আত্মহত্যার প্ররোচণায় দোষী সাব্যস্ত হলে পদত্যাগ করবো : অধ্যক্ষ - কলেজ - Dainikshiksha

আত্মহত্যার প্ররোচণায় দোষী সাব্যস্ত হলে পদত্যাগ করবো : অধ্যক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেয়ায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌসের পদত্যাগের দাবি তুলেছে শিক্ষার্থীরা। এ বিষয়ে অধ্যক্ষের মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তদন্ত কমিটির রিপোর্টে দোষী সাব্যস্ত হলে আমি পদত্যাগও করবো, প্রয়োজনে আদালতের কাঠগড়ায়ও দাঁড়াবো।’ মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) ভিকারুননিসার বেইলি রোডর মূল শাখায় নিজ দফতরে সাংবাদিকদের  কাছে একথা বলেন তিনি।

অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস বলেন, নিয়োগ বা পদত্যাগ কোনোটিই আমার বিষয় না। এ ঘটনায় স্কুল ও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে যেই দুইটি কমিটি গঠিত হয়েছে তারাই এর সিদ্ধান্ত নেবে। তদন্ত প্রতিবেদনে যদি আমি অপরাধী হই তাহলে শুধু পদত্যাগ নয়, আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হলে দাঁড়াবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘পদত্যাগের বিষয়টি নির্ভর করছে দুই কমিটির ওপর। তাদের সিদ্ধান্ত আমি ও নবম শ্রেণির ক্লাস টিচার জিন্নাত আরাসহ প্রত্যেক শিক্ষক মেনে নিতে বাধ্য হবো।’

এর আগে সোমবার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর শান্তিনগরের নিজ বাসায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে অত্মহত্যা করে অরিত্রি। অরিত্রির বাবা-মাকে স্কুলে ডেকে অপমানের কারণেই সে আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পরিবার।

এদিকে অরিত্রির মৃত্যুর জেরে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে ভিকারুননিসার বাইরে প্রিন্সিপাল ও ভাইস প্রিন্সিপ্যালের পদত্যাগ ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। ঘটনার গভীরতা বুঝতে পেরে সেখানে যান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

এ ঘটনায় ভিকারুননিসার শিক্ষক আতাউর রহমান, খুরশিদ জাহান এবং গভর্নিং বডির সদস্য ফেরদৌসী বেগমকে নিয়ে তিন সদস্য্যের কমিটি গঠন করে স্কুল কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদফতরের ঢাকা আঞ্চলিক অফিসের পরিচালক অধ্যাপক মো. ইউসুফকে প্রধান করে ৩ সদস্যের পৃথক কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। উভয় কমিটিকে ৩ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় - dainik shiksha পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ - dainik shiksha আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ ৬০ লাখ টাকার আর্থিক অনিয়ম করে ফাঁসছেন প্রধান শিক্ষক - dainik shiksha ৬০ লাখ টাকার আর্থিক অনিয়ম করে ফাঁসছেন প্রধান শিক্ষক তথ্য গোপন করে উচ্চতর স্কেলে বেতন, এমপিও বাতিল হচ্ছে শিক্ষকের - dainik shiksha তথ্য গোপন করে উচ্চতর স্কেলে বেতন, এমপিও বাতিল হচ্ছে শিক্ষকের এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন - dainik shiksha এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website