপিও বা বেতন পাইনি। ৯ ম তম ntrca পাস করি বিভিন্ন জায়গায় পরীক্ষা দিয়ে প্রথম হয়েও টাকা বা রাজনৈতিক নেতাদের প্রার্থীর চাপের কারনে নিয়োগ পাইনি। এখন আমরা দিসে হারা হয়ে পড়েছি বিয়ে সাধী অনেকে করতে পারিনি বেকারের কারনে। আমার মনে হয় আমাদের বেতন না অবসরে যেতে হবে। আজ জাতীর জনকের শাহাদাৎ বার্ষীকিতে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে দুঃখ প্রকাশের সাথে সাথে আমরা আজ এমপিও বা বেতন না পাওয়ার দুঃখ প্রকাশ করছি। জয়বাংলা বাংলাদেশ দীর্ঘজীিব হউক।

  47. Md.Easin Monohor gonj school & collage,Monohorgonj,Comella. says:

    উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন বিষয়ের শিক্ষকদের ও একই অবস্থা একটু তাকান।

  48. মুহা.সাইফুল্লহ বিন জাকারিয়া.পিরোজপুর, মঠবাড়ীয়া. মুঠোফোন-01719-482639 says:

    স্যার, আমিও একজন বাংলার অবহেলিত আইসিটি শিক্ষক, আমাদের মনের কথা দৈনিক শিক্ষায় প্রচার করার জন্য আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি.

  49. ওবাইদুল হক says:

    ঘুষ না দেওয়ায় অদৃশ্য কারণে এনটিআরসিএ কর্তক সুপারিশকৃত কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতনে সর্বোচ্চ নম্ব্রধারী ও ইংরেজী বিষয়ে ১ম স্থান অর্জনকারী হওয়া সত্ত্বেও আমাকে এম,পি,ও হতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বাদ দিয়েছেন।

  50. গোলাম মোস্থফা, says:

    আই সি টি শিক্ষকদের এসব লেখা কি প্রধানমন্ত্রী চোখে দেখেন না? দেশে উন্নয়নের বন্যা বয়ে যাচ্ছে কিন্তু এরা অভূক্ত কেন? অভূক্ত আই সি টি শিক্ষক দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া অসম্ভব। কথায় হয় বাস্থবে হয়। ড্যাশ বোর্ডে ক্লাস দেওয়ার মতো। বাস্তবে অন্তসার শুন্য।

  51. মো: ইকরামুল ইসলাম says:

    ২০/০৪/২০২৩ইং তারিখে নিয়োগ পেয়েছি কিন্তু এখন বেতন নামের সোনার হরিণ টার দেখা পেলাম না। সরকারের কালো আইন “বেতন না দেওয়ার শর্ত” এর কারনে। সরকারি টি,টি,সি থেকে বি,এড, এম এড পাশ করে শিক্ষকতার মহান পেশায় এসেছিলাম দেশের সেবা করবো বলে, কখনও ভাবতে পারিনি বেতন হবে না। সরকারের সর্বশেষ Advance Ict কোর্স সম্পন্ন করেছি, নিজের সর্বোচ্চ মেধা দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়া শেখানোর চেষ্টা করছি। সরকারের নিকট আকুল আবেদন আই, সি, টি, ও সৃষ্ট পদসহ সকল শিক্ষকদের বেতন র্দূত
    দেয়া হোক।

  52. Abzal Hossain says:

    Doya Kore amader Mpo din.Onek koste as I. Amra khub Khap Obthai Achi

  53. মোঃ আতিকুল ইসলাম says:

    সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ আকর্ষণ করছি। ফেসবুকে কটূক্তি করলে সাথে সাথে কটূক্তিকারীর শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হয়। আইসিটি শিক্ষক এবং কলামিস্টরা এতো লেখালেখি করে আইসিটি শিক্ষকদের এমপিওভূক্ত করার জন্যে এগুলো কী সরকারের সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি পড়ে না?

