কুষ্টিয়ায় সরকারি শিক্ষক প্রশিক্ষণ মহাবিদ্যালয় প্রয়োজন - মতামত - Dainikshiksha

কুষ্টিয়ায় সরকারি শিক্ষক প্রশিক্ষণ মহাবিদ্যালয় প্রয়োজন

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

কুষ্টিয়া জেলার শিক্ষার হার ৪২.৪০%। এখানে রয়েছে শতাধিক নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়। কিন্তু এসব বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের জন্য কোনো সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ নেই। মঙ্গলবার (১১ জুন) ইত্তেফাক পত্রিকায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ তথ্য জানা যায়। নিবন্ধটি লিখেছেন মো. মোশতাক মেহেদী।

নিবন্ধে আরও জানা যায়, দুই-একটি বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ থাকলেও তা পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণসামগ্রী ও অবকাঠামোর অভাব দেখিয়ে এগুলোকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বর্তমানে বন্ধ ঘোষণা করেছেন। যার ফলে বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলার শিক্ষকদের কষ্ট করে ও বহু অর্থ ব্যয় করে যশোর, পাবনা অথবা রাজশাহী সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজে ভর্তি হয়ে বিএড ও এমএড প্রশিক্ষণ নিতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়, যে কোনো প্রশিক্ষণ নিতেও আমাদের কুষ্টিয়ার বাইরে যেতে হয়। এ কারণে সময়মতো অনেকে প্রশিক্ষণ নিতে ব্যর্থ হচ্ছেন। জেলার কুমারখালিতে অবস্থিত আলাউদ্দিন আহমেদ টিচার্স ট্রেনিং কলেজটি পুনরায় এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য চালু করা হলে কষ্ট কিছুটা লাঘব হতো। সুতরাং কুষ্টিয়া জেলার শিক্ষকদের কষ্টের দিকে তাকিয়ে এখানে অবিলম্বে একটি সরকারি সরকারি শিক্ষক প্রশিক্ষণ মহাবিদ্যালয় স্থাপনসহ কুমারখালির টিচার্স ট্রেনিং কলেজটি পুনরায় এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য চালু করার জন্য সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত আবেদন জানাচ্ছি।

একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু - dainik shiksha বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো - dainik shiksha ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ - dainik shiksha সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া  - dainik shiksha please click here to view dainikshiksha website