ছাত্রলীগ শুদ্ধিকরণ - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

ছাত্রলীগ শুদ্ধিকরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ছাত্রলীগের শুদ্ধিকরণে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তাদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। সংগঠনের ৭১ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম এমন ব্যবস্থা নেয়া হলো। আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে দলের সভানেত্রী ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী শেখ হাসিনা এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ তথ্য জানা যায়।

বৈঠকসূত্রের বরাত দিয়ে পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে মাদক সেবন, চাঁদাবাজিসহ বেশ কিছু সুনির্দিষ্ট অভিযোগ তদন্ত হলে সত্যতা মেলে। এ ঘটনায় কঠোর অবস্থান নেন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার দুর্বিনীতদের অপসারণ করে ‘ক্ষমতার অপব্যবহার, অপকর্ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স’ নীতি অনুসরণের বার্তা দিয়েছেন।

বৈঠকে কথা প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগে ক্যাডারভিত্তিক রাজনীতির স্থান নেই জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কিছু কিছু ঘটনার জন্য আমাদের অর্জন যেন ব্যাহত না হয়। যারা ক্যাডার পলিটিক্স করছে এবং মদদ দেবে তাদের স্থান আওয়ামী লীগে হবে না। যারাই দাম্ভিকতা দেখাবে, মানুষকে কষ্ট দেবে, সরকারের সুনাম নষ্ট করবে তাদের এক চুলও ছাড় দেওয়া হবে না। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের সবার সঙ্গে সহনশীল আচরণ করতে হবে। বিশাল বহর নিয়ে কোথাও যাওয়ার দরকার নেই। নেতাদের হোন্ডাবহরের কারণে মানুষ যেন কষ্ট না পায়। মানুষ যেন পেছন থেকে কোনো কথা না বলে- এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ থাকায় ডাকসু নির্বাচনে সহসভাপতি পদে শোভনের পরাজয় অনিবার্য হয়ে ওঠে। দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একক নিয়ন্ত্রণ থাকা সত্ত্বেও ছাত্রলীগ সুফল ঘরে তুলতে পারেনি সংগঠনের শীর্ষে বিতর্কিতদের অবস্থান থাকায়। ছাত্রলীগকে কলুষমুক্ত করার ক্ষেত্রে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে দায়িত্ব থেকে অপসারণের ঘটনা তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সোনালি ঐতিহ্যের অধিকারী এই ছাত্র সংগঠনটি সম্পর্কে বলা হয়, ছাত্রলীগের ইতিহাসই বাংলাদেশের ইতিহাস। অথচ সাম্প্রতিক সময়ে ছাত্রলীগের নামে দুর্বৃত্তপনা মাতৃসংগঠন আওয়ামী লীগই শুধু নয়, সরকারের জন্যও বিড়ম্বনার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা অন্যদের শুধরে চলার ক্ষেত্রে সতর্কবাণী হিসেবে বিবেচিত হবে- এমনটিই আশা করা যায়। দুর্বৃত্তপনার বিরুদ্ধে সঠিক ও সময়োচিত পদক্ষেপের জন্য জনমনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিনন্দিত হবেন বলে আমাদের বিশ্বাস।

করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২০১ - dainik shiksha করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২০১ প্রাথমিকে ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ আসছে - dainik shiksha প্রাথমিকে ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ আসছে গার্ডেনিং করতে ৫ হাজার করে টাকা পাবে ১০ হাজার স্কুল - dainik shiksha গার্ডেনিং করতে ৫ হাজার করে টাকা পাবে ১০ হাজার স্কুল কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের নতুন সচিব আমিনুল ইসলাম - dainik shiksha কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের নতুন সচিব আমিনুল ইসলাম চলতি মাসেই স্থায়ী হচ্ছেন প্রাথমিকের অস্থায়ী প্রধান শিক্ষকরা - dainik shiksha চলতি মাসেই স্থায়ী হচ্ছেন প্রাথমিকের অস্থায়ী প্রধান শিক্ষকরা সৌদি আরবে থেকেও নিয়মিত হাজিরা, এমপিওভুক্তি! - dainik shiksha সৌদি আরবে থেকেও নিয়মিত হাজিরা, এমপিওভুক্তি! শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ - dainik shiksha শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ সরকারি স্কুল-কলেজের কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণ শুরু ৭ জুলাই - dainik shiksha সরকারি স্কুল-কলেজের কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণ শুরু ৭ জুলাই অটোপাস দিতে পারবে স্কুল-কলেজগুলো - dainik shiksha অটোপাস দিতে পারবে স্কুল-কলেজগুলো বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website