  54. Md.mahfujul Haq.Panti Dakhil Madrasha. says:

    স্যার আপনাকে ধন্যবাদ

  55. Gokul biswas,Gopalganj sador,Gopalganj.01736592727. says:

    স্যার যা বললেন,আর কি আছে বলার।

  56. Md Taijul sheikh Jobaiideal high school kachua,Bagerhat says:

    আপরাধ একটাই ict শিক্ষক

  57. MD. SHAHID KHAN says:

    যাদের হাতধরে দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠা হচ্ছে তারা আজ অবহেলিত।

  58. মো: জাহাঙ্গীর আলম , আই সি টি শিক্ষক, মামুদনগর উচ্চ বিদ্যালয়, নাগরপুর,টাংগাইল। says:

    মো: জাহাঙ্গীর আলম , আই সি টি শিক্ষক, মামুদনগর উচ্চ বিদ্যালয়, নাগরপুর,টাংগাইল। :
    Your comment is awaiting moderation.
    আগস্ট ১৬, ২০১৭ at ১:০৬ অপরাহ্ণ

    আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে হায়রে কপাল হায়রে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা একজন লাইব্ররীরয়ান নিয়োগ নিচ্ছে আর এমপিও হচ্ছে অথচ শতকরা ৯৫% স্কুলে লাইব্রেরী নাই তাদের কাজ নাই । কিন্তু আইসিটি শিক্ষকরা প্রতিদিন কম্পিউটারে মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ নেয়া অনলাইনে ফরম পূরন অফিসিয়াল কাজসহ , ৬ষ্ঠ শ্রেনী হতে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত ক্লাশ নেয়া । আর সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রুপকার হল আইসিটি শিক্ষক । ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রুপকাররা যদি অভুক্ত থাকে তাহলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না। আমরা করুনার পাত্র নই আমরা বাস্তব শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে প্রস্তুত । আমাদের দ্রুত এমপিও চাই ।

  59. শাহ আলম- ভেবড়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও। 01722488348 says:

    আমার জীবনের প্রথম ভুল একটি চাকরি, মনে হয় আইসিটি শিক্ষক সরকারের জারজ সন্তান। না পারে এদের এমপিও দিত, না পারে ফেলেদিতে। ক্ষমা করবেন অনেক কষ্টে কথাটা বললাম।

  60. আহসান হাবীব says:

    আমার কথা হ‌চ্ছে, এখন যে‌হেতু এম‌পিওভূক্ত শিক্ষা প্র‌তিষ্ঠা‌নে শিক্ষক নি‌য়োগ বন্ধ র‌য়ে‌ছে;

    সেখা‌নে ডি‌গ্রি তৃতীয় শিক্ষক, আই‌সি‌টি শিক্ষক, শাখা শিক্ষক, ফিন্যান্স এন্ড ব্যাং‌কিং, উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপনণ সহ সব মি‌লি‌য়ে আমার ম‌নে হয় ১০০০০ শিক্ষকও হ‌বেন না, যাঁরা এম‌পিওভূ‌ক্তির অ‌পেক্ষায় র‌য়ে‌ছেন।

    আমা‌দের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কি পা‌রেন না মাত্র এই ১০০০০ শিক্ষক‌দের মু‌খে অন্ন তু‌লে দি‌তে ?

  61. ইন্দ্রজিৎ দেব says:

    এমপিও দেওয়া হোক

  62. মাহমুদ খান, সহকারী শিক্ষক, দেয়ানা মহিলা দাখিল মাদরাসা, দৌলতপুর, খুলনা। says:

    বাতির নিচে অন্ধকার। দুঃখ করে লাভ নাই।

  63. মোঃ মানিক উদ্দিন says:

    আপনার কষ্টে আমরাও একমত পোষণ করছি আপনার সাথে। লেখককে ধন্যবাদ

  64. harun,Saherchar High school,Raipura, Narsingdi says:

    স্যার আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।স্যার আপনার বক্তব্য সম্পূর্ণ সত্য আমি ও একজন আই.সি.টি শিক্ষক । আমাদের পাপ আমরা আই.সি.টির শিক্ষক। আমার আপনার কথার ধার এরা ধারেনা। যত নষ্টের নাটের গুরু হলো আমলারা । আমলারা যদি আমাদের কথা ভাবত তাহলে আমাদের এম.পি.ও এত দেরি হতো না ।সত্য কথা হলো ,আমাদের দেশের চরিত্র হলো মুখে বলি একটা আর করি আরেরকটা।

  65. মোঃ আবদুর রাজ্জাক says:

    আদালত থেকে গত 27 শে জুলাই রায় হয় স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) হিসেবে নিয়োগে আইনগত কোনও বাধা নেই আজ প্রায় 20 দিন অতিবাহিত হলো নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ আমাদের রেজাল্ট প্রকাশ করতে পারলো না। তাহলে মনে হয় তারা আদালতের রায় অবমাননা করছে যদি করে থাকে তাহলে শিক্ষক ডট কম এবং আমাদের যে ভাইরা রীট পিটিশন করে ছিলেন তারা আমার আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করুন আমরা আইসিটি আবেদনধারীরা সহযোগিতা করব। …..মো: আবদুর রাজ্জাক মোবা: 01710780295, পটুয়াখালী।

