জাতীয় বাজেট নিয়ে বাংলাদেশ শিক্ষক ইউনিয়নের ভাবনা - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

জাতীয় বাজেট নিয়ে বাংলাদেশ শিক্ষক ইউনিয়নের ভাবনা

মো. দিদার হোসেন |

প্রতি অর্থবছরের বাজেট বিশ্লেষণ করি তাহলে দেখা যায়, বাজেটে শিক্ষা খাতের সঙ্গে সব সময়ই প্রযুক্তি বাজেট সংযুক্ত থাকে। অথচ সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে শিক্ষাখাতের বাজেট ও তা বাস্তবায়নের পরিকল্পনা করা উচিত। উদাহরণ হিসেবে যদি গত বছরের বাজেটেও দেখি, শিক্ষার সঙ্গে প্রযুক্তিকে যুক্ত করে দেয়া হয়েছে। ফলে কার্যত শিক্ষাখাতের প্রকৃত বাজেট পরিকল্পনাটি অস্পষ্ট রয়ে গেছে।

গতবারে শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বাজেট বরাদ্দ ১৫ দশমিক ২ শতাংশ দেখালেও মূলত শিক্ষাখাতের জন্য বরাদ্দ ছিল ১১ দশমিক ৭ শতাংশ। জিডিপির শতাংশ হারেও শিক্ষাখাতের বাজেট বরাদ্দ স্থবির রয়েছে। শিক্ষাখাতের বাজেট বরাদ্দ গত বছরেও জিডিপির ২ দশমিক ১০ শতাংশ। অথচ ইউনেসকো এডুকেশন ফ্রেমওয়ার্কে (বাংলাদেশের অনুস্বাক্ষরকারী ও সমর্থনকারী দেশ) একটি দেশের জিডিপির ৪-৬ শতাংশ ও মোট বাজেটের ১৫-২০ শতাংশ শিক্ষাখাতে বরাদ্দ রাখার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এমনকি বাংলাদেশ সরকারের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনাতেও উল্লেখ আছে জিডিপির অন্তত ২ দশমিক ৮৪ শতাংশ শিক্ষা খাতে বরাদ্দ রাখার। অথচ প্রতিবছরই শিক্ষাখাতের এই আর্থিক প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ছাড়া অন্য সব দেশ শিক্ষাখাতে জিডিপির শতাংশ হারে বাংলাদেশের চেয়ে বেশি ব্যয় করে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারত, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা শিক্ষাখাতে যথাক্রমে জিডিপির ৩ দশমিক ৮, ৩ দশমিক ৭ ও ৩ দশমিক ৬ শতাংশ ব্যয় করে। ভুটানের শিক্ষা খাতে ব্যয় জিডিপির ৬ শতাংশ।

করোনা মহামারির এ দুঃসহ সময়ে মানুষের আয় রোজগার কিছু কম হলেও থেমে নেই মানুষের আহার। সরকার প্রনোদনার মাধ্যমে সবকিছু স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছে; একসময় ইনশাল্লাহ সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আগামী ১১ জুন যথারীতি জাতীয় বাজেট ঘোষণা হবে। বাজেট এভাবে আসে-যায়, কিন্তু দেশের ৯৭ শতাংশ বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের বৈষম্যগুলো নিরসন হয় না। 

বাংলাদেশের কাছাকাছি নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ যেমন- ফিলিপাইন, মালয়েশিয়াসহ প্রায় ২২টি দেশ তাদের বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থাকে সরকারিকরণের মাধ্যমে বিশ্বের উন্নত দেশ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। বর্তমান সরকারের এটা একটা বিরাট সুযোগ বেসরকারি শিক্ষাকে রাজস্ব খাতে নিয়ে এসডিজি ও রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের বীজ বপণ করা। মনে রাখবেন, শিক্ষাকে এভাবে অবহেলায় রাখলে আমরা আরও অন্তত ২০ বছর পিছিয়ে যাব। তাই এবারের বাজেটে শিক্ষাখাতে মোট বাজেটের ২০ শতাংশ বরাদ্দ রাখার ও সব বেসরকারি (ইআইআইএন প্রাপ্ত) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একযোগে সরকারিকরণের বরাদ্দ রাখার জোর দাবি জানাচ্ছি।

লেখক : মো. দিদার হোসেন, সহকারী মহাসচিব, বাংলাদেশ শিক্ষক ইউনিয়ন।

[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন।]

করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ - dainik shiksha করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ - dainik shiksha সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে - dainik shiksha শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত - dainik shiksha শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না - dainik shiksha পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু - dainik shiksha সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website