ছাত্রের ওপর অধ্যক্ষের হামলা - কলেজ - Dainikshiksha

ছাত্রের ওপর অধ্যক্ষের হামলা

বরগুনা প্রতিনিধি |

বরগুনার বামনায় ডৌয়াতলা ওয়াজেদ আলী খান ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. শফিকুল ইসলাম টুকুর বিরুদ্ধে কলেজের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রের উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় গুরুতর আহত ওই ছাত্রের নাম মো. মেহেদী হাসান (১৭)। সে বামনা উপজেলার উত্তর কাকচিড়া গ্রামের মো. ফরিদ তালুকদারের ছেলে।  শনিবার (১৮ আগস্ট) দুপুর ১টায় কলেজের সামনে ডৌয়াতলা কাকচিড়া মহাসড়কে ঘটনাটি ঘটে।

 জানা যায়, শনিবার দুপুর আনুমানিক ১টার দিকে ডৌয়াতলা কাকচিড়া সড়কের পাশে কলেজের সামনে দিয়ে হেটে যাচ্ছিল কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র মেহেদী হাসান। এমন সময় ওই কলেজের অধ্যক্ষ মো. শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে ৪/৫জন প্রভাষক এসে তাকে এলোপাথারী মারধর করে।

এতে মেহেদী গুরুতর আহত হয়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে অধ্যক্ষের হাত থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে। পরে থাকে বামনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়।

এ ব্যাপারে আহত শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান জানান, সে ও তার কয়েকজন বন্ধু রাস্তা দিয়ে হেটে যাচ্ছিলো। কলেজের ভিতর কারা কেন ছাত্রকে মেরেছে তা সে জানেনা। আচমকা অধ্যক্ষ স্যার গুন্ডা ও মাস্তানের মতোন তার উপর হামলা চালায়। 

আহত শিক্ষার্থী মেহেদী হাসানের মা শাহিনুর বেগম জানান, আমার এক মাত্র ছেলেকে বিনা দোষে অধ্যক্ষ মেরেছে। আমি এর বিচার চাই।
 
ঘটনাটির প্রত্যক্ষদর্শী শান্ত জানান, অধ্যক্ষ, রসায়ন প্রভাষক বাবুল গোমস্তা, ইংরেজী প্রভাষক জাহিদুল ইসলাম ও বাংলা প্রভাষক জাকির হোসেনসহ কয়েকজন মিলে একজনকে মারতে দেখে তারা। সেখানে যাওয়ার পরে শিক্ষকরা চলে যায়। আহত অবস্থায় মেহেদী নামের ওই শিক্ষার্থীকে তারা উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। 

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, আমার কলেজের আল-আমীন নামে এক ছাত্রকে মেহেদী সহ কয়েকজনে মিলে মারধর করেছে। তাই আমি ২/৩ জন প্রভাষককে নিয়ে তাকে কয়েকটি চড় মেরেছি। তার বিরুদ্ধে এই কলেজের একটি মেয়েকে ইভটিজিং করার অভিযোগ রয়েছে।

বামনা থানার ওসি জি এম শাহ নেওয়াজ বলেন, এ বিষয়ে এখনা কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। আহত শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

আলিমের নম্বর বণ্টন প্রকাশ - dainik shiksha আলিমের নম্বর বণ্টন প্রকাশ এমপিওভুক্ত হচ্ছেন স্কুল-কলেজের ৯০৯ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন স্কুল-কলেজের ৯০৯ শিক্ষক সরকারি হল আরও ৪৩ প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha সরকারি হল আরও ৪৩ প্রতিষ্ঠান পদোন্নতি পাচ্ছেন সরকারি হাইস্কুলের সাড়ে পাঁচ হাজার শিক্ষক - dainik shiksha পদোন্নতি পাচ্ছেন সরকারি হাইস্কুলের সাড়ে পাঁচ হাজার শিক্ষক বিশেষ মঞ্জুরীর টাকার আবেদন করা যাবে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha বিশেষ মঞ্জুরীর টাকার আবেদন করা যাবে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত টেস্টে ফেল করলে পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না - dainik shiksha টেস্টে ফেল করলে পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না শূন্যপদের চাহিদা পাঠানোর সময় ফের বাড়ল - dainik shiksha শূন্যপদের চাহিদা পাঠানোর সময় ফের বাড়ল দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website