চবির প্রশ্নপত্রে ১০ বানান ভুল - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

চবির প্রশ্নপত্রে ১০ বানান ভুল

নিজস্ব প্রতিবেদক |

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের ৪র্থ বর্ষ বিএসএস (সম্মান) পরীক্ষায় প্রশ্নপত্রে স্বয়ং চট্টগ্রাম বানানসহ গুরুত্বপূর্ণ ১০টি বানান ভুল করেছে বিভাগটি। সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিভাগটির ৪র্থ বর্ষের ৪০৫ নম্বর কোর্সের পরীক্ষায় এসব বানানের ভুল ধরা পড়ে।

শুধু বানান ভুল নয়, ডিজিটাল এ যুগে হাতের লেখার প্রশ্নপত্র তৈরি করে বিভাগটিতে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের কয়েকজন শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে প্রশ্নপত্রে যেসব বানান ভুল পাওয়া যায় তা হল-ওই প্রশ্নপত্রের শুরুতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বানানে চট্টগ্রামের বানান ভুল লেখা হয়েছে। যেখানে শুদ্ধ বানান হবে ট+ট= ট্ট, সেখানে লেখা হয়েছে ট+র ফলা= ট্র।

তিন নম্বর প্রশ্নে লেখা হয়েছে ‘ব্যক্তিত্ব ও হতাশার মধ্যেকার সম্পর্ক বিশ্লেষন কর’। এখানে ‘বিশ্লেষন’ ‘ন’ দিয়ে লেখা হয়েছে, হবে ‘ণ’। শুদ্ধ বানান হবে বিশ্লেষণ। চার নম্বর প্রশ্নে লেখা হয়েছে ‘নবাব স্যার সলিমুল্লাহর ব্যক্তিত্ব গঠনে তার সমসাময়িক আর্থ সামাজিক ও ধর্মীয় রাজনৈতিক পরিস্থিতি কি ভূমিকা পালন করেছিল?’ এখানে ব্যবহার করা হয়েছে ‘কি’, হবে ‘কী’।

কারণ যেসব প্রশ্নের উত্তর ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ দিয়ে অথবা মাথা নেড়ে দেওয়া যায় সেসব প্রশ্নে `কি’ ব্যবহার হয়। আর যেসব প্রশ্নের উত্তর শুধু ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ দিয়ে দেওয়া যায় না, অর্থাৎ মুখ দিয়ে শব্দ বের করতে হয় বা অনেকটা বিবরণ দিতে হয় সেসব প্রশ্নে ‘কী’ ব্যবহার হয়।

পাঁচ নম্বর প্রশ্নে ‘রাজা রামমোহন রায়ের ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্যসমূহ চিহিৃত কর। এই বৈশিষ্ট্যসমূহ কিভাবে সংষ্কারক হিসেবে তাঁর ভূমিকাকে প্রভাবিত করেছিল? আলোচনা কর।' এখানে ‘সংষ্কারক’-এ ‘ষ’ ব্যবহার করা হয়েছে। শুদ্ধ বানান হবে ‘স’ দিয়ে অর্থাৎ ‘সংস্কারক’ হবে।

ছয় নম্বর প্রশ্নে ‘উপমহাদেশের কমিউনিস্ঠ আন্দোলনে কমরেড মুজফ্ফর আহমদ এর ভূমিকা্ আলোচনা কর।’ এখানে ‘কমিউনিস্ঠ’-এ ‘ঠ’ ব্যবহার করা হয়েছে। শুধু বানান হবে ‘ট’ দিয়ে অর্থাৎ ‘কমিউনিস্ট’।

এছাড়া সাত নম্বর প্রশ্নে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ‘হোসেন’ বানানটি বাংলায় শুদ্ধ থাকলেও ইংরেজিতে লেখা হয়েছে ‘Hossain’। হবে ‘Huseyn’।

এমনকি আট নম্বর প্রশ্নে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বানানও ভুল লেখা হয়েছে। প্রশ্নে লেখা আছে ‘মুজিবর’ হবে ‘মুজিবুর’। যেটি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিজস্ব ওয়েব পেইজ ও উইকিপিডিয়ায় ‘মুজিবুর’ শব্দটি লেখা আছে। এছাড়া ইংরেজিতে ‘বঙ্গবন্ধু’ শব্দটির বানানও ভুল লেখা হয়েছে। প্রশ্নে লেখা আছে ‘Bangbandhu’, হবে ‘Bangabandhu (Bongobondhu ‘Friend of Bengal’)।

নয় নম্বর প্রশ্নে ‘কর্মকান্ড’ লেখা আছে, হবে ‘কর্মকাণ্ড’। প্রমিত বাংলা বানান অনুসারে ণ+ড হবে। এছাড়া টীকা প্রশ্নে বাংলায় মাওলানা ভাসানী বানান ঠিক থাকলেও ইংরেজিতে ভুল লেখা হয়েছে। ইংরেজিতে লেখা হয়েছে ‘Moulana’। শুদ্ধ বানান হবে ‘Mawlana’ বা ‘Maulana’।

জানতে চাইলে পরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. ভূঁইয়া মো. মনোয়ার কবির এ বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। পরে পরীক্ষা কমিটির সদস্য সহকারী অধ্যাপক আককাছ আহমদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিভাগের সভাপতির সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন।

বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইয়াহ্ইয়া আখতার  জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না। বানান ভুলের বিষয়টি খবর নেবেন বলে জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ‍উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বানান ভুলের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও কল্যাণ ট্রাস্ট অফিস ঘেরাওয়ের হুমকি - dainik shiksha সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও কল্যাণ ট্রাস্ট অফিস ঘেরাওয়ের হুমকি চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী - dainik shiksha চাঁদা বৃদ্ধির পরও ২১৬ কোটি টাকা বার্ষিক ঘাটতি : শরীফ সাদী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নীতিমালা জারি একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির নীতিমালা জারি, আবেদন শুরু ১২ মে পুলিশ গুরুত্ব দিলে নুসরাতের প্রাণহানি ঘটতো না: সংসদীয় কমিটি - dainik shiksha পুলিশ গুরুত্ব দিলে নুসরাতের প্রাণহানি ঘটতো না: সংসদীয় কমিটি প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ৪২৭ শিক্ষকের বদলি শিক্ষক নিয়োগে অর্থ লেনদেনে মন্ত্রণালয়ের সতর্কতা জারি - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগে অর্থ লেনদেনে মন্ত্রণালয়ের সতর্কতা জারি ভুয়া আয়কর রিটার্ন দাখিল, শিক্ষকের এমপিও বন্ধ - dainik shiksha ভুয়া আয়কর রিটার্ন দাখিল, শিক্ষকের এমপিও বন্ধ অতিরিক্ত কর্তন আদেশ নিয়ে যা বললেন শিক্ষক ইউনিয়ন সভাপতি - dainik shiksha অতিরিক্ত কর্তন আদেশ নিয়ে যা বললেন শিক্ষক ইউনিয়ন সভাপতি অতিরিক্ত কর্তন আদেশ বাতিল না হলে আন্দোলনের হুমকি - dainik shiksha অতিরিক্ত কর্তন আদেশ বাতিল না হলে আন্দোলনের হুমকি ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই অতিরিক্ত কর্তন আদেশ বাতিল হবে’ - dainik shiksha ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই অতিরিক্ত কর্তন আদেশ বাতিল হবে’ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা আগামী মাসেই - dainik shiksha প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা আগামী মাসেই একাদশে ভর্তির আবেদন ১২ মে থেকে - dainik shiksha একাদশে ভর্তির আবেদন ১২ মে থেকে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website