এত বইয়ের মধ্যে কয়টি মানসম্পন্ন? - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

এত বইয়ের মধ্যে কয়টি মানসম্পন্ন?

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

প্রতিবছর বইমেলা যেমন নিত্যনতুন ইতিবাচক বিষয়ের সংযোগ ঘটায়, তেমনি নতুন সমস্যাও সামনে চলে আসে। বহমান থাকে পুরনো কিছু সমস্যাও। এই সব কিছুর পরও অমর একুশে গ্রন্থমেলা আমাদের সাংস্কৃতিক জাগরণের উৎসভূমি। ধুলাবালি, গাদাগাদি পরিবেশ মাড়িয়ে এ বছর বইমেলা অনেকটা ছিমছাম। তবে খাবারের দোকানগুলো প্রবেশ গেট সংলগ্ন স্থানে না বসিয়ে পেছন দিকটায় বসালে ভালো হতো। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) কালের কণ্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ তথ্য জানা যায়। 

নিবন্ধে আরও জানা যায়,  কয়েক বছর ধরে প্রতি মেলায় গড়ে প্রায় পাঁচ হাজার করে নতুন বই প্রকাশিত হচ্ছে। এ অবস্থায় একটি প্রশ্ন সামনে চলে আসে, এত বইয়ের মধ্যে কয়টি মানসম্পন্ন? মোটা দাগে বইয়ের মান বলতে উন্নত পাণ্ডুলিপি, সুসম্পাদিত ও নান্দনিক মুদ্রণকে বুঝি। আমরা অনেক সময় সম্পাদনাকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকি। কিন্তু পাণ্ডুলিপিটিও বইয়ের মানের একটি বড় নিয়ামক। কারণ পাণ্ডুলিপির তুল্য-মূল্য গুণ, ভাষা, ব্যাকরণ প্রত্যাশিত মানের না হলে শুধু সম্পাদনার মাধ্যমে বইটিকে কাঙ্ক্ষিত মানে পৌঁছানো অসম্ভব। পাণ্ডুলিপি একটি বইয়ের প্রাথমিক ভিত। সেখানে লেখক যত্নবান না হলে গোড়াতেই গলদ থেকে যায়।

আর সম্পাদনা পর্যায়ে বড় সমস্যা হলো পেশাদারির অভাব। এ বিষয়টিকে আরো সঙ্গিন করেছে সম্পাদনায় স্বল্প অর্থ ও সময় ব্যয়। বইমেলার সময় অতিরিক্ত পাণ্ডুলিপির চাপে প্রকাশকরা নিয়মতান্ত্রিকভাবে সম্পাদনায় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন না।

আমাদের একটি মন্দ প্রবণতা হচ্ছে, বইমেলার কাছাকাছি সময়ে আমরা মুদ্রণকাজে তৎপর হই। পুরো বছর প্রকাশনার কাজ করা গেলে চাপটা অনেক কম হয়। আমাদের প্রকাশকদের নিজস্ব হাউসে সম্পাদনার লোক কম। আর দেশের প্রকাশনাজগতে এখনো সম্পাদনার জন্য পেশাজীবী হাউসও গড়ে ওঠেনি। এটি একটি বড় সমস্যা।

সুসম্পাদিত বইয়ের জন্য প্রকাশকদের আর্থিক বনিয়াদ মজবুত হওয়া জরুরি। আর্থিক বনিয়াদ মজবুত না হলে প্রকাশক সম্পাদনার দিকে মনযোগী হবেন না। এ ক্ষেত্রে বইয়ের বাজার একটি বড় অনুঘটক। বাজার বিস্তৃত হলে বইয়ের মান প্রয়োজনের তাগিদেই উন্নত হবে। নানা বিপত্তির মধ্যেও ভালো খবর হচ্ছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মুদ্রণ ও প্রকাশনা বিভাগ চালুর মাধ্যমে দেশের প্রকাশনাজগতে পেশাজীবী শ্রেণি তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রকাশনা ও সম্পাদনার ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে একটি সুখবর পাওয়ার অপেক্ষায় রইলাম আমরা।

 

লেখক : খান মাহবুব, প্রকাশক, পলল প্রকাশনী

সাবেক ভিপি নূরের বিরুদ্ধে অপহরণ-ধর্ষণ ও ডিজিটাল আইনে আরেক মামলা - dainik shiksha সাবেক ভিপি নূরের বিরুদ্ধে অপহরণ-ধর্ষণ ও ডিজিটাল আইনে আরেক মামলা ১২ শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও বাতিল - dainik shiksha ১২ শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও বাতিল শিক্ষক নিবন্ধন সনদ যাচাইয়ের সেই বিজ্ঞপ্তি স্পষ্ট করল এনটিআরসিএ - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন সনদ যাচাইয়ের সেই বিজ্ঞপ্তি স্পষ্ট করল এনটিআরসিএ মুজিব জন্মশতবর্ষের কেক নিয়ে উধাও হওয়া সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত - dainik shiksha মুজিব জন্মশতবর্ষের কেক নিয়ে উধাও হওয়া সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত জাল নিবন্ধন সনদে শিক্ষকতা, সরকারিকরণের পর ধরা - dainik shiksha জাল নিবন্ধন সনদে শিক্ষকতা, সরকারিকরণের পর ধরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের : মন্ত্রিপরিষদ সচিব - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের : মন্ত্রিপরিষদ সচিব প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন উচ্চধাপে নির্ধারণ শিগগিরই : গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন উচ্চধাপে নির্ধারণ শিগগিরই : গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় স্কুল-কলেজের অনলাইন ক্লাস নিয়ে অধিদপ্তরের যেসব নির্দেশনা - dainik shiksha স্কুল-কলেজের অনলাইন ক্লাস নিয়ে অধিদপ্তরের যেসব নির্দেশনা এমপিওভুক্ত হচ্ছেন আরও ২৪১ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন আরও ২৪১ শিক্ষক please click here to view dainikshiksha website