please click here to view dainikshiksha website

ইডেন কলেজে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী

নিজস্ব প্রতিবেদক | জানুয়ারি ৫, ২০১৬ - ৮:১৪ পূর্বাহ্ণ
dainikshiksha print

ইডেন মহিলা কলেজের মাঠ সোমবার ভোরেই প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। বিভিন্ন বিভাগের ছাত্রীরা লাল সবুজ রঙের শাড়ি পরে রাঙিয়ে নিয়েছেন নিজেদের। মাঠের দু’পাশে প্যান্ডেল করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন, কর্ম, সংগ্রামের নানা সময়ের আলোকচিত্র।

লাইন ধরে শিক্ষার্থীরা সেগুলো দেখছেন আর ঘুরে ফিরছেন ইতিহাসের পাতায় পাতায়। এরপর ইডেন কলেজের তিন হাজার শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা একসঙ্গে দাঁড়িয়ে গাইলেন জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’।

সোমবার ইডেন মহিলা কলেজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘরের উদ্যোগে ‘ইতিহাস কথা বলে- সংগ্রাম থেকে স্বাধীনতায় বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

এর পাশাপাশি ছিল হাজারও কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনা, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এই আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কমডোর (অব.) এ ডব্লিউ চৌধুরী বীর উত্তম বীর বিক্রম।

ইডেন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হোসনে আরার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা লে. কর্নেল (অব.) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির বীর প্রতীক, বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) আবদুল হাফিজ মল্লিক ও বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সিইও মাশুরা হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রফেসর মো. মাসুমে রব্বানী খান।

এ ডব্লিউ চৌধুরী বলেন, ইতিহাস কথা বলে। সত্য কোনোদিনও মরবে না। তেমনি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি করা হলেও মিথ্যা কখনও প্রতিষ্ঠিত হবে না। মিথ্যা একদিন নিজেকেই কবর দিবে। দেশের স্বাধীনতাযুদ্ধ আমাদের অত্যন্ত গৌরবের। যতদিন বাঙালি, বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষ বেঁচে থাকবে ততদিন তা বুকে ধারণ করে রাখতে পারব। এসময় তিনি মুক্তিযুদ্ধের নানা অভিজ্ঞতা তুলে ধরে চট্টগ্রাম বন্দরে পাকিস্তানের জাহাজ ধ্বংসের নানা ঘটনা তুলে ধরেন। তরুণ সমাজকে সঠিক ইতিহাস থেকে নিতেও আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানের শুরুতে হাজারও কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার পাশাপাশি ছিল সাংস্কৃতিক আয়োজন। আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে দুর্লভ কিছু ছবি। সেখানে ১৯৪৮ সালে উর্দুকে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা ঘোষণার প্রতিবাদে বাংলা ভাষার জন্য প্রথম আন্দোলনে সচিবালয়ের সম্মুখে পুলিশের লাঠিচার্জে আহত সহকর্মী শওকতকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু, ২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৫৩ সালে মওলানা ভাসানীর সঙ্গে প্রভাতফেরিতে বঙ্গবন্ধু, ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৬ সালে লাহোরে ৬ দফার ঘোষণা দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার বিশেষ আদালতে যাওয়ার প্রাক্কালে বঙ্গবন্ধু, ৭ মার্চ ১৯৭১ তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে জাতির জনকের ঐতিহাসিক ভাষণ, ২৩ মার্চ ১৯৭১ বঙ্গবন্ধুর বাসভবনে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ নানা ঐতিহাসিক আলোকচিত্র স্থান পেয়েছে।

থিয়েটারের ‘মায়ানদী’মঞ্চস্থ : নাটকের দল থিয়েটারের প্রযোজনায় শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চায়ন হল ভিন্নধর্মী গল্পের নাটক ‘মায়ানদী’। সোমবার সন্ধ্যায় একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হয় এই নাটকটি। মায়ানদী হচ্ছে এই বাংলার মানুষগুলোর সঙ্গে মায়াময় সম্পর্কের বর্ণনা। মারুফ কবিরের রচনা ও নির্দেশনায় ‘মায়ানদী’র বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন, রামেন্দু মজুমদার, ত্রপা মজুমদার, পরেশ আচার্য, রাশেদ শাওন, গোলাম শাহরিয়ার সিক্ত প্রমুখ।

বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসবের চতুর্থ দিন : বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে ৬৪ জেলা শিল্পকলা একাডেমির অংশগ্রহণে চলছে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৬। সোমবার ছিল এই উৎসবের চতুর্থ দিন। একাডেমির নন্দনমঞ্চে বিকেল থেকেই শুরু হয় অনুষ্ঠান। এদিন পরিবেশিত হয় যশোর, পঞ্চগড়, সিরাজগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনা। আজ কুড়িগ্রাম, মৌলভীবাজার, নোয়াখালী ও রাজবাড়ী জেলা শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনা রয়েছে।

জাদুঘরে জাদু প্রদর্শনী : জাদুর ভেলকিবাজিতে মুগ্ধ হয় না এমন মানুষ নিতান্তই কম। জাদুর ভেলকিবাজিতে দর্শকদের চোখে মুখে ভেলকি লাগানোর প্রত্যয় নিয়েই জাতীয় জাদুঘর আয়োজন করেছে জাদু প্রদর্শনীর। সোমবার জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রদর্শনী। অনুষ্ঠানে জাদু প্রদর্শন করেন জাদুকর জিয়া মনি। ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আগত শিক্ষার্থীরা এই জাদু প্রদর্শনী উপভোগ করে। এর আগে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি এম. আজিজুর রহমান ও জাদুঘরের সচিব মো. রমজান আলী।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


আপনার মন্তব্য দিন