চ্যালেঞ্জ ছিল মিন্নির আইনগত অধিকার নিশ্চিত করা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

চ্যালেঞ্জ ছিল মিন্নির আইনগত অধিকার নিশ্চিত করা

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি জামিনে মুক্তি পাওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন আইন ও সালিস কেন্দ্রের (আসক) চেয়ারপারসন ও হাই কোর্টে মিন্নির প্রধান আইনজীবী জেড আই খান পান্না।  বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায় এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। প্রতিবেদনটি লিখেছেন আশরাফুল মুন্না।

গতকাল জেড আেই পান্না বলেন, শুরুতে মিন্নির আইনগত অধিকার নিশ্চিত করাই চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এখন অন্তত এটা ভেবে ভালো লাগছে, আমরা একজন বিচারপ্রার্থীর সাংবিধানিক অধিকারটা নিশ্চিত করতে পেরেছি। বার কাউন্সিলের এই সদস্য বলেন, ১৯ বছরের একটা মেয়ে (মিন্নি)। তার চোখের সামনেই তার স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা করা হলো। প্রযুক্তির কল্যাণে আমরা সবাই দেখলাম স্বামীকে বাঁচাতে তার সেকি চেষ্টা। পুলিশ স্বামী হত্যায় তাকেই আসামি করে আদালতে হাজির করল, তখন একজন আইনজীবীও পাওয়া গেল না তার পক্ষে। আমরা জানতে পারলাম, একটি প্রভাবশালী মহল মেয়েটির পক্ষে আইনজীবীদের না দাঁড়াতে চাপ সৃষ্টি করেছে। তখনই মিন্নিকে আইনি সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিই। আইন ও সালিস কেন্দ্র ও বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্টের পক্ষ থেকে বরগুনার আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলি। সবাই মিন্নির পক্ষে দাঁড়াতে আগ্রহী থাকলেও কেউ সাহস পাচ্ছিলেন না। শেষে জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল বারী আসলাম সাহস করে মিন্নির পক্ষে দাঁড়িয়ে যান। ঢাকা থেকেও আমাদের প্রতিনিধিরা সেখানে গিয়ে সার্বিক তদারকি করেছেন। 

সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ এই আইনজীবী বলেন, নিজের মধ্যে আত্মতৃপ্তি তখনই আসে, যখন মানুষের জন্য কাজ করতে পারি। সাধারণ মানুষের আইনগত অধিকার নিশ্চিত করা আমার পেশাগত দায়বদ্ধতার মধ্যেই পড়ে। তাই সব সময় চেষ্টা করি মানুষের জন্য কাজ করতে। মানুষের জন্য কাজ করার অংশ হিসেবেই মিন্নির পক্ষে দাঁড়িয়েছি। জেড আই খান পান্না আরও বলেন, সারা দেশে ৪৫ হাজার পেশাজীবী বর্তমানে আইন পেশায় নিয়োজিত। এত আইনজীবী থাকার পরও এখনো অনেকে আইনগত সহায়তা পাওয়ার সাংবিধানিক অধিকারটুকু পান না। সরকারের লিগ্যাল এইড সার্ভিসের পাশাপাশি প্রত্যেক আইনজীবী যদি চান বছরে একজনকে বিনা খরচে আইনগত সহায়তা দেবেন তাহলে ৪৫ হাজার মানুষকে সহায়তা দেওয়া হবে।

নতুন প্রজন্মের যারা আইন পেশায় আসতে চায়, তাদের মানুষের জন্য কাজ করার কথা মাথায় নিয়েই পেশায় আসা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ - dainik shiksha করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ - dainik shiksha সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে - dainik shiksha শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত - dainik shiksha শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না - dainik shiksha পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু - dainik shiksha সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website