একীভূত হলো রাবির দুই বিভাগ - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

একীভূত হলো রাবির দুই বিভাগ

রাবি প্রতিনিধি |

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলিত পদার্থ ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (এপিইই) ও ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগকে একীভূত করা হয়েছে। ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে ইইই বিভাগে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। একীভূত করার দাবির পক্ষে-বিপক্ষে চলমান আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. লায়লা আরজুমান বানু।

তিনি জানান, বুধবার রাতের ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান। সেখানে চলতি শিক্ষাবর্ষ (২০১৮-১৯) থেকে দুইটি বিভাগ এক করে এপিইই ও ইইই বিভাগের অধীন ৮০ শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হবে। এর আগে এপিইই বিভাগে ৫০ শিক্ষার্থী ও ইইই বিভাগে ৩০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা হতো।

তিনি আরও জানান, বর্তমান শিক্ষার্থীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বিশ্ববিদ্যালয় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. চৌধুরী মো. জাকারিয়াকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. একরামুল হামিদ, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. খলিলুর রহমান, এপিইই বিভাগের সভাপতি ড. আরিফুল ইসলাম নাহিদ, ইইই বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু জাফর মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম।

একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক ড. ইফতেখারুল আলম মাসউদ বলেন, কমিটিকে ফ্যাকাল্টি কমিটির মাধ্যমে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। সামনের সিদ্ধান্ত আসতে কমপক্ষে তিন মাস সময় লাগতে পারে।

জানতে চাইলে এপিইই বিভাগের সভাপতি ড. আরিফুল ইসলাম নাহিদ বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবিটি সভায় গৃহীত হয়েছে। দুইটি বিভাগকে সংযত আচরণ প্রকাশ করতে বলা হয়েছে। এছাড়া যে তিনটা ব্যাচ বর্তমান আছে সেগুলো কীভাবে একীভূত করা যায় সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে একটি কমিটি করা হয়েছে। নতুন শিক্ষার্থীরা ইইই বিভাগের অধীনে ভর্তি হবে।

এদিকে ইইই বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু জাফর মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় - dainik shiksha পেন্সিলে লেখা যাবে না স্কুল ভর্তি পরীক্ষায় আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ - dainik shiksha আগামী বছর সব স্কুলে একযোগে প্রাক প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ ৬০ লাখ টাকার আর্থিক অনিয়ম করে ফাঁসছেন প্রধান শিক্ষক - dainik shiksha ৬০ লাখ টাকার আর্থিক অনিয়ম করে ফাঁসছেন প্রধান শিক্ষক তথ্য গোপন করে উচ্চতর স্কেলে বেতন, এমপিও বাতিল হচ্ছে শিক্ষকের - dainik shiksha তথ্য গোপন করে উচ্চতর স্কেলে বেতন, এমপিও বাতিল হচ্ছে শিক্ষকের এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন - dainik shiksha এক নজরে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর - dainik shiksha প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার ফল ২৪ ডিসেম্বর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website