  66. Md. Alauddin says:

    যাদের হাতধরে দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠা হচ্ছে তারা আজ অবহেলিত।

  67. মো:মনসুর আলি says:

    ডিজিটাল বাংলাদেশে আইসিটি শিক্ষকের বেতন দিতে গিয়ে প্রয়োজনীয় অর্থ নেই এ কথা শুনলে বাংলাদেশ এগিয়ে জাচ্চে একথার গুরুত্ত থাকে না।দেশের ডিজিটালের রুপকার আইসিটি শিক্ষক,সুতরাং তাদের বেতন নেই এটা হতে পারে না।

  68. Ruhul amin, assistant teacher masua high school.katiadi,kishoregonj says:

    দেশটা মনে হয় উল্টু দিকে যাচ্ছে। একই নিবন্ধন সনদে ১৩.১১.১১ এর আগে নিয়োগ প্রাপ্তদের এম.পিও হবে কিন্তু পরে যাদের তাদের হবে না। কি অবাক কান্ড এক দেশ দুই নীতি।না হেসে পারলামনা।আমি আই সি টি শিক্ষক বলতে লজ্জা করে।

  69. sribash darker says:

    মুগুরের কাজ লাঠিতে হয় না।এরা ভাল কথার লোকক না।লাগবে কঠোর আন্দোলন।আর শিক্ষ মন্ত্রী তো পাওয়ার লেস।

  70. sribash Sarker says:

    নামে ডিজিটাল কাজে প্রাচীন।

  71. MD. JASHIM UDDIN says:

    এত কষ্ট করে লিখছেন এই জন্য আপনাকে ধন্যবাদ । আসলেই এই কথাগুলোর গুরুত্ব কেউ বা কাহারা বুঝবে না। তাই সরকারি লোকদের বলছি অতি তারাতারি আইসিটি শিক্ষকদের এমপি ও দিন।

  72. ওয়াজেদ আলী says:

    মোবারক ভাই আপনি তাও কলেজ থেকে ৫০০০/- টাকা পান। আর আমি আজ ৮ বছর থেকে বিনা বেতন চাকুরী করে আসছি। সেখানে ৮টি টাকাও পাইনি । আর কত দিন এই ভাবে আমাদের জীবন চলবে। আমাদের দেশের সরকার কি এগুলো দেখতে পাচ্ছে না? তাদের মধ্যে কি এতটুকুও সহানুভূতি নাই?

  73. মুহাঃ তাহির হোসেন, প্রভাষক সমাজকর্ম says:

    সৃষ্ট পদের সকল শিক্ষকের অবস্থা একই ভাই, আমাদের সকলের মামলা করা উচিত া

  74. মোহাম্মদ আলী মন্ডল (এটম), প্রভাষক (গণিত), রাজারহাট ফাজিল(ডিগ্রী) মাদ্রাসা,কুড়িগ্রাম। says:

    ধন্যবাদ মোঃ মোবারক করিম খান স্যাঁরকে। আপনি দয়া চাবেন কেন, বেতন আপনার ন্যায্য অধিকার। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কিছু সুবিধা বাদি আমলার কারণে অনেক শিক্ষক ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। শিশু না কাঁদলে আপন মাও দুধ দেয়না। আপনারা দাবী আদায় করে নেন। ১৩/১১/২০১১ ইং এর কালো প্রজ্ঞাপন বাতিল করেন।

  75. শফিকুল ইসলাম, তেরখাদা, খুলনা। says:

    দয়া করে আইসিটি শিক্ষকদের বেতনটা দিয়ে দিন, একটু দয়া করেন স্যার ।এ দেশের সবাই ভালো আছে আইসিটি শিক্ষকেরা কেন ভালো থাকবেনা। কেন আমাদেরকে ২১ শতকের শ্রমদাস বানাচ্ছে? এটাকী সকল শিক্ষকদের লজ্জা নয়। একই প্রতিষ্ঠানে সবাই বেতন পাবে আমরা কেন পাবনা? আমাদের কী অপরাধ। আসছে ঈদ সব শিক্ষকেরা ভালোভাবে ঈদ করবে আর আইসিটি শিক্ষকদের কথা কি কেহ ভাবে ?

