করোনা : ইতালিতে ট্রাকে লাশ সরাচ্ছে সেনাবাহিনী - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

করোনা : ইতালিতে ট্রাকে লাশ সরাচ্ছে সেনাবাহিনী

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

ইতালিতে করোনায় প্রতিদিন শত শত মানুষ মারা যাচ্ছে। লাশে উপচে পড়ছে মর্গগুলো। দাফনের জায়গা নেই কবরস্থানে। লাশের বহর সামলাতে নামানো হয়েছে সেনাবাহিনী। দাফনের জন্য কফিনগুলো এক অঞ্চল থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে আরেক অঞ্চলে। প্রতিদিন ট্রাক ট্রাক লাশ সরাতে হচ্ছে। কবর দেয়ার স্থান সংকুলান না হওয়ায় বুধবার রাতেই ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় শহর লম্বার্ডির বারগামোর বাইরে নিয়ে যাওয়া হয় শত শত কফিন। এতে ব্যবহার করা হয় সেনাবাহিনীর ১৫টি ট্রাক। পরদিন বৃহস্পতিবারই বিশ্বজুড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের পোস্ট করা ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, শহরের আলোকোজ্জ্বল রাস্তা ধরে সারি সারি চলে যাচ্ছে ১৫টি ট্রাক। এসব ট্রাকে করে শহরের একটি কবরস্থান থেকে দাফনের জন্য অন্য অঞ্চলে নেয়া হচ্ছে লাশ। এই ছবিকে ‘দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে করুণ ছবি’ বলে অভিহিত করেছে ইতালীয়রা। ইতালির মতোই ভয়াবহভাবে করোনা ছড়িয়ে পড়ছে জার্মানিতেও। সংক্রমণ মোকাবেলায় দেশটির দক্ষিণের প্রদেশ বাভারিয়ার মিত্তেরতেইচ শহরে বুধবার থেকে কারফিউ জারি করা হয়েছে। তবে স্থানীয়দের মুদি পণ্য কেনা, কর্মস্থল ও চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। ২ এপ্রিল পর্যন্ত এ কারফিউ বলবৎ থাকবে। খবর রয়টার্সের।

ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজার ৭১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছে প্রায় তিন হাজার। এর মধ্যে বুধবারই মারা গেছে ৪৭৫ জন। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে লম্বার্ডি অঞ্চলে। এখানে মারা গেছে ৩১৯ জন। মহামারী মোকাবেলায় প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে ইতালি অবরুদ্ধ পরিস্থিতিতে রয়েছে। মানুষ ঘরবন্দি থাকলেও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এর সঙ্গে যোগ হচ্ছে স্বাভাবিক ও নিয়মিত মৃত্যু। ফলে অতিরিক্ত লাশ দাফন করতে হিমশিম খাচ্ছে স্থানীয়রা। কবরস্থানে করোনা রোগীর লাশের জায়গা মিলছে না। ইতালির সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, মৃতদেহ পাশের প্রদেশে স্থানান্তরের জন্য ৫০ সেনাসদস্য ও ১৫টি ট্রাক পাঠানো হয়। এর আগে মৃতদেহ দাফন করার মতো স্থান সংকুলান করতে না পারায় বারগামোর কর্তৃপক্ষ সহযোগিতার আহ্বান জানায়।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৩২৭ জন এবং এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় তিন হাজার জন। বিজ্ঞানীরা হুশিয়ারি দিয়েছেন, দেশের আট কোটি জনগণের ৬ কোটিই আক্রান্ত হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে বুধবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে দেয়া এক টেলিভিশন ভাষণ দেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল। তিনি বলেন, এমন পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে জার্মানিতে বসবাসরত প্রতিটি মানুষের দায়িত্বজ্ঞানের প্রয়োজন। তিনি বলেন, প্রত্যেককে সংক্রমণ এড়াতে সক্রিয় ও গঠনমূলক ভূমিকা পালন করতে হবে।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে কর্তৃপক্ষ যে নিয়ম বেঁধে দিচ্ছে, তা মেনে চলার আবেদন জানান মার্কেল। একটি শহরে কারফিউ জারি করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে আরও কড়া নিয়মের পূর্বাভাস দেন তিনি। দেশের এমন কঠিন অবস্থায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলা চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন জার্মান চ্যান্সেলর। জনগণকে আশ্বস্ত করে মার্কেল বলেন, জার্মান সরকার ও মন্ত্রিসভা যতটা সম্ভব স্বচ্ছতা বজায় রেখে সবরকম প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে। বিশেষ করে স্বাস্থ্য পরিষেবা কাঠামো চালু রাখতে করোনাভাইরাসের প্রসারের গতি কমাতে সবরকম ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

