করোনা ভাইরাস : বিশ্বে সাড়ে ৬ কোটি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা ! - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

করোনা ভাইরাস : বিশ্বে সাড়ে ৬ কোটি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা !

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

করোনা ভাইরাসে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে সাড়ে ছয় কোটি মানুষের মৃত্যু হতে পারে। এ সতর্ক বার্তা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষজ্ঞরা। তিন মাস আগেই এ ব্যাপারে সতর্কতা জারি করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়েছে ডেইলি মেইল।

মার্কিন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছিলেন, নতুন এক ধরনের করোনা ভাইরাসে লাখ লাখ মানুষ মারা যেতে পারে। তারা তখন বলেছিলেন, ১৮ মাসে বিশ্বে এ ভাইরাসে প্রায় ৬৫ মিলিয়ন (সাড়ে ছয় কোটি) মানুষ মারা যবে। 

চীনের বাইরেও ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস | ছবি: সংগৃহীত

গত বছরের অক্টোবর মাসে এক গুরুত্বপূর্ণ গবেষণার অংশ হিসেবে এমনটাই ধারণা করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিখ্যাত গবেষণা কেন্দ্র জন হপকিন্স সেন্টার ফর হেলথ সিকিউরিটি। 

মার্কিন বিশেষজ্ঞদের সতর্কতার মাত্র তিন মাস পর গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশের তিন হাজার বয়সী শহর উহানে প্রথম করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরু হয়। 

আরও পড়ুন: করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচবেন যেভাবে

সেখানে বন্যপ্রাণী কেনাবেচার একটি অবৈধ বাজার থেকে রোগ ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

এরপরই নিউমোনিয়া সদৃশ এ প্রাণঘাতী ভাইরাস দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। ছড়িয়ে পড়ে চীনের বাইরেও। 

চীনা কর্তৃপক্ষের দাবি অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত অতি সংক্রামক ভাইরাসটি চীনের ৫৬ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার দুইশ’র বেশি।  

তবে ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞদের মতে, আক্রান্তের সংখ্যা হাজার হাজার।

জন হপকিন্স সেন্টারের সিনিয়র গবেষক ড. এরিক টোনার বিজনেস ইনসাইডারকে বলেছেন, ডিসেম্বরের শেষে ভাইরাসটি চীনে ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়ার পরও তিনি মোটেই অবাক হননি।

তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই মনে হয়েছে, নতুন একটা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। আর সেটা হবে একটা করোনাভাইরাস। 

তিনি আরো বলেন, ‘তবে এখনও জানি না কতটা সংক্রামক এ ভাইরাসটি। আমরা জানি, এটা একজন থেকে আরেকজনে ছড়ায়। তবে তার বিস্তার কতটুকু তা জানি না।’

এরিক টোনার বলেন, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, এটা সার্স ভাইরাসের চেয়ে কিছুটা নমনীয়। সেটাই ভরসার জায়গা। অন্যদিকে এটা সার্সের চেয়েও বেশি সংক্রামক হতে পারে।

ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত আরও ১৫ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে চীন। সেখানে এখন পর্যন্ত সব মিলিয়ে ৫৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে ৪০০ রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। যার ফলে ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩০০ জন।
করোনা ভাইরাস কি?

১৯৬০ সালে প্রথমবারের মতো করনা ভাইরাস আবিষ্কার করা হয়, তবে কিভাবে এই ভাইরাসের উৎপত্তি তা জানা সম্ভব হয়নি। Corona শব্দের অর্থ জ্যোতির্বলয়। সূর্য থেকে ছিটকে পড়া আলোকরশ্মির মতো হওয়ায় ভাইরাসটির নামকরণ করা হয় করোনা ভাইরাস। মানুষ ও পশু-পাখি কখনো কখনো (সব সময় না) এই ভাইরাসটির দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকে।

