এমপিওভুক্তির জন্য অর্থমন্ত্রীর কাছে যাবে সংসদীয় কমিটি - এমপিও - Dainikshiksha

এমপিওভুক্তির জন্য অর্থমন্ত্রীর কাছে যাবে সংসদীয় কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ সংস্থান করতে অর্থমন্ত্রীর সহায়তা চাইবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। এ জন্য কমিটির সদস্যরা শিগগিরই অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন।

রোববার (৬ আগস্ট) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি আফছারুল আমিন দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় পদায়ন করার পর তিন বছরের বেশি সময় সেখানে না রাখার সুপারিশ করেছে কমিটি। এ ছাড়া চাকরিজীবনে অনধিক তিনবার তবে সর্বমোট ছয় বছরের বেশি দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় কর্মরত না থাকার বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে মূল আলোচনার বিষয় ছিল বিকেন্দ্রীকরণের পর এমপিওভুক্তিতে দুর্নীতি ও নতুন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির অর্থায়ন। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এমপিওভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ নেই। পরে কমিটি অর্থ সংস্থানে অর্থমন্ত্রীকে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করার সিদ্ধান্ত নেয়।

জানতে চাইলে কমিটির সভাপতি আফছারুল আমিন বলেন, এমপিওভুক্তি নিয়ে কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তাঁরা অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন।

সর্বশেষ ২০১০ সালে ১ হাজার ৬১২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়।

সভাপতি বলেন, দৈনিকশিক্ষায় প্রকাশিত এমপিওভুক্তিতে দুর্নীতির প্রতিবেদন বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হলে শিক্ষাসচিব মো: সোহরাব হোসাইন কমিটিকে জানান, প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আরও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কমিটির সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, তাঁরা বলেছেন, বাজেটে শিক্ষায় বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। তারপরও সংকট আছে। তাই এমপিওভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ দেওয়ার জন্য স্থায়ী কমিটির সদস্যরা শিগগিরই অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে দেখা করবেন।

বৈঠক সূত্র জানায়, সংসদীয় কমিটির সদস্যরা প্রায় এক বছর আগে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য ছয়টি মাদ্রাসাসহ ২৬টি প্রতিষ্ঠানের তালিকা দিয়েছিলেন। এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। বিষয়টি নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, তাঁরা মন্ত্রণালয়ের কাছে এ বিষয়ে অগ্রগতি জানতে চেয়েছেন।

বৈঠকে সরকারি কলেজ শিক্ষকদের প্রসঙ্গে বলা হয়, সরকার জরুরি প্রয়োজনে যেকোনো শিক্ষককে অন্য কোনো দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় পদায়ন করতে পারবেন। তবে শিক্ষকরা তিন বছরের বেশি সময় সেখানে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। তিন বছরের মধ্যেই তাদেরকে নিজ প্রতিষ্ঠানে ফিরতে হবে।

বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষার মান উন্নয়ন এবং কারিগরি ও প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে যৌথ অর্থায়নে উচ্চশিক্ষা মানোন্নয়ন প্রকল্প (হেকেপ) বাস্তবায়নের হালনাগাদ অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়।

কমিটির সভাপতি মো. আফছারুল আমীনের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সাংসদ মো. আবদুল কুদ্দুস, মো. ছলিম উদ্দীন তরফদার, গোলাম মোস্তফা, এস এম আবুল কালাম আজাদ, মোহা. মামুনুর রশিদ ও সেলিনা আক্তার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক - dainik shiksha শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় - dainik shiksha প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website