চাঁদের বাসিন্দা পৃথিবীর টার্ডিগ্রেডস! - বিবিধ - Dainikshiksha

চাঁদের বাসিন্দা পৃথিবীর টার্ডিগ্রেডস!

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

চাঁদে এখন পর্যন্ত প্রাণের অস্তিত্বের সন্ধান পাননি বিজ্ঞানীরা। কিন্তু বিজ্ঞানীদের এক গবেষণার অংশ হিসেবে চাঁদের বাসিন্দা হয়ে গেছে পৃথিবীর একটি প্রাণী—‘টার্ডিগ্রেডস’। ‘ওয়াটার বেয়ার’ বা পানির ভল্লুকও বলা হয় এদের। এক মিলিমিটারের চেয়ে কম দৈর্ঘ্যের প্রাণী যারা ১৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় যেমন টিকে থাকতে পারে, তেমনি শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায়ও দিব্যি বেঁচে থাকতে পারে।

ইসরায়েলের একটি মহাকাশযান চাঁদে ভেঙে পড়লে তার ভেতরে থাকা সেই টার্ডিগ্রেডরা তখন চন্দ্রপৃষ্ঠে আটকে পড়ে। আর ওই ওয়াটার বেয়ারগুলোকে যে প্রতিষ্ঠান মহাকাশযানে রেখেছিল, সেই প্রতিষ্ঠানের সহ-প্রতিষ্ঠাতার দৃঢ় বিশ্বাস যে, সেই দুর্ঘটনার পরও এখনো বেঁচে আছে টার্ডিগ্রেডগুলো।

ওয়াটার বেয়ারগুলোকে আর্দ্রতা শূন্য করে এমনভাবে সংরক্ষিত অবস্থায় রাখা হয় যেন তাদের সহজেই পুনরুজ্জীবিত করা যায় এবং তারপর সেগুলোকে কৃত্রিম অ্যাম্বারের মধ্যে রাখা হয়। আর্চ মিশন ফাউন্ডেশনের প্রধান নোভা স্পিভ্যাক বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস, টার্ডিগ্রেডগুলোর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা অনেক। এই ফাউন্ডেশন সাধারণত মানুষের জ্ঞান এবং পৃথিবীর জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করে সেগুলোকে সৌরজগতের বিভিন্ন গ্রহে পাঠায়, যেন কোনো বড় বিপর্যয়ে পৃথিবীর সব প্রাণী একসঙ্গে হারিয়ে না যায়।

বেরেশিট রোবট ল্যান্ডার তাদের ‘লুনার লাইব্রেরি’ নিয়ে যাত্রা করে চাঁদের উদ্দেশ্যে। এই লুনার লাইব্রেরিকে একটি ডিভিডির সঙ্গে তুলনা করা যায়, যার মধ্যে পৃথিবীতে মানুষের ইতিহাসের ৩ কোটি পৃষ্ঠার একটি সংকলনের পাশাপাশি মানুষের ডিএনএ’র আর্কাইভও রয়েছে। আর ঐ যাত্রায় এই লাইব্রেরির সঙ্গে ছিল আর্দ্রতা শূন্য টার্ডিগ্রেডগুলো। অধিকাংশ প্রাণীকেই একবার পানি শূন্য করে ফেলার পর তাকে আর পুনরায় জীবিত করা সম্ভব হয় না, কিন্তু এই ওয়াটার বেয়ারগুলোর ক্ষেত্রে বিষয়টি ভিন্ন। আর্দ্রতা শূন্য অবস্থায় কয়েক দশক থাকার পরও এগুলোকে জীবিত করা সম্ভব। বিজ্ঞানীরা মনে করেন, এটি টার্ডিগ্রেডদের একটি সুপার পাওয়ার।

শুকিয়ে যাওয়ার পর এরা মাথা এবং আটটি পা অনেকটা শরীরের ভেতরে ঢুকিয়ে নিয়ে ছোটো একটি বলে রূপান্তরিত করে এবং এমন একটি অবস্থায় যায় যার সঙ্গে মৃত্যুর তুলনা করা যেতে পারে। আর্চ মিশনের লুনার লাইব্রেরির জন্য তাদের যোগ্য প্রার্থী মনে করার আরেকটি কারণ, ২০০৭ খ্রিষ্টাব্দে মহাকাশে টিকে থাকা একমাত্র প্রাণী ছিল এই টার্ডিগ্রেড।

নোভা স্পিভাক বলেন, টার্ডিগ্রেড এই লাইব্রেরির জন্য সেরা পছন্দ ছিল কারণ তারা অতি ক্ষুদ্র, বহুকোষী এবং পৃথিবীর বুকে থাকা সবচেয়ে টেকসই প্রজাতির প্রাণীগুলোর মধ্যে একটি। -বিবিসি

শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে কঠোর হচ্ছে নীতিমালা - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে কঠোর হচ্ছে নীতিমালা প্রাথমিকে ৬১ হাজার শিক্ষকের পদ সৃষ্টি হবে - dainik shiksha প্রাথমিকে ৬১ হাজার শিক্ষকের পদ সৃষ্টি হবে দৈনিকশিক্ষার প্রতিবেদনে জাহাঙ্গীরকে ওএসডি - dainik shiksha দৈনিকশিক্ষার প্রতিবেদনে জাহাঙ্গীরকে ওএসডি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার রুটিন - dainik shiksha প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার রুটিন ভিকারুননিসায় ৪৪৩ অতিরিক্ত ভর্তি, সাবেক অধ্যক্ষকে শোকজ - dainik shiksha ভিকারুননিসায় ৪৪৩ অতিরিক্ত ভর্তি, সাবেক অধ্যক্ষকে শোকজ তিন শর্তে অস্থায়ী এমপিও পাচ্ছে ১৭৬৩ প্রতিষ্ঠান, আলাদা পরিপত্র - dainik shiksha তিন শর্তে অস্থায়ী এমপিও পাচ্ছে ১৭৬৩ প্রতিষ্ঠান, আলাদা পরিপত্র প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকরি করতে হবে চর এলাকায়, আসছে চর ভাতা - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকরি করতে হবে চর এলাকায়, আসছে চর ভাতা বিএড ৩য়-৫ম সেমিস্টারের ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৫ আগস্ট থেকে - dainik shiksha বিএড ৩য়-৫ম সেমিস্টারের ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৫ আগস্ট থেকে সাত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তির আবেদন শুরু ১০ সেপ্টেম্বর - dainik shiksha সাত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তির আবেদন শুরু ১০ সেপ্টেম্বর এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর - dainik shiksha এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে ঢাবিতে ১ম বর্ষ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha ঢাবিতে ১ম বর্ষ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website