কলেজছাত্রকে নির্যাতনের অভিযোগ, পুলিশের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

কলেজছাত্রকে নির্যাতনের অভিযোগ, পুলিশের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু

রাজশাহী প্রতিনিধি |
রাজশাহীতে কলেজছাত্রকে নির্যাতন ও মাদক মামলার হুমকি দিয়ে মুক্তিপণ দাবি করার অভিযোগ এসেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় একজন পুলিশের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। শুক্রবার (১৩ সেপ্টম্বর) নগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস। 
 
তিনি আরো বলেন, অভিযোগটি নগর পুলিশের একজন কর্মকর্তাকে তদন্তের ভার দেওয়া হয়েছে। তিনি তদন্ত করছেন। প্রমাণিত হলে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
 
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সাগর শহীদ বুদ্ধিজীবী সরকারি কলেজের (বরেন্দ্র সরকারি মহাবিদ্যালয়) বাণিজ্য বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র। খেলাধুলা করে সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাড়ি ফিরছিল সে। এ সময় শিরোইল কলোনির ৩ নম্বর গলির খোদাবক্স মোড়ের কাছে অবস্থানরত একদল পুলিশ সাগরকে থামায়। সেখানে তার দেহ তল্লাশি করে কিছু না পেয়েও  আটকে রাখেন তারা। অকারণে আটকে রাখায় বিরক্ত হয়ে প্রতিবাদ করে কলেজছাত্র সাগর। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এসআই শাহীনুর ইসলাম তার জামার কলার ধরে গাড়ির নিচে ফেলে দেয়। এরপর সেখানে তাকে নির্যাতন করা হয়। এসআই শাহীনুরের সঙ্গে ছিলো সহকারী উপ-পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম, মামুনুর রশীদ, কনস্টেবল রেজাউল করিম ও রায়হান ফকির।
 
ভুক্তভোগী ছাত্রের মা রোকসানা পারভীন জানান, রাত ৯টার দিকে সাগরকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও দ্বিতীয় দফায় সাগরকে নির্যাতন করা হয়। পুলিশ সাগরকে বাবা-মাকে ফোন দিয়ে ২ লাখ টাকা নিয়ে চন্দ্রিমা থানায় আনতে বলে। টাকা না দিলে হেরোইন মামলায় হাজতে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকি দেন তারা। কিন্তু সাগরের গরীব মা-বাবার পক্ষে ২ লাখ টাকা দেয়া সম্ভব হয়নি। ফলে পুলিশ মাদক মামলায় সাগরকে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়।
 
সাগরের বাবা সাহেব আলী বলেন, ছেলেকে ছাড়ানোর জন্য গেলে পুলিশ তাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে সারারাত এখানে সেখানে ঘুরিয়ে নিয়ে বেড়ায়, আর টাকা দিতে বলে। এ সময় আমাকেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। আমার ছেলে কোনোভাবেই মাদক সেবন ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত নয়।
 
চন্দ্রিমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবির দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, এধরণের কোন বিষয় তার জানা নেই। তবে বেশকিছু দিন আগে সাগর নামের একজনকে চালান দেওয়া হয়েছে।
শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় - dainik shiksha শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ - dainik shiksha হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের - dainik shiksha ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website