please click here to view dainikshiksha website

ঢাবি শিক্ষার্থীকে পাঠকক্ষে ছাত্রলীগের র‌্যাগিং

নিজস্ব প্রতিবেদক | আগস্ট ৩, ২০১৭ - ১০:৪০ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের পাঠকক্ষে এক শিক্ষার্থীকে ‘র‌্যাগিং’ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিভাগীয় ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী হলেন ১১তম ব্যাচের ফারজিব সালমান। একই ব্যাচের এক ছাত্রলীগ নেত্রী সম্পর্কে ‘খারাপ কথা’ বলেছেন এমন অভিযোগ এনে তাকে পাঠকক্ষে হেনস্তা করা হয় বলে দাবি করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ক্লাস টাইমে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী জানান, ছাত্রলীগের বিভাগীয় সভাপতি আসিফ আকরামের নেতৃত্বে কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা পাঠকক্ষে প্রবেশ করে ওই শিক্ষার্থীকে বিভাগীয় এক নেত্রীর নামে খারাপ কথা বলেছেন অভিযোগ এনে শাসন করেন। এ সময় তাকে হল থেকেও বের করে দেয়া হবে বলে ভয় দেখানো হয়। একপর্যায়ে শুরু হয় র‌্যাগিং। তারপর ওপর চড়াও হয়ে সবার সামনে তাকে অপমান ও হেনস্তা করা হয়।

অভিযোগের বিষয়ে বিভাগীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আসিফ আকরাম বলেন, ‘গেস্টরুম এমন কিছু না। সে তার ইয়ারম্যাট একটা মেয়েকে নিয়ে খারাপ কথা বলেছে। তাই ওকে বলছি যে এ ধরনের কিছু না করতে।’ একপর্যায়ে তিনি প্রতিবেদককে বলেন, ‘সেমিনারে গেস্টরুম হলে ওখানে নিউজ করার কিছু নেই।’ এই বলেই ক্ষেপে যান তিনি।

এদিকে ঘটনার পরই ফেসবুকে প্রতিবাদ করলে এক শিক্ষার্থীকে সভাপতি আসিফ শিবির বলে গালি দেন। বলেন, ‘তুই বেটা শিবির। বামাতিও না সাধারণ শিক্ষার্থীও না।’

ভুক্তভোগী ফারজিব সালমান বলেন, গত রাতে আমাকে হল ছাত্রলীগের এক ভাই বলেন, ‘কিরে তোমাদের বিভাগে নাকি এক নারী নেত্রী আছে? ওই নেত্রী কেমন? সে নাকি একটু পাকনা- প্রতুত্তরে আমি বলি; সেটিতো আমি জানি না। আমিতো অত মিশি না ওর সঙ্গে- হলেও হতে পারে।’

এ ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে বিভাগের এক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, ‘আমাদের সেমিনার পড়াশোনার জায়গা। এখানে ছাত্রলীগ কাউকে গেস্টরুমের মতো শাসানো, ঝাড়ি দেয়া, হল থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দিতে পারে না। তাদের এক নেত্রীকে খারাপ কথা বলার অভিযোগ এনে হল থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। ছাত্রলীগের এর রকম কার্যক্রম নিয়ে আমরা শংকিত যে বিভাগে পড়াশোনার পরিবেশ থাকবে কিনা।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, ‘যদি এ ধরনের কোনো অভিযোগ আসে তাহলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ আর বিভাগীয় চেয়ারপারসন অধ্যাপক মফিজুর রহমান বলেন, ‘আমার কাছে এমন কোনো অভিযোগ আসেনি। সেমিনার হচ্ছে আমাদের পাঠকক্ষ। সেটি পড়াশোনার জন্য সেখানে এমন কিছু করার সুযোগ নেই। যদি অভিযোগ আসে তাহলে আমরা দেখব।’

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ১টি

  1. নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক says:

    ছাত্রলীগ মানেই সন্ত্রাসের যমদূত।

আপনার মন্তব্য দিন