আলোর মুখ দেখেনি নোবিপ্রবির সাবেক ভিসির দুর্নীতি তদন্ত - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

আলোর মুখ দেখেনি নোবিপ্রবির সাবেক ভিসির দুর্নীতি তদন্ত

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি |

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ-পদোন্নতি, তার অনুসারী ছাত্রদের হল দখলের সুযোগ করে দেওয়াসহ নানা বিষয়ে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করার জন্য অফিস আদেশ জারি করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন ( ইউজিসি)। ইউজিসির এ আদেশ জারির পর চার মাস পেরিয়ে গেলেও এ বিষয়ে তদন্ত আলোর মুখ দেখেনি।

জানা যায়, গত ২৪ জুলাই ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পরিচালক মো. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে বলা হয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. এম অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২২ মে, ২০১৯ তারিখে ৩৭.০০.০০০.০৮.০৮.০১২.১৮-১৯২ স্মারকের মাধ্যমে উথাপিত অভিযোগের বিষয়টি তদন্তপূর্বক তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কমিশন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। সে মোতাবেক ইউজিসির দুই সদস্য প্রফেসর ড. এম শাহ্ নওয়াজ আলি, প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপপরিচালক মৌলি আজাদকে নিয়ে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। একই আদেশে কমিটির টার্মস অব রেফারেন্সে বলা হয়, ‘কমিটি নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. এম অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে উথাপিত অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করবে। তদন্ত কাজ যথাশিগগিরই সম্পন্ন করে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেশ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।’ কিন্তু অদ্যাবধি সাবেক ভিসি ড. এম অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের তদন্ত হয়নি।

কী কারণে তদন্তে বিলন্ব হচ্ছে জানতে চাইলে নোবিপ্রবির বর্তমান ভিসি প্রফেসর ড. দিদার-উল-আলম বলেন, ‘আমি যতটুকু জেনেছি যারা তদন্ত কমিটিতে আছেন তারা ব্যস্ততার মধ্যে রয়েছেন। এ মাসে (ডিসেন্বর) তদন্ত কমিটি আসবে বলে জেনেছি। এর বেশি কিছু আমার জানা নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের একাধিক সূত্র জানান, সাবেক ভিসি ড. এম অহিদুজ্জামান তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের বিষয়টি যেন তদন্ত না হয় সেজন্য তিনি ইউজিসিতে নানাভাবে প্রভাব খাটিয়ে ও তদবির চালিয়ে তদন্ত কাজ বন্ধ করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, যে কারণে তদন্তে বিলন্ব হচ্ছে।

ড. এম অহিদুজ্জামান ২০১৫ সালের ২রা জুন নোবিপ্রবির ভিসি হিসেবে যোগদান করেন। ভিসির দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠতে শুরু করে।

মাদরাসা শিক্ষকদের জুন মাসের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের জুন মাসের এমপিওর চেক ছাড় স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিওর চেক ছাড় শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর - dainik shiksha শিক্ষার্থীর সংখ্যার ভিত্তিতে স্কুলের তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে বন্যা দুর্গত এলাকায় স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha তিন শিক্ষকের ডাবল এমপিও : দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর অধ্যক্ষকে শোকজ দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর : তথ্য গোপন করে নেয়া অনুদানের টাকা ফেরত জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা - dainik shiksha জটিলতার দ্রুত সমাধান চান এমপিওবঞ্চিত শিক্ষকরা প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ - dainik shiksha প্রভাষকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website