  76. মোঃ মনিরুজ্জামান, ইখড়ি দাখিল মাদরাসা, তেরখাদা, খুলনা। says:

    আইসিটি শিক্ষকদের ওপর চলছে এক ধরনের অবিচার। অভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকার পর সব ধরনের শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছে কিন্তু আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও হচ্ছেনা। আমরা আইসিটি শিক্ষকদের দ্রুত এমপিও চাই । কি অপরাধ আই সিটি শিক্ষকদের ।

  77. নুর মোহাম্মদ .গাজীপুর, শ্রীপুর, গাজীপুর। says:

    যারা নিয়োগ পেয়েছে তাদের এমপিও দিন আর যাদের নিন্ধন সনদ আছে তাদের নিয়োগ দিন আমরা আমাদের কষ্টের কথা ভুলে যাব।

  78. Mizanur Rahman says:

    13-11-11er proggapon batil kora ict and science teacher der mpo din.

  79. মো: আ: রাজজাক says:

    আমি সেই হতভাগ্য বাতিয়ালা আলো দিয়ে বেড়ায় কিন্তু নিজের ঘর অন্ধকারে ভরা

  80. আক্তারুজ্জামান (ict) ঘুগরাকাটী, কয়রা,খুলনা says:

    vayera amar,
    ar koto, ar ekbar andolon korle mone hoy lav hobe

  81. সুমন দাদ, সহকারী শিক্ষক (ict) পশ্চিম তাফালবাড়ীয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়। says:

    স্যার,
    আপনি (ict) শিক্ষক দের কষ্ট কথাগুলো খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন।আপনাকে যে কি বলে ধন্যবাদ জানাব, ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না।

  82. sribash Sarker says:

    সরকারের মন্ত্রী এমপি রা তো এসি গাড়িতে চড়ে তাই অন্যের দুঃখ বোঝে না।আর শিক্ষামন্ত্রী তো কিছুই বোঝে না।উনি জানেন কি করে শিক্ষকদের বেতন না দিয়ে শিক্ষার মান বাড়িয়ে গল্প দেওয়া যায়।হাই রে দেশ আর মন্ত্রী।

  83. beton hin ict says:

    মন্তব্য akta kotha ase bed porle chokh khule jabe . murkho vebesilo – hoito tar chokh khule porbe. ti bed pore na. akoi vabe -desh digital korbo, hosseo tai. kintu digital karigor (ict teacher) ke bina betone maro. jate jati globalization a vumika rakhte na pare. bishsher mato unnoto na hoi. amar chintae vul hole maf korben. jadi paren ict teacher goner mpo din.

  84. THAYABA BODRUNNESA says:

    তৈয়বা বদরুন্নেছা,সহকারী শিক্ষক (আই সি টি) পীর কাশিমপুর আর এন উচ্চ বিদ্যালয়, মুরাদনগর, কুমিল্লা
    আমি একজন আই সি টি শিক্ষক।২০১৪ সালে আমি নিয়োগ পেয়েছি ।এখনো এম পি ও হয়নি। আমাদের কঠোর আন্দোলন করা উচিত ।

  85. Syed Mahatab Uddin says:

    Bijoy Vaike Bolchi, Dokkho Oddokho Sob Jaigai Ache Tai Bole Ki Onnora Kosto Pabe Naki? Bank O Onek IT Officer Ache Jara IT Er Kajoi Pare Na, Tai Bole Ki Tader Beton Bondho Hoiche Naki. Kaj Korte Korte Korte Thik Hoye Jabe. Evabe Beton Bondho Kore Bochorer Por Bochor Jhuliye Rakha Chorom Obichar. R Niyoger Somoy Bachai Kore Niley To Hoy Ke Pare R Ke Pare Na. Ami To Mone Kori Eta Niyog Bebosthar Truti Ete Prathir Dosh Nai.

  86. Milon Biswas says:

    কি বলব!! আমিও একজন চাকরিজিবি ছিলাম সে চাকরি ছেড়ে দিয়ে শিক্ষকতার মত অমানবিক পেশায় আশায় বুক বেধে প্রবেশ করেছিলাম সেই ২০১৬ সালে, কে জানতো এ পেশায় এত সম্মান যে পেশায় বোউয়ের কাপড় পর্যন্ত কেনার সামর্থ ও থাকেনা, মা, বাবা ভাইবোনদের দেখার সুযোগ থাকেনা । মাঝে মাঝে মনে এজীবন বৃথা এজীবন রেখে কি লাভ। আর বেশিকিছু লিখলামনা হয়ত এজীবন এক সময় ——!!!!!!

