আট বছর পর চালু হলো কারমাইকেল কলেজের ছাত্রাবাস - কলেজ - Dainikshiksha

আট বছর পর চালু হলো কারমাইকেল কলেজের ছাত্রাবাস

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আট বছর বন্ধ থাকার পর চালু হলো রংপুরের কারমাইকেল কলেজের দুটি ছাত্রাবাস। গোপাল লাল (জিএল) ছাত্রাবাস এরই মধ্যে ছাত্রদের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত হয়েছে। কাশিম বাজার (কেবি) ছাত্রাবাস দুয়েকদিনের মধ্যেই বসবাস উপযোগী হয়ে উঠবে।

তবে দুই ছাত্রাবাস মিলিয়ে মাত্র ২২০টি আসন প্রায় ২১ হাজার শিক্ষার্থীর বিপরীতে খুবই অপ্রতুল উল্লেখ করে দ্রুত বাকিগুলোও সংস্কার ও নতুন ছাত্রাবাস নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

কারমাইকেল কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ মার্চ কলেজের সবকটি ছাত্রাবাস (কেবি, জিএল ও ওসমানী) অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়। ছাত্রাবাস বন্ধের বিজ্ঞপ্তিতে অনভিপ্রেত’ কারণ উল্লেখ করা হলেও জানা যায়, তখন হলগুলো একটি ছাত্র সংগঠনের ক্যাম্প’ হিসেবে ব্যবহারের অভিযোগ ওঠেছিল। এদিকে দীর্ঘদিন অব্যবহৃত থাকায় ওসমানী ছাত্রাবাস ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। মুসলিম (সিএম) ছাত্রাবাসটি ২০০৮ খ্রিষ্টাব্দে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

গত শনিবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, জিএল ছাত্রাবাসের সামনে একাধিক ছাত্রের জটলা। অনেকেই ছাত্রাবাসে থাকার নিয়মকানুন জানতে এসেছেন।

জিএল ছাত্রাবাসের তত্ত্বাবধায়ক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ছাত্র ভর্তির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১৪ জন ভর্তি হয়েছে। অনেকে খোঁজখবর নিতে আসছে। এখানে ১৭০ ছাত্র থাকতে পারবে। প্রত্যেকের মাসে খরচ পড়বে দেড় হাজার টাকা। তবে এ ছাত্রাবাসের এখনো আরো সংস্কার দরকার বলে জানান তিনি।

কলেজ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দূরদূরান্ত থেকে যারা পড়তে আসেন, তাদের কলেজপাড়া এলাকায় মেসে থাকতে হয়। এতে প্রতি মাসে প্রায় ৩ হাজার টাকা খরচ হয় তাদের। অথচ ছাত্রাবাসে থাকতে পারলে খরচ হবে এর অর্ধেক। এ কারণে ছাত্রাবাস চালু হওয়ায় তারা খুশি। তবে আসন যেহেতু সীমিত, সেহেতু মেধার ভিত্তিতে বরাদ্দ দেয়ার দাবি জানান তারা।

কারমাইকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আমজাদ হোসেন বলেন, বর্তমান অধ্যক্ষ যোগ দেয়ার পর থেকেই অগ্রাধিকারভিত্তিতে ছাত্রাবাস চালুর উদ্যোগ নেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে কেবি ও জিএল ছাত্রাবাস খোলা ও আবাসিক ভর্তির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এছাড়া এইচএসসির ছেলেমেয়েদের জন্য দুটি ছাত্রাবাস নির্মাণের কাজ চলছে। প্রতিটির আসন সংখ্যা হবে ১৩০।

এদিকে ব্যবহার অনুপযোগী ওসমানী এবং পরিত্যক্ত ঘোষিত মুসলিম ছাত্রাবাস দুটিও চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন কারমাইকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শেখ আনোয়ার হোসেন।

‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ - dainik shiksha সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী - dainik shiksha আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website