একাডেমিক সুপারভাইজারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ - বিবিধ - Dainikshiksha

একাডেমিক সুপারভাইজারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

বাউফল প্রতিনিধি |

মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের শুদ্ধভাবে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া, শিক্ষকদের নিয়মিত পাঠটীকা প্রস্তুত, শ্রেণিকক্ষ পরিচালনা, প্রাত্যহিক সমাবেশ এবং সে অনুযায়ী ক্লাস নেয়া ও শিক্ষকদের নিয়মিত ডায়েরি অনুসরণ করাসহ শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকারি পরিপত্র অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করা হচ্ছে কি না সেগুলো দেখভাল করার জন্য সরকার প্রতি উপজেলায় একাডেমিক সুপারভাইজার নিয়োগ দিলেও বাউফলে দায়িত্বপ্রাপ্ত একাডেমিক সুপারভাইজারের বিরুদ্ধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো যথাযথভাবে পরিদর্শন না করার অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, বাউফলে ৬২ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ৬৭ মাদরাসা দেখভাল করার জন্য কেএম সোহেল রানা একাডেমিক সুপারভাইজার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় এবং তার কাজের গতি সচল রাখার জন্য একটি মোটরসাইকেলসহ জ্বালানি খরচও সরকাভাবে দেয়া হচ্ছে। কিন্তু সোহেল রানা নিয়মিতভাবে কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তদারকি না করে নিজের খেয়াল-খুশি মতো কাজ করে যাচ্ছেন।

অভিযোগ রয়েছে, বছরে দু’একবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে গিয়ে বিভিন্ন খাতাপত্রে স্বাক্ষর করে তার সক্রিয়তা ঠিক রাখছেন। নানাবিধ অসুবিধার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা তার কাজের প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছেন না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ জানিয়েছেন, একজন একাডেমিক সুপারভাইজারের কাজ হচ্ছে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরকার কর্তৃক নির্দেশিত ‘পারফর্মেন্সে বেইজড ম্যানেজমেন্ট’ শক্তিশালী করা। অথচ কোন নিয়মই অনুসরণ করছেন না বাউফলে কর্মরত একাডেমিক সুপারভাইজার সোহের রানা। কয়েকজন প্রধান শিক্ষক জানান, একাডেমিক সুপারভাইজার কেএম সোহেল রানা একমাস তো দূরের কথা দশ মাসেও তাদের বিদ্যালয়ে আসেননি।

অভিযোগ অস্বীকার করে একাডেমিক সুপারভাইজার কেএম সোহেল রানা বলেন, এ অভিযোগ ভিত্তিহীন। ৬-৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে তিনি জানান, জানুয়ারি মাসেই ওই প্রতিষ্ঠানগুলো পরিদর্শন করেছি। কিন্তু তার উল্লেখিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করা হলে তারা পরিদর্শনের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ সহিদুল ইসলাম বলেন, আপনারা তো সবই দেখেন। পরিদর্শনের বিষয়টি তাকে বহুবার বলা হয়েছে। তবে কাছাকাছি প্রতিষ্ঠানগুলোতে তিনি পরিদর্শনে যান।

একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু - dainik shiksha বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো - dainik shiksha ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস - dainik shiksha জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ - dainik shiksha সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট - dainik shiksha রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া  - dainik shiksha please click here to view dainikshiksha website