  87. Md.Jowel Rana says:

    মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীঁ আপনি ঘুম থেকে উঠে ভালো নাস্তা করেন তারপর ভালো খাবার খান আর আমরা ict শিক্ষকরা নাস্তা তো দুরের কথা দু বেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারছি না ।দয়া করে আমাদের mpo দিন্।তানাহলে এই কষ্টের জবাব আল্লাহর কাছে আপনাকেই দিতে হবে ।

  88. maksuds says:

    স্যার আমি পাই ৩০০০টাকা।কিন্ত শাখা শিক্ষক আই সি টি নয়। এক সাথে নিয়োগ পেয়ে সে বেতন পায় আমি পাই না। এটা কোন নিয়োম। যদি বেতন দেবেন না তাহলে কেন পদ সৃষ্টি করলেন

  89. মো: রবিউল ইসলাম, সককারী শিক্ষক (আই.সি.টি), গালদা খড়িঞ্চী মা: বা: বিদ্যা:, মনিরামপুর, যশোর। says:

    ধন্যবাদ স্যার। মনের কথা বলার জন্য। আমরা (আই.সি.টি) শিক্ষকরা নাস্তা তো দুরের কথা দু বেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারছি না । দয়া করে আমাদের mpo দিন।

  90. মো: রবিউল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক (আই.সি.টি), গালদা খড়িঞ্চী মা: বা: বিদ্যা:, মনিরামপুর, যশোর। says:

    ধন্যবাদ স্যার। মনের কথা বলার জন্য। আমরা (আই.সি.টি) শিক্ষকরা নাস্তা তো দুরের কথা দু বেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারছি না । দয়া করে আমাদের mpo দিন।

  91. মোহাম্মদ আলী says:

    ধন্যবাদ স্যার। মনের কথা বলার জন্য। আমরা (আই.সি.টি) শিক্ষকরা নাস্তা তো দুরের কথা দু বেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারছি না । মানণীয় প্রধান-মন্ত্রী ,মানণীয় অর্থ-মন্ত্রী,মানণীয় শিক্ষা মন্ত্রী ,মানণীয় শিক্ষা সচিবের নিকট প্যাটান অনুযায়ী স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ১৩৫২ জন ননএমপিও কম্পিউটার/আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি । মোহাম্মদ আলী (ননএমপিও কম্পিউটার/আইসিটি শিক্ষক) চরসিন্দুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ,পলাশ , নরসিংদী ।

  92. মোহাম্মদ আলী says:

    আমার মনে হয় ননএমপিও সকল আইসিটি/কম্পিউটার শিক্ষক প্রতেক জেলা পর্যায়ে সারা দেশে একই তারিখে সংবাদ সম্মেলন করা উচিত । এ বিষয়ে সরকার দায়ী নয় , কিছু সরকার বিরোধী সরকারী আমলা রয়েছে যারা এ বিষয়ে সরকারকে হেয় করার জন্য/সরকারের দুর্নাম হওয়ার জন্য ননএমপিও কম্পিউটার/আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও না দেওয়ার জন্য চেষ্টা করছে বা অপব্যাখ্যা দিচ্ছে । মোহাম্মদ আলী (ননএমপিও কম্পিউটার/আইসিটি শিক্ষক) চরসিন্দুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ,পলাশ , নরসিংদী ।

  93. মানিক মোহাম্মদ(রাসেল) says:

    জাতীয়করণ এর আগে আইসিটি সহ অন্যান্য বিষয়ের সকল নিবন্ধনধারীদের মেধাক্রমিক নিয়োগ দিয়ে বেকারত্ব মুক্ত সমাজ গঠন করা যৌক্তিক।কারণ যে সকল নিবন্ধনধারী এখনো নিয়োগ পান নি এনটিআরসিএ তাদের ২০১৬ সালের মত মেধাক্রমিক নিয়োগ দিবেন আশা করি।তবে নিয়োগ আবেদন যেন প্রতি বিষয়ের জন্য একটি করে হয়।তাহলে এক বিষয়ের জন্য আগের মত ৫০,৬০ টি আবেদন করতে হবে না।বেকারদের কষ্ট হবে না।আর দুটি বিষয় জরুরী।১।আইসিটি নিবন্ধনধারী আবেদনকারী দের রেজাল্ট প্রকাশ করে দ্রুত নিয়োগ ।কেননা ১২ তম আইসিটি নিবন্ধনধারী গণ তাদের সনদ কোথাও ১মাসও ব্যবহার করতে পারে নি।আদালত ১-১২ তম আইসিটি নিবন্ধনধারীদের সনদ ও আবেদন বৈধ করেছে।তাই রেজাল্ট প্রকাশ দ্রুত করুন।২।ব্যবসায় শিক্ষা প্রায় স্কুলে অনুমোদন নেই।তাই এ বিষয়ের নিবন্ধনধারী গণ সব সময় নিয়োগ বঞ্চিত-যা খুবই বিমাতাসুলভ।
    তাই মাউশির ২০১৫ সালের সিদ্বান্ত অনুযায়ী প্রতি স্কুলে আলাদা করে ব্যবসায় শিক্ষার একজন শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে এ বিষয়ের নিবন্ধনধারী দের বেকারত্ব মুক্ত যেমন করা যাবে তেমন শিক্ষাথীরাও যুগোপযোগী শিক্ষা পাবে।শিক্ষানুরাগী দৈনিক শিক্ষার সম্পাদক মহোদয়ের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান এর কাছে এ বিষয়ে কাযর্কর পদক্ষেপ গ্রহনের বিশেষ অনুরোধ করছি।

