দশ বছরে ৬ গুণ সম্পদ বেড়েছে শিক্ষামন্ত্রীর - বিবিধ - Dainikshiksha

দশ বছরে ৬ গুণ সম্পদ বেড়েছে শিক্ষামন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সম্পদ ১০ বছরে ৬ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে ব্যাংক ব্যালেন্স, শেয়ার, নগদ টাকার পরিমাণ। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে নুরুল ইসলাম নাহিদের দাখিল করা হলফনামা পর্যালোচনা করে এ চিত্র পাওয়া গেছে।

২০০৮ খ্রিস্টাব্দে শিক্ষামন্ত্রীর স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ছিল ৪০ লাখ ৮৯ হাজার ৭৪৮ টাকার। এবার এ সম্পদের পরিমাণ ৬ দশমিক ২০ ভাগ বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ২ কোটি ৫৩ লাখ ৭১ হাজার ৬৮৫ টাকা।

২০০৮ খ্রিস্টাব্দে হলফনামায় স্ত্রীর নামে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকার স্বর্ণের কথা উল্লেখ করলেও এবারের হলফনামায় বলেছেন স্ত্রীর স্বর্ণের মূল্য তার জানা নেই। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে শিক্ষামন্ত্রীর হাতে নগদ ছিল ৪৭ হাজার টাকা।

এবার আছে ৩৫ লাখ ৬৪ হাজার ৭০৫ টাকা। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে শিক্ষামন্ত্রীর ব্যাংকে ছিল ৭ লাখ ৪৬ হাজার ৪৯৯ টাকা। এবার আছে ৩৯ লাখ ৭২ হাজার ৯৮৩ টাকা। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে সঞ্চয়পত্র ছিল নিজ নামে ১২ লাখ ৪৪ হাজার ৪১২ টাকা ও নির্ভরশীলদের নামে ৩ লাখ ৪৭ হাজার ২৫৮ টাকার।

এবার আছে নিজ নামে ২০ লাখ ও স্ত্রীর নামে ৫০ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে কোনো গাড়ির কথা উল্লেখ না থাকলেও এবার ৫৯ লাখ ৩৩ হাজার ৩২১ টাকার গাড়ি রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দের সমপরিমাণ ৭৫ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার এবারও আছে শিক্ষামন্ত্রীর।

২০০৮ খ্রিস্টাব্দে ইলেকট্রনিক সামগ্রী ছিল ১ লাখ টাকার। এবার রয়েছে ২ লাখ ২৫ হাজার টাকার ইলেকট্রনিক সামগ্রী। তবে বৃদ্ধি পায়নি আসবাবপত্রের পরিমাণ। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে যা ছিল তাই আছে। উভয় হলফনামায় উল্লেখ করেছেন শিক্ষামন্ত্রীর নামে ৪৫ হাজার ও স্ত্রীর নামে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকার আসবাবপত্র রয়েছে।

২০০৮ খ্রিস্টাব্দে ঢাকায় ৫ লাখ টাকা মূল্যের ৩ কাঠা জমি রয়েছে উল্লেখ করেছিলেন। এবার উল্লেখ করেছেন ৫ কাঠা বা ০.০৮২৫ একর, যার মূল্য ২১ লাখ ৮ হাজার ৪৪০ টাকা। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দের হলফনামায় শিক্ষামন্ত্রী উল্লেখ করেছিলেন বিভিন্ন জনের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা স্বেচ্ছাপ্রণোদিত দান হিসেবে পেয়েছিলেন।

এমএ পাস ওসি দিচ্ছেন এসএসসি পরীক্ষা - dainik shiksha এমএ পাস ওসি দিচ্ছেন এসএসসি পরীক্ষা ভাষার জন্য মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু: শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha ভাষার জন্য মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু: শিক্ষা উপমন্ত্রী স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website