গৃহকর্মী ধর্ষণে অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তাকে তলব - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

গৃহকর্মী ধর্ষণে অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তাকে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক |

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মাজেদুল ইসলাম। গত বছরের মে মাসে তার বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ ও পরে গর্ভাবস্থায় অন্যত্র বিয়ে দেয়ার অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর স্থানীয়রা শিক্ষা কর্মকর্তার ওপর বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এরপর মাজেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া শুরু হয়। বিভাগীয় মামলার ব্যক্তিগত শুনানির জন্য অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তাকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। শুনানিতে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তা। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মাজেদুল ইসলাম জামালপুর সদর উপজেলার শরিফপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের মোতালেব মাস্টারের ছেলে। তার স্ত্রীও একজন স্কুল শিক্ষিকা। ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের মে মাসে মাজেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করে তার বাসার গৃহকর্মী।

মামলায় ভুক্তভোগী নারী অভিযোগ করেন, গৃহকর্তা মাজেদুল স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে প্রতি শনিবার তাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে নিয়মিত ধর্ষণ করতেন। এ অবস্থায় গৃহকর্মীর শারীরিক গঠন পরিবর্তন দেখা দিলে ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের মার্চ মাসে পার্শ্ববর্তী পিঙ্গল হাটি গ্রামের এক যুবকের সঙ্গে তার বিয়ে দিয়ে দেন লম্পট শিক্ষা অফিসার। এদিকে বিয়ের দুই মাসের মাথায় ৭ মাসের মৃত বাচ্চা প্রসব করায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। লোক লজ্জার ভয়ে স্বামীর পরিবারের লোকজন মৃত সন্তানসহ ভিকটিমকে তার বাবার বাড়িতে রেখে আসেন। 

এ ঘটনা জানাজানির পর প্রতিবেশীদের কাছে গৃহকর্তার পাশবিক যৌন নির্যাতনের কাহিনী খুলে বললে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে শিক্ষা কর্মকর্তার বাড়ি ঘেরাও করে। এছাড়া সে সময় শিক্ষা কর্মকর্তা শাস্তি দাবি করে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছিল।

মন্ত্রণালয় সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানায়, গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষা কর্মকর্তা মাজেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া শুরু হয়। ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ৩০ ডিসেম্বর অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তী সময়ে শোকজ করা হলে গত ২৭ ডিসেম্বর অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মাজেদুল ইসলাম আত্মপক্ষ সমর্থনে ব্যক্তিগত শুনানি আবেদন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠান। সে প্রেক্ষিতে ব্যক্তিগত শুনানির জন্য অভিযুক্ত শিক্ষা কর্মকর্তাকে তলব করা হয়েছে।

সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে আরও জানায়, আগামী ২২ জুলাই প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল-হোসেন অভিযুক্ত কর্মকর্তার শুনানি গ্রহণ করবেন। এজন্য অভিযুক্ত কর্মকর্তাকে সেদিন মন্ত্রণালয়ে আসতে বলা হয়েছে।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষা ডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

এক কলেজেই জাল সনদধারী আট শিক্ষকের চাকরি! - dainik shiksha এক কলেজেই জাল সনদধারী আট শিক্ষকের চাকরি! শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর - dainik shiksha শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবিতে শিক্ষক সমাবেশ ৫ অক্টোবর নিবন্ধন সনদধারী শিক্ষকদের তথ্য সংগ্রহ করছে এনটিআরসিএ - dainik shiksha নিবন্ধন সনদধারী শিক্ষকদের তথ্য সংগ্রহ করছে এনটিআরসিএ করোনার টিকাকে বৈশ্বিক সম্পদ হিসেবে বিবেচনার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর - dainik shiksha করোনার টিকাকে বৈশ্বিক সম্পদ হিসেবে বিবেচনার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর একাদশে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু করোনা ঝুঁকি থাকাকালিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই - dainik shiksha করোনা ঝুঁকি থাকাকালিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ : আরেক আসামি অর্জুন গ্রেফতার - dainik shiksha এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ : আরেক আসামি অর্জুন গ্রেফতার এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন, ২ গার্ড সাসপেন্ড - dainik shiksha এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন, ২ গার্ড সাসপেন্ড বরখাস্ত অধ্যক্ষের অভিনব প্রতারণা - dainik shiksha বরখাস্ত অধ্যক্ষের অভিনব প্রতারণা please click here to view dainikshiksha website