please click here to view dainikshiksha website

এমপিও দুর্নীতি: দৈনিকশিক্ষার প্রতিবেদন নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে আলোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক | আগস্ট ৭, ২০১৭ - ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ
dainikshiksha print

এমপিওভুক্তিতে চলমান দুর্নীতি, অনিয়ম ও জালিয়াতি নিয়ে দৈনিকশিক্ষাডটকম পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের আলোকে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মো: আফছারুল আমীন। সভাপতির প্রশ্নের জবাব দেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো: সোহরাব হোসাইন।

সচিব কমিটিকে জানান, দৈনিকশিক্ষায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের আলোকে ইতোমধ্যে কয়েকটি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দৈনিকশিক্ষায় প্রকাশিত আরো কয়েকটি প্রতিবেদনের বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মতামত চাওয়া হয়েছে। এছাড়াও সুনির্দিষ্ট আরও কোন বিষয় থাকলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা যায়, দৈনিকশিক্ষায় প্রকাশিত এমপিওভুক্তিতে দুর্নীতি ও জালিয়াতিসহ সংসদীয় কমিটিকে শিক্ষা অধিদপ্তরের দেয়া ভুল ব্যাখ্যার বিষয়ে কয়েকটি প্রতিবেদন কমিটির সভাপতিসহ অন্যান্য সদস্যরা গুরুত্বসহকারে আলোচনা করেন।

বৈঠক শেষে সভাপতি আফছারুল আমীন দৈনিকশিক্ষাডট্কমকে বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় পদায়ন নীতিমালা-২০১৭ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। নীতিমালা অনুসারে পদায়ন পেতে আগ্রহী বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের আবেদন দাখিলের সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি ও সময় নিধারণ, মন্ত্রণালয় কর্তৃক সাক্ষাতকার গ্রহনের মাধ্যমে ফিটলিস্ট তৈরী, চাকুরী জীবনে অনধিক তিনবার তবে সর্বমোট ছয় বছরের বেশী দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় কর্মরত না থাকা ইত্যাদি বিষয়ে আলোকপাত করা হয়।
সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিতে বৈঠকে সুপারিশ করা হয যে, সরকার জরুরী প্রয়োজনে যে কোনো শিক্ষককে যে কোনো সময় যে কোনো দপ্তর, অধিদপ্তর ও সংস্থায় পদায়ন করলেও তা যেন তিন বছরের অধিককাল না হয়।

কমিটির সদস্য শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, মোঃ আব্দুল কুদ্দুস, মোঃ ছলিম উদ্দীন তরফদার, গোলাম মোস্তফা, এস. এম. আবুল কালাম আজাদ, মোহাঃ মামুনুর রশিদ এবং সেলিনা আক্তার বানু বৈঠকে অংশগ্রহন করেন।

সভায় চট্টগ্রামের একটি স্কুলের এমপিও জটিলতা নিয়ে জানতে চাইলে কোনো তথ্য দিতে পারেননি মহাপরিচালক ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান। জরুরি ভিত্তিতে অধিদপ্তরের এমপিও কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন সোমবার সকালে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ২১টি

  1. md.mydul islam.head teacher hatia bhabesh adarsha high school.ulipur kurigram says:

    আপনার মন্তব্য we want new education institute mpo.

  2. Horipada Roy,,,,B,Sc (Hon's)..M,Sc(Physics).. Assistant Teacher(Science),Vocational School ,Nilphamari says:

    we want new vocational education institute mpo.

  3. Masum says:

    Government should sack Dr. S.m wahiudduzzan k.

  4. ওয়াজেদ আলী says:

    ননএমপিও শিক্ষকদের জীবনের শেষ পর্যায়ে এসেও কি তারা একটু সুখের মুখ দেখতে পারবে না? আরও কত দিন এত হতভাগা শিক্ষকরা বিনা বেতনে শিক্ষা দিয়ে যেতে হবে? এই হতভাগা শিক্ষকদের দেখার কি সরকারের কেউ নাই? সরকারের কারো মনে কি এতটুকুও দয়া নাই?