মধ্যপ্রাচ্যে ইতিমধ্যে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। এর মধ্যে সব থেকে বড় আঘাত এসেছে ইরানে। দেশটিতে প্রতি ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন কমপক্ষে ৫০ জন। ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কিয়ানুশ জাহানপুর বৃহস্পতিবার এক টুইটে এ খবর জানান। এএফপি। তিনি বলেন, সম্প্রতি পাওয়া তথ্যানুযায়ী ইরানে প্রতি ঘণ্টায় ৫০ জন হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। এছাড়া এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতি ১০ মিনিটে একজন প্রাণ হারাচ্ছেন দেশটিতে। এমন অবস্থায় ইরানের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে দেশটির আঞ্চলিক প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলো। এর মধ্যে রয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী রাষ্ট্র সৌদি আরবও।

এছাড়া আরেক আরব রাষ্ট্র কুয়েত ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সাহায্য করছে ইরানকে। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভাদ জারিফকে টেলিফোনে সহমর্মিতা জানিয়েছেন কুয়েতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাবাহ খালেদ আল-সাবাহ। এছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাত ৩২ টন চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে ইরানে।

৮৫ হাজার বন্দিকে ক্ষমার ঘোষণা : ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি দেশটির বহু সংখ্যক কারাবন্দিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছেন। ইরানে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ার পর তিনি এসব বন্দিকে ক্ষমার ঘোষণা করলেন।

ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান ইব্রাহিম রাইসির অনুরোধের পর বুধবার বন্দিদের মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা। ইরানি নববর্ষ নওরোজ এবং কয়েকটি ইসলামী অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ভেতরে ইব্রাহিম রাইসি সর্বোচ্চ নেতার কাছে বন্দিদের মুক্তির জন্য অনুরোধ জানিয়ে চিঠি লিখেন। এরপর তাতে সম্মতি দেন সর্বোচ্চ নেতা।

সারা বিশ্বে যখন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চলছে তখন বন্দি ও আদালতের পরিস্থিতি বিবেচনা করে এই চিঠি লেখেন ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান। বন্দিদের মুক্তির ব্যাপারে তাদের সাজা খাটার মেয়াদ

এবং অপরাধের ধরন বিবেচনা করা হবে।

নামাজে ৫ জনের বেশি শরিক হওয়া যাবে না - dainik shiksha নামাজে ৫ জনের বেশি শরিক হওয়া যাবে না করোনা : ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যু, দু’রকম তথ্য দিলো সরকার - dainik shiksha করোনা : ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যু, দু’রকম তথ্য দিলো সরকার করোনা : সংক্রমণের তীব্রতা থাকবে জুলাই পর্যন্ত - dainik shiksha করোনা : সংক্রমণের তীব্রতা থাকবে জুলাই পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটির আওতায় - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটির আওতায় দূরত্ব বজায় না রেখে বেতনের জন্য লাইনে শিক্ষকরা - dainik shiksha দূরত্ব বজায় না রেখে বেতনের জন্য লাইনে শিক্ষকরা শিক্ষার্থীসহ ১০ হাজার বাংলাদেশিকে তাড়িয়ে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া - dainik shiksha শিক্ষার্থীসহ ১০ হাজার বাংলাদেশিকে তাড়িয়ে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া করোনা আক্রান্ত হয়ে দুদক পরিচালকের মৃত্যু - dainik shiksha করোনা আক্রান্ত হয়ে দুদক পরিচালকের মৃত্যু সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website