ক্লাসের চেয়ে প্রশ্ন ফাঁসে আগ্রহ ছিল শিক্ষার্থীদের: মাহবুবুর রহমান - এইচএসসি/আলিম - Dainikshiksha

ক্লাসের চেয়ে প্রশ্ন ফাঁসে আগ্রহ ছিল শিক্ষার্থীদের: মাহবুবুর রহমান

আকতারুজ্জামান ও জয়শ্রী ভাদুড়ী |

রাজধানীর সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. মাহবুবুর রহমান মোল্লা বলেছেন, গত এসএসসিতে ১৩টি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস হয়েছিল। আমরা যখন ছাত্রদের বলেছি, এইচএসসিতে প্রশ্ন ফাঁস হবে না, পরীক্ষার্থীরা এ কথা শুনে হাসত। কারণ তারা প্রশ্ন ফাঁসের মওকা নিয়ে পরীক্ষার হলে গিয়েছিল। ক্লাসের চেয়ে প্রশ্ন ফাঁসে আগ্রহ ছিল অনেক শিক্ষার্থীর। এইচএসসি পরীক্ষার সময় কোনো প্রশ্ন ফাঁস না হওয়ায় পাসের হার কমে গেছে। গতকাল এসব কথা বলেন তিনি। এইচএসসির ফল বিপর্যয়ের কারণ হিসেবে এ অধ্যক্ষ আরও বলেন, গত কয়েক বছরে প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ায় পরীক্ষার কোনো ভীতি ছিল না পরীক্ষার্থীদের।

কিন্তু হঠাৎ করেই প্রশ্ন ফাঁসের প্রেক্ষাপট পরিবর্তন হয়েছে। সরকারের কঠোর নীতির কারণে কোথাও প্রশ্ন ফাঁস হয়নি। এ ছাড়া এইচএসসির ইংরেজি পরীক্ষা কঠিন হওয়ায় বিজ্ঞান, মানবিক, ব্যবসায় নেতিবাচক ফল এসেছে। বিজ্ঞান বিভাগে পদার্থ দ্বিতীয়পত্রের প্রশ্ন একটু জটিল হওয়ায় ছাত্ররা একটু খারাপ করেছে। ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আইসিটি বিষয়ে ছাত্ররা ভালো করলেও গ্রামের ছাত্র-ছাত্রীরা আইসিটিতে ভালো করতে পারেনি। কারণ আইসিটির প্রয়োজনীয় শিক্ষক নেই গ্রামাঞ্চলে। অন্য বিভাগের শিক্ষকরা সেখানে আইসিটি পড়ান। মানবিকের ছাত্ররা গাণিতিক বিভিন্ন টার্মের কারণে বিজ্ঞান বিভাগ ছাড়লেও তাদের আইসিটি পড়তে হয়েছে। এই আইসিটি তাদের কাছে বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া পরীক্ষায় আইসিটির নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা একটু কঠিন হওয়ায় ফলাফলে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

 সব মিলিয়ে পরীক্ষার পরিবেশ পরিবর্তন, প্রশ্নপত্র কঠোর আর প্রশ্ন ফাঁস না হওয়ায় ফলাফল নিম্নমুখী হয়েছে।

ড. মাহবুবুর রহমান মোল্লা আরও বলেন, ফাঁস হওয়া প্রশ্ন দেখে কৃত্রিমভাবে পাস আর জিপিএ-৫ পাওয়ার চেয়ে এবারের পাসের হার ও এ প্লাস কম হলেও সন্তুষ্ট আমরা। আমরা চাই এ ধারাবাহিকতা বজায় থাকুক। পরীক্ষার এমন পরিবেশ থাকলে ছাত্র-ছাত্রীরা লেখাপড়ার মধ্যে থাকবে। লেখাপড়ার মান ফিরে আসবে।

 

সৌজন্যে: বাংলাদেশ প্রতিদিন

‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকদের অবসর-কল্যাণ সুবিধার তহবিল বন্ধ করে পেনশন চালু করতে হবে’ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা ১০ মে কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের প্রাথমিক তহবিলের এক কোটি টাকার হদিস নেই এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে - dainik shiksha এসএসসির ফল ৫ বা ৬ মে সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ - dainik shiksha সরকারিকৃত ২৯৯ কলেজে পদ সৃজনে সংশোধিত তথ্য ছক প্রকাশ কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের ৪০ কোটি টাকা এফডিআর করা হয়নি আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী - dainik shiksha আদর্শ না শেখালে সন্তানদের হাতে বাবা-মাও নিরাপদ নন: গণপূর্তমন্ত্রী চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website