  94. সোলায়মান, সহকারি শিক্ষক, রৌহা দারুল আমান ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা। says:

    স্যার, অন্তরের অন্তস্থল হতে আপনাকে মোবারকবাদ জানাচ্ছি এমন একটি নিবন্ধ উপস্থাপন করার জন্য। আমরা ICT শিক্ষকরা তো সেই চাতক পাখির মতো। কবে আসবে আমাদের সেই সোনালী দিন যে দিন বাবার ঔষুধের টাকা যোগার করতে পারব আর মায়ের মুখের দু:খ দুর করতে পারব। সবাই যখন ১৬০০০ থেকে ২৯০০০ টাকা বেতন নিয়ে ঘরে ফিরে তখন আমি মাত্র ৩০০০ টাকা নিয়ে (৪-৬ মাস পরে) বাসায় ফিরি। এটা আমাদের ঘরের মানুষের (স্ত্রীদের) কাছে যেমন উপহাস তৈরি করে একই ভাবে উপহাসের পাত্র হিসেবে তৈরি করে আসেপাশের লোকদের কাছে।

  95. মানিক চন্দ্র মন্ডল । আই,সি,টি শিক্ষক, গোহালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। says:

    আমাদের কোন দোশে এম পি ও দিচ্ছেন না। সেটা জানিয়ে দিন।

  96. উজ্জ্বল কুমার বিশ্বাস, খানজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়,কালিগঞ্জ,সাতক্ষীরা। says:

    আইসিটি নামক প্যার্টানভুক্ত পদ হয় সৃষ্ট,আর অন্য প্যার্টানভুক্ত পদ নতুন হলেও তা হয় শূন্য এ কেমন নীতি?

  97. মোঃ গোলাম মোস্তন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ says:

    আমি একজন আইসিটি শিক্ষক। আমরা সবাই মিলে চুড়ান্ত অনশন করি।

  98. মোঃ আখতারুজ্জামান সহ শি দরসানা দি এস ডিগ্রী মাদরাসা দামুরহুদা , চুয়াডাঙ্গা । says:

    আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকারে সহ যোদ্ধা হয়েছি , এটাই কি আমাদের অপরাধ ?

  99. Md Younus Ali says:

    স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আমিও একজন আই সি টি শিক্ষক । আপনার মত আমার অবস্থাও একই । ব্যাংকের চাকরিটা ছেড়ে জীবনে যে ভুল করেছি তার মাসুল দিচ্ছি । ভালো নেই, ভালো থাকার উপায়ও নেই । ডিজিটাল বাংলার জয় হোক ।আই সি টি শিক্ষক নিপাত যাক । তোমারা খাও কোরমা পোলাও, আমরা পাইনা ফেন, ভবে আইলাম ক্যান ।

  100. md.khorshed alam khan says:

    মানিক খান রানা স্যার আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ………
    কথা গুলো সুনে অনেক কষ্ঠপেলাম ……

  101. সুব্রত কুমার সরকার।সহকারী শিক্ষক, নাকশালা জমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়। says:

    এক শ্রেণির শিক্ষকদের অভুক্ত রেখে মান সম্মত শিক্ষা মোটেও সম্ভব নয়া

    • মোঃ আমিরুল ইসলাম আইসিটি শিক্ষক, says:

