জরাজীর্ণ ভবনে শতবর্ষী রাধা সুন্দরী স্কুল, পাঠদান ব্যাহত - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

জরাজীর্ণ ভবনে শতবর্ষী রাধা সুন্দরী স্কুল, পাঠদান ব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক |

রাজধানীর সূত্রাপুরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী স্কুল রাধা সুন্দরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি এই বছর শতবর্ষপূর্ণ করলেও মাত্র ৭৮ জন শিক্ষার্থী রয়েছে এখানে। তিন তলা ভবনের এ বিদ্যালয়ের অবস্থা এখন খুবই নাজুক। পাঁচটি শ্রেণিকক্ষ থাকলেও পাঠদান চলে মাত্র তিনটিতে। পাঁচটি শ্রেণিকক্ষের মধ্যে নিচ তলার দুটিতে বৃষ্টির সময় পানি ওঠার কারণে সেখানে পাঠদান বন্ধ রয়েছে বলে জানান বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. আলাউদ্দিন। দুই শিফটে স্কুল পরিচালনার কারণে এখনো ক্লাস চালু রাখা সম্ভব হয়েছে বলে জানান এই শিক্ষক।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয়টির নিচের দুটি কক্ষ খালি পড়ে রয়েছে। দোতলা ও তিন তলায় শুধু তিনটি কক্ষে পাঠদান চলছে। এর মধ্যে ওপরের একটি কক্ষের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ায় সেখানে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় সেই স্থানের নিচে শিক্ষার্থীদের বেঞ্চ রাখা হয়নি। বিদ্যালয়ের তিনটি কক্ষে শিক্ষার্থীদের বসার জন্য বেঞ্চ রয়েছে মাত্র ৩০টি। তাও আবার ভাঙাচোরা। এছাড়া স্টোর রুমে পড়ে আছে আরও ভাঙা অনেক বেঞ্চ। গত পনেরো বছরেও নতুন কোনো চেয়ার-টেবিল কেনা হয়নি বলে জানা যায়।

জানা যায়, ১৯১৯ খ্রিষ্টাব্দে সূত্রাপুরের বাসিন্দা রমনী মোহন বসাক প্রতিষ্ঠা করেন বিদ্যালয়টি। ১৯৭৩ খ্রিষ্টাব্দে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসেবে এটি স্বীকৃতি পায়। বর্তমানে ছয়জন শিক্ষক রয়েছেন বিদ্যালয়টিতে। এত বছর পার করলেও এর অবকাঠামোগত তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। সংক্ষিপ্ত পরিসরে তিন তলা ভবন গড়ে উঠলেও এটি এখন প্রায় ব্যবহার অনুপযোগী। এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য নেই কোনো খেলার মাঠ।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রভাত চন্দ্র সরকার বলেন, আর্থিক অনুদান না থাকায় বিদ্যালয়টি এ অবস্থায় রয়েছে। তবে তারা ইতোমধ্যে দেয়ালের রং করাসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বৈঠকে বসে আলোচনা করেছেন বলে জানান। এদিকে গত ৪ সেপ্টেম্বর ঐতিহ্যবাহী এই বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। এ সময় তিনি বিদ্যালয়টির অপরিচ্ছন্নতা, সরকারি অর্থের অপচয়সহ নানা কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

বিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন না হওয়ার বিষয়ে স্কুলের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি মো. শহিদউল্লাহ বলেন, বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য যে পরিমাণ অর্থ দরকার তা নেই। সরকারিভাবে যদি কোনো অনুদান পাই তাহলে আমরা সংস্কারের কাজ করব।

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ফল দেখুন - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ফল দেখুন মাদরাসা শিক্ষকদের নতুন এমপিওভুক্তির কার্যক্রম স্থগিত - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের নতুন এমপিওভুক্তির কার্যক্রম স্থগিত প্রাথমিকের বেতন বৈষম্য : প্রধানমন্ত্রীই একমাত্র ভরসা - dainik shiksha প্রাথমিকের বেতন বৈষম্য : প্রধানমন্ত্রীই একমাত্র ভরসা বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা ১৪ অক্টোবর - dainik shiksha বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা ১৪ অক্টোবর এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website