  5. মোঃ হবিবর রহমান, প্রভাষক, পরিসংখ্যান, বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ, দিনাজপুর। says:

    এমপিও দূর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য দৈনিক শিক্ষাকে ধন্যবাদ। নিয়োগ এনটিআরসিএ র অধিনে যাওয়ায় নিয়োগ বানিজ্য নিয়ে প্রতিবেদন হয়তো আর হবে না। কিন্তু স্কেল পরিবর্তনের ক্ষেত্রে রেজুলেশন করতে প্রধানদের বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকা নেয়ার অভিযোগ শোনা যাচ্ছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য দৈনিক শিক্ষার প্রতি অনুরোধ রইল।

  6. মো: আবুল কাশেম সহকারী শিক্ষক লাকেশ্বর দাখিল মাদ্রাসা ছাতক সুনামগঞ্জ says:

    এম পি ও দুর্নীতি অবসর ও কল্যাণ বোর্ডের টাকা লুটপাটের খবর প্রকাশিত হয় শাস্তি তো কারো হতে শুনিনাই। বেসরকারি শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করনের কোন খবর আছে কি?

  7. রুবেল গাজী says:

    সব থেকে বড় দূনীতিবাজ হল এনটিআরসিএ যারা ভুয়া পোষ্ট অনলাইনে দেখিয়ে আবেদনের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করে যারা মহিলা পোষ্ট গোপন রেখে পুরুষ প্রার্থীর কাছ থেকে আবেদন নেয়।যারা বৈধ সনদধারি এবং যাদের সনদের মেয়াদ আছে বিনা কারনে তাদের বাদ দেওয়ার পায়তারা করে।আর বলব?না থাক!

  8. md minhaz uddin says:

    ঠেলার নাম বাবাজি

  9. S.M.Akash says:

    দৈনিক শিক্ষা,
    শিক্ষার অন্যতম সংবাদ মাধ্যম। শিক্ষার বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরা ও সকল অনিয়ম প্রকাশ করাই দৈনিক শিক্ষার লক্ষ্য। আমরা বেসরকারি নন এমপিও শিক্ষকগণও তেমনি প্রতিদিন আশায় থাকি সৃষ্ট পদের এমপিও নিয়ে কোনো সংবাদ প্রকাশ হবে। মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী মহোদয় বারবার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ও জাতীয় সংসদে বলে আসেন এমপিও চলমান,,,,। এমপিও যদি চলমান হয় তাহলে ১৩.১১.২০১১ ইং তারিখের পর অনুমোদিত বিষয় ও পরিমার্জিত দুইটা বিষয় আইসিটি এবং উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণনে নিয়োগকৃত শিক্ষক আজও কোন এমপিও থেকে বঞ্চিত? এটা কি অনিয়ম নয়? গত ৮/৫/১৭ তারিখের এক সমন্বয় সভায় মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী মহোদয়, আইসিটি ও উৎপাদন ব্যবস্থাপনার দ্রুত এমপিও দেওয়ার সিদ্ধান্ত দিয়েছে। যেখানে শত শত শিক্ষক সরকারের এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের দিকে তাকিয়ে আছে। কবে আর কত দিনে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে এবং এমপিও বঞ্চিত শিক্ষকগণ এমপিও ভুক্ত হয়ে নতুন করে ভোরের আলো দেখতে পাবে?
    পরিশেষে, উপরোক্ত বিষয়টি দৈনিক শিক্ষা অতি গুরুত্বের সাথে দেখবে এবং এমপিও পেতে সহায়তা করবে।

  10. রা‌সেল রানা says:

    ডিগ্রি কলেজের বিষয়ভিত্তিক তৃতীয় শিক্ষকদের জনবল কাঠামোতে
    অন্তর্ভূক্ত করুন। কেননা আমরা সমদায়িত্ব পালন করার পরেও কলেজ থেকে
    এক টাকাও বেতন পাই না। অথচ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রত্যেক বিষয়ে
    তিনজন শিক্ষক রাখার শর্ত জু‌ড়ে দেওয়া হয়েছে।

  11. জিয়া রহমান says:

    1000% সঠিক

  12. Bichakshan Mandal says:

    একই মন্ত্রণাল এ যে সকল কর্মকর্তা 6_7 বছর কর্মরত আছেন তাদের বিরূদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে স্যার।