      স্যার শিক্ষকতা ছেরে আসে সবাই ভিক্ষা করি কারন ভিক্ষা করলে সরকার ভাতা দেয়। চাকরী করে তো কিছুই পাই না। ভিক্ষুক মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে হয়ত পেতে পারি।

  102. রব‌ি says:

    ধন্যবাদ স্যার , ভুল কর‌ে চে‌ারাবালুত‌ে পা র‌েখ‌েছ‌ি ।

    • মোঃ ইলিয়াস হোসেন মোল্যা , সহকারী শিক্ষক (আইসিটি) says:

      আইসিটি বিষয়ের শিক্ষকদের এমপিও ভূক্তির দাবি জানানোর জন্য দৈনিক শিক্ষা ডট কমের সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান খানকে অসংখ্য ধন্যবাদ। বাপদাদার চৌদ্দগোষ্টি আওয়ামীলীগ। আমার মধ্যেও একই রক্ত প্রবাহিত। ছোট বেলায় যখন থেকে একটু একটু বুঝতে শিখেছি তখন থেকেই কেন যেন ভাল লাগে শেখ মুজিবকে। সেই ভাল লাগা এখন ভাল নালাগায় পরিনত করছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী জনাব নূরুল ইসলাম নাহিদ এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মোহিত। ২০০০ সালে সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার ) পদে নিয়োগ নিয়ে আজ আমি অবসরের কাছাকাছি। মনের দুঃখে বলতে হয় যায় দিন যায়রে কচুর লতি খেয়ে মনের দুঃখ বলব মোরা এমপিও পেয়ে। আমার মত অনেক শিক্ষক রয়েছেন যাদের আর কয়েক বছর গেলে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রীকে আর বেতন দিতে হবেনা। দীর্ঘ বছর বেতন না পাওয়ায় লাঞ্ছনা, বঞ্চনা আর অপমান সইতে না পেরে ইতিমধ্যে অনেক শিক্ষক গলায় রশি দিয়ে পরপারে চলে গেছেন। এই একই কারনে আর যদি কোন শিক্ষকের মৃত্যু হয় তাহলে এ জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রী দায়ী থাকবেন। স্ত্রী ও ছেলে মেয়ের অভিশাবে সারা জীবন আপনাদের ধুকে ধুকে মরতে হবে। মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী কোটি কোটি টাকা খরচ করে সারা দেশে স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা গুলোতে ল্যাপটপ ও প্রোজেক্টর বিতরণ করে মাল্টিমিডিয়া ক্লাস পরিচালনার কথা বলেছেন। এই মাল্টিমিডিয়া ক্লাস পরিচালনার একমাত্র দাবিদার আইসিটি শিক্ষক। অথচ আইসিটি শিক্ষকদের বেতন দেওয়া হচ্ছেনা। কোটি কোটি টাকা খরচ করে শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য শিক্ষকদের বিভিন্ন বিষয়ে ট্রেনিং করাচ্ছেন। অথচ সামান্য কিছু টাকার জন্য আইসিটি শিক্ষকরা না খেয়ে মরছেন। মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী সারা দেশ ব্যাপি স্কুল গুলোতে লাইব্রেরী পদ সৃষ্টি করেছেন। দেখা গেছে স্কুলে কোন লাইব্রেরী নেই, কোন বই নেই। অথচ মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এই সব লাইব্রেরীয়ানদের কোটি কোটি টাকা বেতন দিয়ে বসিয়ে বসিয়ে খাওয়াচ্ছেন। বা! চমৎকার! নিজের ওরশজাত সন্তানকে ভাত না দিয়ে পালক ছেলেকে ভাত খাওয়াচ্ছেন। বর্তমান ডিজিটাল যুগ, আইসিটির যুগ। আইসিটির যুগে আইসিটি শিক্ষা ছাড়া নিজেকে মনে হয় অশিক্ষিত রয়ে গেলাম। আমরা বর্তমানে ডিজিটাল পর্যায়ে এসে পড়েছি। আগামী ৫ থেকে ৬ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ পূর্ণ ডিজিটাল দেশ হিসেবে বিবেচিত হবে। যার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অবদান থাকবে আইসিটি শিক্ষকদের। তাই মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রীর কাছে আমার আকুল আবেদন আর দেরী না করে আইসিটি শিক্ষকদের দ্রুত এমপিও দেওয়ার ব্যবস্থা করুন।

