ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করার প্রশ্নই ওঠে না : প্রধানমন্ত্রী - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করার প্রশ্নই ওঠে না : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজনীতির কারণেই মনের মধ্যে দেশপ্রেম জাগে। ছাত্ররাজনীতি করেছি বলেই দেশের প্রতি মমত্ববোধ নিয়ে কাজ করতে পারছি। ছাত্ররাজনীতি বন্ধ হবে কেন? ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করার প্রশ্নই ওঠে না। তবে, বুয়েট স্বায়ত্ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়। তারা চাইলে আলাদা সিদ্ধান্ত নিতে পারে। বুধবার (৯ অক্টোবর) গণভবনে আয়োজিত ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র সফর সম্পর্কে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনা বলেন, একেকটা ছাত্রের পেছনে কয়েক লাখ টাকা খরচ করে সরকার। মেধাবী তৈরির জন্য এতো টাকা খরচ করা হয়। মাস্তানি করার জন্য তো এসব টাকা দেয়া হয় না। 

তিনি বলেন, বুয়েট একটা স্বায়ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়। সরকার সেখানে ফান্ড দেয়। কিন্তু হস্তক্ষেপ করে না। তারা চাইলে সেখানে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে। এতে তাদের বিষয়। তবে আমি মনে করি, ছাত্ররাজনীতি থাকলে তাদের দেশের প্রতি আরও মমত্ব জাগবে। 

ছাত্র রাজনীতির স্বাধীনতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতা ভালো সেটার মর্যাদা যদি কেউ দিতে পারে। ছাত্রলীগ কোনো অঙ্গসংগঠন না। এটি একটি স্বাধীন দল। ছাত্রলীগ সবসময়ই স্বাধীন ছিলো। 

ছাত্র আন্দোলন নিয়ে তিনি বলেন, ‘ছাত্ররা আন্দোলন করে সেখানে পুলিশ গেলে তাদের ও প্রশ্ন করা হয় কেন এসেছে। তাদের আলামত সংগ্রহে বাধা প্রদান করা হয়। এই ছাত্রদের সেফটি পুলিশ কিভাবে দিবে। তাদের নিজেদের ভেতরেই যদি কিছু হয় সেই দায়িত্ব কে নিবে। ছাত্ররা ভিসির সাথে যেভাবে কথা বলে বুঝা যায় না কে ছাত্র কে ভিসি। তাদের আচরণ দেখে বুঝা মুশকিল। তারা হাতে কাগজ ধরিয়ে দিয়ে বলেন এক্ষুনি করতে হবে। এক্ষুনি করা কিভাবে সম্ভব। তারা বুঝেনা ব্যাপারটা। তাদের সমর্থন করা হচ্ছে, এতো সমর্থনের পর আন্দোলন করার কি দরকার। আর যদি করে তাহলে করুক। আমরাও আন্দোলন করেই এসেছি। আমি আন্দোলনের বিরুদ্ধে যাই না।’     

এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন গুগল ম্যাপে টয়লেটের লোকেশনে আববার হত্যায় অভিযুক্তদের নাম - dainik shiksha গুগল ম্যাপে টয়লেটের লোকেশনে আববার হত্যায় অভিযুক্তদের নাম মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website