দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের আল্টিমেটাম বেরোবি শিক্ষকের - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের আল্টিমেটাম বেরোবি শিক্ষকের

বেরোবি প্রতিনিধি |

আগামী ৭ দিনের মধ্যে আদালতের রায় পূর্ণাঙ্গরূপে বাস্তবায়ন না করলে দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করবেন সুপ্রিম কোর্টের রায়ের মাধ্যমে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক মাহমুদুল হক। জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি, বেতন-ভাতা ও ক্ষতিপূরণ প্রদানসহ পূর্ণাঙ্গ রায় বাস্তবায়ন চেয়ে বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর করা আবেদনে এই আল্টিমেটাম দেন তিনি।

রেজিস্ট্রার বরারবর দেওয়া চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন, ক্ষতিপূরণ ও অবৈধ নিয়োগকে বাতিল ঘোষণা চেয়ে আরেকটা মামলা করবেন তিনি। ক্ষতিপূরণ দশ কোটি টাকা দিতে হবে। অপরাধ সংগঠনকারী (যিনি নিয়োগে জালিয়াতি করেছেন), অপরাধের সুবিধাভোগী এবং অপরাধের সুবিধাভোগীকে রক্ষার চেষ্টাকারীর নিকট থেকে আদালতের মাধ্যমে এ দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চাওয়া হবে।

চিঠিতে তিনি আরও জানান, আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে প্রভাষক পদে (স্থায়ী) গত ১০ মার্চ তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এরপর জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি, বেতন-ভাতা ও ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবি জানিয়ে ১৪ মে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করেন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত তাকে জ্যেষ্ঠতা ও পদোন্নতি না দেওয়ায় বিভাগে ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ করতে গিয়ে তিনি বিভিন্নভাবে অধিকার বঞ্চিত ও অপমানিত হচ্ছেন। আদালতের রায় পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন না করায় এমনটি ঘটছে। দীর্ঘ সাত বছর নিয়োগ না পেয়ে এবং আইনি লড়াই চালাতে গিয়ে আমি জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি, বেতন-ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়েছি এবং আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।

এ বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তাফা কামালের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

তবে বুধবার দুপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডক্টর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আদালতের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমরা আংশিক রায় বাস্তবায়ন করতে পেরেছি। বাকি বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’

গুণগতমানের শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে : ইউজিসি চেয়ারম্যান - dainik shiksha গুণগতমানের শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে : ইউজিসি চেয়ারম্যান শিক্ষার্থীদের মাঝে গণতান্ত্রিক চর্চা ও মূল্যবোধ সৃষ্টি হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষার্থীদের মাঝে গণতান্ত্রিক চর্চা ও মূল্যবোধ সৃষ্টি হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী অবৈধ গাইড বই কিনতে বাধ্য করা হচ্ছে ধামরাইয়ের শিক্ষার্থীদের - dainik shiksha অবৈধ গাইড বই কিনতে বাধ্য করা হচ্ছে ধামরাইয়ের শিক্ষার্থীদের ‘মুজিববর্ষ উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের বিশেষ প্রণোদনা দেয়া হবে’ - dainik shiksha ‘মুজিববর্ষ উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের বিশেষ প্রণোদনা দেয়া হবে’ শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন দিয়ে ভালো স্কুল হয় না : তথ্যমন্ত্রী - dainik shiksha শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন দিয়ে ভালো স্কুল হয় না : তথ্যমন্ত্রী এসএসসি পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন - dainik shiksha এসএসসি পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন কোনো পেশাকেই ছোট করে দেখা উচিত নয় : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha কোনো পেশাকেই ছোট করে দেখা উচিত নয় : শিক্ষা উপমন্ত্রী চীনের হুবেই প্রদেশে আটকা পড়েছে ৫০০ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী! - dainik shiksha চীনের হুবেই প্রদেশে আটকা পড়েছে ৫০০ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী! শিক্ষার উদ্দেশ্য নৈতিক চরিত্র গড়ে তোলা : কৃষিমন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষার উদ্দেশ্য নৈতিক চরিত্র গড়ে তোলা : কৃষিমন্ত্রী দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটির তালিকা ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা ২০২০ খ্র্রিষ্টাব্দে মাদরাসার ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্র্রিষ্টাব্দে মাদরাসার ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন please click here to view dainikshiksha website