      পরিশেষে, হাজার অনুরাগ থাকা সত্ত্বেয় মাননীয় প্রধান মন্ত্রী , মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রীর জীবন ভরে উঠুক শরতের শিশির ভেজা শেফালী ফুলের সৌরভে, ভরে উঠুক সুগন্ধময়ী পুষ্পরাজির সুভাষিত সৌরভে। পবিত্র হউক নিষ্পাপ ফুটন্ত গোলাপের মত। এ কামনায় শেষ করছি।

      মোঃ ইলিয়াস হোসেন মোল্যা
      সহকারী শিক্ষক (আইসিটি )
      পশ্চিম বিভাগদী আব্বাসিয়া দাখিল মাদরাসা
      উপজেলাঃ সালথা , জেলাঃ ফরিদপুর।

  103. ict says:

    evabe chup Kore Bose thakle konodin mpo hobe na. Sobai akottrito hoea andolon korte hobe. Noile Sara Jibon bina betone teaching korte hobe.

  104. মোঃ কামাল হোসেন says:

    mpo দিতে আর কত তালবাহানা করবেন। শেখ মুজিবের সৈনিক হয়ে এতো বিড়ম্বনা আর সয্য হয়না। Ict শিক্ষকরা এতোই অপছন্দের আপনাদের।

  105. মোঃজয়নাল আবেদীন says:

    জননেত্রী গণতন্ত্রের মানসকন্যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আই সি টি শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করেছেন কিন্তু আমাদের কোন বেতন না দিয়ে, প্রতিটি স্কুলে লাইব্রীয়ান, তীর্থ কাব্য এ সব শিক্ষকদের বিনা কারনে মাসে হাজার হাজার টাকা শুধু শুধু ব্যয় করছেন কি কারন। তাদের স্কুলে কোন কাজ দেখিনা শুধু আসা যাওয়া,ফ্যাশন করা ছাড়া বিদ্যালয়ের আর কোন লাভ নেই। একাটা স্কুলে সর্বোচ্চ ৫ থেকে ১০ জনের বেশী হিন্দু ছাত্র / ছাত্রী নেই তাদের বেতন দিতে পারেন। আর আমাদের অনেক কাজ করার পরও বিনা বেতনে কত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সেদিকে কোন নজর নাই আপনার আমলারা যা ইচ্ছে তাই করছে দয়া করে আই সি টি শিক্ষকদের প্রতি সদয় হন না আমাদের বাতিল ঘোষনা করেন। মরলে অন্য কোথাও যেয়ে মরি। শিক্ষক নামের কলংখ দুরে যাক।

  106. মোঃজয়নাল আবেদীন সহকারী শিক্ষক সহরবানু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।শাহগঞ্জ, গৌরীপুর,ময়মনসিংহ। says:

    জননেত্রী গণতন্ত্রের মানসকন্যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আই সি টি শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করেছেন কিন্তু আমাদের কোন বেতন না দিয়ে, প্রতিটি স্কুলে লাইব্রীয়ান, তীর্থ কাব্য এ সব শিক্ষকদের বিনা কারনে মাসে হাজার হাজার টাকা শুধু শুধু ব্যয় করছেন কি কারন। তাদের স্কুলে কোন কাজ দেখিনা শুধু আসা যাওয়া,ফ্যাশন করা ছাড়া বিদ্যালয়ের আর কোন লাভ নেই। একটা স্কুলে সর্বোচ্চ ৫ থেকে ১০ জনের বেশী হিন্দু ছাত্র / ছাত্রী নেই তাদের বেতন দিতে পারেন। আর আমাদের অনেক কাজ করার পরও ৬ষ্ট থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত ক্লাস করে বিনা বেতনে কত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সেদিকে কোন নজর নাই আপনার আমলারা যা ইচ্ছে তাই করছে দয়া করে আই সি টি শিক্ষকদের প্রতি সদয় হন, না হয় আমাদের বাতিল ঘোষনা করেন। মরলে অন্য কোথাও যেয়ে মরি। শিক্ষক নামের কলংখ দুরে যাক।

  107. shahjahan says:

    কম্পিউটার শিক্ষকদের দ্রুত এমপিও দেওয়া হক।

  108. এনামুল হক। হতভাগা শিক্ষক 'আই সি টি' says:

    সার আমরা তো আই সি টি শিক্ষক না।অন্যান্য শিক্ষকরা আমাদের নাম দিয়েছে হায় ছি! ছি! শিক্ষক।মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও যারা উর্ধবতন কর্মকর্তা আছেন , আমাদের বেতন দিয়ে হায় ছি! ছি! শিক্ষক থেকে আই সি টি শিক্ষকে পরিনত করুন।

আপনার মন্তব্য দিন