করোনা ভাইরাস

অন্যান্য ভাইরাসের মতোই ছড়িয়ে থাকে করোনা ভাইরাস। যেমন, হাঁচি-কাঁশি ও কফের মাধ্যমে এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তিতে ছড়িয়ে পড়ে। মূলত হাঁচি-কাঁশি দেওয়ার পর জীবাণুযুক্ত হাত দিয়ে কাউকে স্পর্শ করলে, দরজার হাতল বা একাধিক মানুষ ব্যবহার করে এ জাতীয় বস্তু থেকে আরেকজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু ছড়ায়। তাই ভাইরাস প্রতিরোধে এ বিষয়গুলোতে খেয়াল রাখা জরুরি।

ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গাইজেশন (ডব্লিইএইচও) জানিয়েছে, করোনা ভাইরাস প্রধাণত পশু-পাখি ও মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হয়। আরও বলা হয়েছে, সার্স-করোনা ভাইরাস সিভেট বিড়াল থেকে মানুষে এবং মার্স-করোনা ভাইরাস এক ধরনের উট থেকে মানুষে সংক্রমিত হয়। তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের করনা ভাইরাসযুক্ত প্রাণী মানুষের চারপাশে থাকলেও তা মানুষকে খুব একটা আক্রান্ত করে না।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে যে লক্ষণগুলো প্রকাশ পায়

করোনা ভাইরাসের লক্ষণগুলো অন্যান্য শ্বাস-প্রস্বাস সংক্রান্ত রোগের লক্ষণের মতোই। যেমন, আক্রান্ত ব্যক্তির নাক দিয়ে সর্দি ঝরে, হাঁচি, কাঁশি, গলাব্যথা ও জ্বর হয়। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে রোগীরা বুঝতে পারে না সে করোনা ভাইরাসে আক্রন্ত, নাকি সাধারণ সর্দি-কাশিতে।

এ ক্ষেত্রে আক্রান্ত এলাকায় সাধারণ সর্দি-কাঁশি হলেও নাক, গলা ও রক্ষের পরীক্ষা করিয়ে নিশ্চিত হতে হবে সেটা করোনা ভাইরাস কি না। এ ক্ষেত্রে পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী চিকিৎসা নিতে হবে।

করোনা ভাইরাস মূলত শ্বাসযন্ত্রের নিচের অংশ শ্বাসনালি ও ফুসফুসকে আক্রান্ত করে। এর ফলে, বিশেষ করে বয়স্ক মানুষ নিউমোনিয়া ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। এছাড়া রোগপ্রাতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়।

দ্রুত করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে চীন। এগুলোর মধ্যে রয়েছে 

কোনো লক্ষণ ছাড়ায় মানুষ ছাড়াতে পারে করোনা ভাইরাস: মেডিকেল জার্নাল ল্যানসেটের শুক্রবারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তি কোনো লক্ষণ প্রকাশের আগেই অন্যদের মাঝে করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে।

গবেষণায় দেখা গেছে এক পরিবারে সাত সদস্যের মধ্যে পাঁচজন উহানে ভ্রমণ করেছেন। যেখান থেকে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাদের থেকে ওই পরিবারের বাকি দুই সদস্যও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন।

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা: হুবেই প্রদেশের প্রায় সাড়ে ৫ কোর্টি মানুষের মধ্যে যাতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য সেখানকার ১৬টি শহরের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

এছাড়া শনিবার (২৫ জানুয়ারি) চীনের নতুন চন্দ্রবর্ষ শুরু হচ্ছে। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে বাতিল করা হয়েছে উদযাপনের অনেক অনুষ্ঠান।

উহানের হাসপাতালগুলোতে রোগির সংখ্যা বাড়তে থাকায় খাদ্য ও ওষুধ সরবরাহে সমস্যা দেখা দিয়েছে

প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি - dainik shiksha প্যানেলে শিক্ষক নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের - dainik shiksha ‘টেনশনে’ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে আহমদ শফীর মৃত্যু, দাবি ছেলের শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? - dainik shiksha শিক্ষা জাতীয়করণে কার বেশি লাভ? ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন - dainik shiksha ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে ডিপ্লোমা-ভোকেশনাল ক্লাসের রুটিন চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না - dainik shiksha চাকরি সরকারি অবসর বেসরকারি: সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষকদের বোবাকান্না হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক - dainik shiksha হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনায় সিনিয়র ৩ শিক্ষক শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প - dainik shiksha শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প please click here to view dainikshiksha website