  13. জিয়া রহমান says:

    মাননীয় প্রধান মন্রী অাপনার কাছে বিশেষ অনুরোধ এমপিও ভুক্ত ডিগ্রী কলেজের তৃতীয় শিক্ষকদের বেতন দিন।কারণ অামরা যে কোন জিনিস ক্রয় করতে গেলে ভ্যাট দিয়ে ক্রয় করতে হয়। অামাদের থেকে ঠিকই ভ্যাট নিচ্ছেন কিন্তু অামাদের করমের মূল্য দিচ্ছেন না।যদি বেতন দিতে না পারেন তাহলে অামাদের জন্য অাইন করে ভ্যাট মুক্ত করে দিন।কারণ অামাদেরতো অার কোন অায় রোজগার নেই।অাপনি শুধু নিতে জানেন কিন্তু দিতে জানেন না।সবাইকে সমান চোখে দেখেন বৈষম্য দূর করেন।

  14. ashiqur rahman says:

    সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ২০১৭ প্রকাশ করা হোক।তাহলে অনেক নন-এমপিও শিক্ষক এমপিও ভুক্ত হতে পারবে,তাদের পরিবার বাচঁবে।

  15. মোঃ হান্নান মিয়া পাটিকেলবারি দরগাহ শরীফ দাখিল মাদ্রাসা। নেছারাবাদ,পিরোজপুর। says:

    আপনার মন্তব্য এমপিও….এমপিও….নন-এমপিও শিক্ষা প্র তিষ্ঠানের এমপিও কই।

  16. রা‌সেল রানা says:

    নি‌য়োগ যে‌হেতু এন‌টিআর‌সিএর হা‌তে চ‌লে গে‌ছে, সে‌হেতু গভ‌র্ণিং ব‌ডির মাধ্য‌মে ৩১/১২/২০১৬ তা‌রিখ পযর্ন্ত নি‌য়োগপ্রাপ্ত এমপিওর অ‌পেক্ষায় থাকা সকল শিক্ষক‌কে এম‌পিওর আওতায় আন‌লে, এম‌পিও দুর্নী‌তি আপনাআপ‌নি বন্ধ হ‌য়ে যা‌বে।

  17. রনজীৎ মন্ডল says:

    পিরোজপুরের 2 বছর আগের আগের জেলা শিক্ষা অফিসার ছিলেন ঘুষের বাদশা ।

  18. মোঃ সাইফুল ইসলাম says:

    ননএমপিও শিক্ষকদের এমপিও দেওয়া সরকারের নৈতিক দায়িত্ব কারন ওদের ছাত্র ছাত্রীদেরকে একই বোর্ড থেকে সনদ দেওয়া হয় এবং সনদের মানও সমান।

  19. মোহাঃ সোফিকুল ইসলাম সহকারি শিক্ষক says:

    To, The Chief Authority,Give us “Time – Scals” with in a short time.It is Our Right not to beg. Yours Faithfuly, Md.Shofiqul Islam Assist, Teacher.NAROSIA LAL GAR DAKHIL MADRASHA. Chapai Nawabganj.

  20. আখতারু আলম সহকারী গ্রন্থাগারিক ককক্সবাজার ইসলামীয়া মহিলা কামিল মাদরাসা কক্সবাজার। says:

    ইসলামীয়া মহিলা কামিল মাদরাসার সনদ জালিয়াতি র তথ্য দিলাম কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। টাকার জোর এভাবে সরকারি টাকা আত্মসাত করে যাবে?

  21. Md.Shahjahan Shaju Lecturer (Sociology) R A Goni School and college UP: Sadullapur . Dis:Gaibandha says:

    আপনাদের কাছে সব সম্ভব এমনি একজন সাহসী সরকার। মানুষ দরদী সরকার আপনি।মাননীয় প্রধান মন্ত্রী , মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং মাননীয় অর্থ মন্ত্রীর নিকট আমার আকুল আবেদন আমাদের বেবস্তা করে দেবেন ,আমরা আপনার সন্থান। অনেক কষ্টে আসি পরিবার নিয়ে। শিক্ষা প্রতিষ্টান এম পি ও ।

আপনার মন্তব্য দিন