আত্তীকৃত কিন্তু সরকারি বেতন না পাওয়া শিক্ষকরা চরম অর্থকষ্টে - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা

আত্তীকৃত কিন্তু সরকারি বেতন না পাওয়া শিক্ষকরা চরম অর্থকষ্টে

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ছয়মাস ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন সরকারিকৃত ১৫টি হাইস্কুলের প্রায় চারশ শিক্ষক-কর্মচারী। আত্তীকরণ ও অ্যাডহক নিয়োগ সম্পন্ন হওয়ায় তাদের এমপিও বন্ধ হয়েছে গত ৬ মাস আগে। কিন্তু রাজস্ব খাত থেকে বেতন ভাতা প্রাপ্তির সম্পূর্ণ কাজ এখনো শেষ হয়নি। তাই তারা না পাচ্ছেন এমপিও না পাচ্ছেন সরকারি বেতন।

এদিকে দেশে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সব সরকারি অফিস স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জনজীবন হয়ে পড়েছে স্থবির। এই অবস্থায় বিপাকে পড়েছেন সরকারিকৃত এ ১৫টি স্কুলের শিক্ষকরা। তারা তাদের কষ্টের কথা বলেছেন দৈনিক শিক্ষার কাছে। টিউশনিসহ নানা বিকল্প পন্থায় কিছু টাকা উপার্জনের ব্যবস্থা করলেও স্থবির জনজীবনে সে সুযোগ বন্ধ হয়ে গেছে ভুক্তভোগী এসব শিক্ষকের। আর শিক্ষক হিসেবে কারো কাছে হাত পাততে পারছেন না তারা। তাই, এই দুর্যোগকালে সরকারিকৃত ১৫টি স্কুলের আত্তীকৃত এসব শিক্ষকদের এমপিও চালু রাখার দাবি উঠেছে। একই সাথে এসব শিক্ষক-কর্মচারীদের আর্থিক সহায়তা দেয়ার দাবি জানিয়েছেন সরকারিকৃত মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নেতারা।

১৫টি স্কুল: নেত্রকোনার পূর্বধলা জে এম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, বারহাট্টা সি কে পি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, সুনামগঞ্জের ছাতক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, খুলনার দিঘুলিয়া সেনহাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, গাইবান্ধার ফুলছড়ি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, গোবিন্দগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, সাতক্ষীরার শ্যামনগর নকিপুর এইচ সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, রাঙ্গামাটির কাউখালী পোয়াপাড়া মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, বিলাইছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল খ ম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুমিল্লার দেবিদ্বার রেয়াজ উদ্দিন পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, নীলফামারী সৈয়দপুর তুলশীরাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং যশোরের অভয়নগর নওয়াপাড়া শংকরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

সমিতির সভাপতি সুধাংশু শেখর তালুকদার ও ও সাধারণ সম্পাদক মো. মোবারক হোসেন দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, স্কুল সরকারি হওয়ার পর এ ১৫টি স্কুলে কর্মরত শিক্ষকদের আত্তীকরণের প্রজ্ঞাপন জারি হয়ে গেছে। তাই গত ছয় মাস আগে এসব শিক্ষকের এমপিও বন্ধ হয়ে গেছে। কিন্তু এসব শিক্ষকরা সরকারি বেতন-ভাতা এখনো পাচ্ছেন না। জানা গেছে, তাদের বেতন ভাতা সংক্রান্ত প্রস্তাব এখন অর্থ মন্ত্রণালয় রয়েছে। 

শিক্ষক নেতারা আরও বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সব সরকারি অফিস স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। টিউশনিসহ নানা বিকল্প পন্থায় কিছু টাকা উপার্জনের পথ এসব শিক্ষকদের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে। 

এসব শিক্ষকদের এমপিও পুনরায় চালু এবং দুর্যোগ চলা অব্দি তা অব্যাহত রাখার দাবি জানান শিক্ষক নেতারা। একই সাথে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় চলমান লকডাউন পরিস্থিতি মোকাবেলায় এসব শিক্ষক আর্থিক সহায়তা দাবি করেছেন। এসব শিক্ষকদের আর্থিক সহায়তা নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন শিক্ষক নেতারা।

করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৭৩৩ - dainik shiksha করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৭৩৩ সংসদ সদস্যরা ডিগ্রি কলেজের সভাপতি পদেও থাকতে পারবেন না - dainik shiksha সংসদ সদস্যরা ডিগ্রি কলেজের সভাপতি পদেও থাকতে পারবেন না টিউশন ফি না দেয়া শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না : হাইকোর্ট - dainik shiksha টিউশন ফি না দেয়া শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না : হাইকোর্ট সরকার আর শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সরকার আর শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না : শিক্ষামন্ত্রী এনটিআরসিএ থেকেই জাল নিবন্ধন সনদটি বৈধ করে নিলেন শিক্ষক - dainik shiksha এনটিআরসিএ থেকেই জাল নিবন্ধন সনদটি বৈধ করে নিলেন শিক্ষক এমপিও না দেয়ার শর্তে নতুন ৩ কলেজের অনুমতি - dainik shiksha এমপিও না দেয়ার শর্তে নতুন ৩ কলেজের অনুমতি শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website