কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ১০জনের যাবজ্জীবন - বিবিধ - Dainikshiksha

কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ১০জনের যাবজ্জীবন

খুলনা প্রতিনিধি |

খুলনায় কলেজ ছাত্র শেখ বদরুদ্দৌজা হত্যা মামলায় আদালত ১০ জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছে। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এমএ রব হাওলাদার এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায়ে আসামি সুলতান আহমেদ ও আব্বাসুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়।
 
যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- নবির হোসেন, তবিবুর রহমান, আকা মিয়া শেখ, খাঁজা মিয়া, বুলু মিয়া, অসিকার শেখ, চাঁন মিয়া শেখ, মনির শেখ, এহিয়া ও কামাল শেখ। আসামিদের সবার বাড়ি জেলার তেরখাদা উপজেলার কুমিরডাঙ্গা গ্রামের পূর্বপাড়ায়। 
 
আদালত সূত্র জানায়, ২০০৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর তেরখাদা উপজেলার কুমিরডাঙ্গা গ্রামের পূর্বপাড়ায় জোহরের নামাজের সময় ছোট ছেলে-মেয়েদের হট্টগোলে মসজিদের মুসল্লিদের নামাজে বিঘ্ন ঘটানোর প্রতিবাদ করায় আসামিরা শেখ বদরুদ্দৌজাকে পিটিয়ে হত্যা করে। 
 
বদরুদ্দৌজা তেরখাদা বঙ্গবন্ধু কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। এ ঘটনায় তেরখাদা থানায় নিহতের ভাই শেখ আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে ১২ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। তেরখাদা থানার উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান এ ঘটনায় আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন দেয়। মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের পর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করা হয়।


 
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শাকেরিন সুলতানা জানান, এই হত্যা মামলার পাল্টা হিসেবে বাদী শেখ আসাদুজ্জামানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আসামিরা পাল্টা আরেকটি মামলা করেন। 
 
বিশেষ দায়রা জজ আদালতে মামলা নম্বর- সিআর ১৩০/২০০৯। তদন্তে ওই অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় একই সঙ্গে বিচারক পাল্টা মামলার রায়ে অভিযুক্ত সবাইকে খালাস দিয়েছে।

কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা লুটকারী সদস্য-সচিবের বাসায় চেক! - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা লুটকারী সদস্য-সচিবের বাসায় চেক! সড়ক অবরোধ করে ঢাবির ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ - dainik shiksha সড়ক অবরোধ করে ঢাবির ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী - dainik shiksha আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি একাদশে ভর্তির আবেদন ১২ মে থেকে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির আবেদন ১২ মে থেকে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website