গঠনমূলক সমালোচনার খবরে খুশি হই: শিক্ষামন্ত্রী - বিবিধ - Dainikshiksha

গঠনমূলক সমালোচনার খবরে খুশি হই: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

শিক্ষা বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ‘এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ-এর (ইরাব) নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (৯ আগস্ট) সকালে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।

দৈনিকশিক্ষা ডটকমের সিদ্দিকুর রহমান খানকে সভাপতি এবং দৈনিক সমকালের সাব্বির নেওয়াজকে সাধারণ সম্পাদক করে গত ১১ জুলাই ঢাকার বিভিন্ন গণমাধ্যমে র্কমরত শিক্ষা বিষয়ক সাংবাদিকদের নিয়ে ইরাব ১৭ সদস্যের প্রথম কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, প্রতিদিনই সংবাদপত্র আমাকে সাহায্য করে। সংবাদপত্রের কিছু খবর পেয়ে আমি ব্যবস্থা গ্রহণ করি। শিক্ষার লক্ষ্য অর্জনে শিক্ষা পরিবার ও শিক্ষা সাংবাদিকদের একযোগে কাজ করতে হবে। শিক্ষা সাংবাদিকরা শিক্ষা পরিবারের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাঁরা আমাদের ভুল-ত্রুটি খুঁজে বের করতে সাহায্য করেন। 

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, সমালোচনামূলক সংবাদ প্রকাশে আমরা অসন্তুষ্ট হই না, বরং সমালোচনামূলক লেখার মাধ্যমে আমরা আমাদের ভুলগুলো খুঁজে বের করতে পারি। মন্ত্রী আরও বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়ন এবং এসডিজি লক্ষ্য বাস্তবায়নে সরকার কাজ করছে। কারিগরি ও দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক এবং বাস্তবে কাজে লাগে এমন বিষয়গুলোর ওপর জোর দেয়া হচ্ছে। অর্থপূর্ণ একটি শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। সে অনুযায়ী বিষয় ও বিভাগ চালু করা হয়েছে। কয়েকটি বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়ও স্থাপন করা হয়েছে।
তিনি শিক্ষা বিষয়ক সাংবাদিকদের সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ‘এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ-এর (ইরাব) সভাপতি ও দৈনিকশিক্ষার সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান খান। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড আর শিক্ষকরা মেরুরজ্জু। তাই শিক্ষকদের সর্বোচ্চ বেতন দিতে হবে। কোচিং সেন্টারে প্রশ্ন ফাঁসসহ অনেক অপরাধ সংঘটিত হয়ে থাকে। তাই কোচিং সেন্টারে যারা পড়াবেন তাদের সনদ অর্জন করতে হবে। সমুদ্র জয় বিগত দশ বছরে বাংলাদেশের অন্যতম অর্জন। এসময় সমুদ্র বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়নে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।  

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, দেশ গঠনে সবার অংশগ্রহণ দরকার। ভাল সাংবাদিকতা সব সময়ই প্রশংসনীয়। তিনি সবাইকে দেশের কল্যাণে একযোগে কাজ করার আহবান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, দেশের প্রায় ৬ কোটি মানুষ শিক্ষা পরিবারের সাথে জড়িত। ৩৮ লাখ শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করছে। সত্য কথা কেউ শুনতে চায় না বলে মন্তব্য করে গণমাধ্যমকে সত্য তুলে ধরার আহবান জানান।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, সংবাদপত্র সমাজকে এগিয়ে চলার পথ দেখায়। কারও একক কর্ম থেকে এগিয়ে নিতে পারে না। দেশ গঠনে সকলের ভূমিকা  রয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর বলেন, কিছু পত্রিকা, যেগুলোর নামও অনেকে জানে না, যাচাই বাছাই না করে সংবাদ পরিবেশন করে। বস্তুনিষ্ঠতার সাথে সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলে সংবাদ পরিবেশনের আহবান জানান তিনি।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমান বলেন, সাংবাদিকদের চাপ প্রয়োগ করলে তারা স্বচ্ছ ও বস্তুনিষ্ঠভাবে কাজ করতে পারে না। সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে কাজ করার সুযোগ দিতে হবে। 

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ইরাব সাধারণ সম্পাদক সাব্বির নেওয়াজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন  সহসভাপতি মুসতাক আহমেদ ও  নিজামুল হক। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন ইরাব সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান খান। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমানকে ফুল দিয়ে বরণ করেন ইরাবের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির নেওয়াজ। ইরাব সদস্যরা এসময় বিশেষ অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ নবনির্বাচিত ইরাব কর্মকর্তাদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক আহাম্মদ সাজ্জাদ রশীদ, ব্যানবেইসের মহাপরিচালক মো: ফসিউল্লাহ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো: মোল্লা জালাল উদ্দিন, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু: জিয়াউল হক, শিক্ষামন্ত্রীর একান্ত সচিব মো: নাজমুল হক খান, মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো: এ কে এম ছায়েফউল্যাহ, বাংলাদেশ অধ্যক্ষ পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ মোহাম্মদ মাজহারুল হান্নান, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির সভাপতি অধ্যাপক আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার, ইউজিসির পরিচালক (জনসংযোগ ও তথ্য অধিকার) ড. একেএম শামসুল আরেফিন, উপসচিব (প্রশাসন) মো: শাহিন সিরাজ, পরিচালক (বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়), সহকারী পরিচালক ইমরান হোসেন ও ফরিদুজ্জামান, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য সচিব মো: শাহজাহান আলম সাজু, বাংলদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো: নজরুল ইসলাম রনি, বাংলাদেশ শিক্ষক ইউনিয়নের সভাপতি মো: বাশার হাওলাদার, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্য জোটের সভাপতি অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, প্রাথমিক শিক্ষক অধিকার সুরক্ষা ফোরামের আহ্বায়ক মো. সিদ্দিকুর রহমান, ননএমপিও শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার ও সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায় ও মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো: আবদুস সালাম হাওলাদার।  

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইরাব কোষাধ্যক্ষ শরীফুল আলম সুমন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক এম মামুন হোসেন  ও আবদুল হাই তুহিন সাংগঠনিক সম্পাদক অভিজিৎ ভট্টাচার্য, দপ্তর সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নূর মোহাম্মদ, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক আকতারুজ্জামান, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুরাদ হোসাইন, নির্বাহী সদস্য হিসেবে আমানুর রহমান, রিয়াজ চৌধুরী।

অনুষ্ঠান শেষে বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন কবিতা আবৃত্তি করেন।

আরও পড়ুন : এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃত্বে সিদ্দিক-সাব্বির

এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ - dainik shiksha এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ ডিগ্রি ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু আজ - dainik shiksha ডিগ্রি ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু আজ ১ জুলাই থেকে পাঁচ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট কার্যকরের আদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের - dainik shiksha ১ জুলাই থেকে পাঁচ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট কার্যকরের আদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের সরকারি হলো আরও ৪ মাধ্যমিক বিদ্যালয় - dainik shiksha সরকারি হলো আরও ৪ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা - dainik shiksha ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু - dainik shiksha আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি - dainik shiksha নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! - dainik shiksha শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website