এমপিওভুক্তি : সংসদীয় কমিটিকে অসত্য তথ্য দিয়েছে শিক্ষা অধিদপ্তর - এমপিও - Dainikshiksha

এমপিওভুক্তি : সংসদীয় কমিটিকে অসত্য তথ্য দিয়েছে শিক্ষা অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এমপিওভুক্তির চলমান প্রক্রিয়া সম্পর্কে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিকে ভুল তথ্য ও ব্যাখ্যা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচচশিক্ষা অধিদপ্তর। কমিটির ২৩তম বৈঠক হবে আগামাীকাল ৬ আগস্ট। আলোচ্যসূচিতে রয়েছে, শিক্ষক-কর্মচারী এমপিও কার্যক্রম বিকেন্দ্রীকরণ। এ বিষয়ে অধিদপ্তর তাদের অবস্থান, আলোচনা ও সুপারিশ জমা দিয়েছে। একজন পরিচালক নিজের মতো করে লিখে তিন পৃষ্ঠার ব্যাখ্যা জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ঘুষ-দুর্নীতি ও হয়রানি বন্ধের লক্ষ্যে এমপিওভুক্তি অনলাইনে এবং বিকেন্দ্রীকরণ করেছে সরকার। কিন্তু মাঠের বাস্তবতা, জেলা ও উপজেলা কর্মকর্তাদের মানসিক  ও আর্থিক দুর্নীতির অভ্যাস বিবেচনায় না রাখা এবং যথাযথ পাইলটিং না করেই একরোখা সিদ্ধান্তে চালু করা হয় বিকেন্দ্রীকরণ। ফল হয়েছে উল্টো। আগেকার একস্তরের বদলে এখন চারস্তরে ঘুষ দিতে হয়। এমতাবস্থায় সারাদেশে দাবি উঠেছে কিছু একটা করার, দুর্নীতির লাগাম টানার। এমতাবস্থায়,  শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি বিষয়টি আমলে নিয়েছে। এতে চিন্তিত হয়ে পডেছে এমপিও জালিয়াতচক্র ।

সংসদীয় কমিটিকে লিখিতভাব জানানো হয়েছে, শিক্ষা অধিদপ্তরের এমপিও কমিটির সভায় ইএমআইএস সেল থেকে পাওয়া তথ্যাদির পারস্পরিক যাচাই বাছাই করে চুড়ান্ত অনুমোদন করা হয়।

কিন্তু দৈনিকশিক্ষার অনুসন্ধানে জানা যায়, যেমনটা সংসদীয় কমিটিকে ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে বাস্তবতা তা নয়। এমপিওর সভায় শুধু একটি সারাংশ উপস্থাপন করা হয়। কোন এমপিও কীভাবে হচ্ছে তা কেস টু কেস আলোচনা হয় না। যেমনটা ২০১৩ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত হতো। এন্ট্রি লেভেলে নিয়োগ বন্ধ থাকলেও হাজার হাজার সহকারি শিক্ষক ও প্রভাষক কীভাবে এমপিওভুক্ত হয়? দারুল ইহসান বন্ধ হলেও আদালতের রায়ের কপি না তুলে তিন হাজার সহকারি গ্রন্থাগারিক কীভাবে এমপিওভুক্ত হয়? কেন এমপিও কমিটির সব সদস্যকে বিস্তারিত তথ্য সরবরাহ করা হয় না?  মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা খুব একটা কিছু বলেন না। কারণ, তাদেরও ঘুপচি তদবির থাকে। বিজোড় মাসের এমপিওর সভায় যারাই দুর্নীতির প্রশ্ন তোলেন, সবার প্রশ্ন পায়ে মাড়িয়ে মনগড়া ব্যাখ্যা দাঁড় করান পরিচালক অধ্যাপক মো: এলিয়াছ ও উপপরিচালক মো: মোস্তফা কামাল। সভায় অব্যাহতভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করে চলছেন মহাপরিচালক অধ্যাপক এস এম ওয়াহিদুজজামান।

সাংবাদিকদের যে কোনো প্রশ্নের গৎবাঁধা জবাব দেন এলিয়াছ। তিনি বলেন, অনলাইনে এমপিওতে দুর্নীতির কোনো সুযোগ নেই। জেলা উপজেলার সবাই সৎ।

সংসদীয় কমিটিকে দেয়া ব্যাখ্যাও তৈরি করেছেন এলিয়াছ গং। সাত দফা সুপারিশও করেছেন তারা!

দেখুন সেই লেখার অংশবিশেষ :

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) - dainik shiksha এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব - dainik shiksha ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা - dainik shiksha নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website