জাতীয় পতাকার রংয়ে সেজেছে প্রাথমিক স্কুলগুলো - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

জাতীয় পতাকার রংয়ে সেজেছে প্রাথমিক স্কুলগুলো

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি |

জাতীয় পতাকা লাল-সবুজের আদলে নতুন সাজে সেজেছে সিরাজগঞ্জের প্রায় ৬০ ভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন। জেলার ৯টি উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বরাদ্দ উন্নয়ন ও মেরামতের অর্থে সাজানো হচ্ছে এসব বিদ্যালয়।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চররায়পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রায়হানা আখতার জানান, লাল-সবুজ আমাদের স্বাধীনতার প্রতীক। বিদ্যালয়গুলো লাল-সবুজ রং করার ফলে ছোটো ছোটো কোমলমতি শিশুদের মাঝে স্বাধীনতার পাশাপাশি দেশাত্মবোধের চেতনাবোধ জাগ্রত হবে। এই রং করায় শিক্ষার্থীরাও ক্লাসে উপস্থিত হচ্ছে আগ্রহ নিয়ে।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আপেল মাহমুদ জানান, জাতীয় চেতনার সঙ্গে সম্পৃক্ত লাল-সবুজ। এতে করে কোমলমতি শিশুদের ওপর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। তিনি বলেন, সরকারিভাবে যে সকল বিদ্যালয়ে মেরামতের অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সে সকল বিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকার আদলে লাল-সবুজ পতাকায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে। এটিই দেশের রোল মডেল। তিনি জানান, সদর উপজেলার ২৪৬টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ইতোমধ্যেই ১০০টি রং করা হয়েছে। বাকিগুলো প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ পেলে করা হবে।

সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা বলেন, লাল-সবুজের পতাকা আমাদের স্বাধীনতার প্রতীক। এই লাল-সবুজই আমাদের স্বাধীনতার চেতনাবোধকে জাগ্রত করে।

তাই মেরামতে বরাদ্দ অর্থে যেহেতু রং করতেই হবে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাবোধ রেখে লাল-সবুজের রংয়ে সাজানো হয়েছে জেলার প্রায় ১ হাজার বিদ্যালয়। আগামী এক বছরের মধ্যে পর্যায়ক্রমে সকল বিদ্যালয়ই লাল-সবুজে রাঙানো হবে বলেও জানান তিনি।

এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন - dainik shiksha এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ - dainik shiksha মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন - dainik shiksha মারধরে অসুস্থ হলে আবরারকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে পেটাই : রবিন কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? - dainik shiksha কী আছে শিক্ষক গোকুল দাশের লাইব্রেরিতে, কেন বিক্রির বিজ্ঞাপন? ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন - dainik shiksha ৪২ শতাংশই অন্য চাকরি না পেয়ে শিক্ষকতায় এসেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত - dainik shiksha ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website