দুই শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় মামলা - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

দুই শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় মামলা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি |

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের নোয়াগাঁও ইউনিয়নের বিষ্ণাদী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় ১০দিন পর মামলা নিয়েছে পুলিশ।

শনিবার (৩০ নভেম্বর) সোনারগাঁও থানায় এ মামলা দায়ের করা হয়। ১০দিন পর গড়িমসি করে মামলা নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কর্মরত শিক্ষকরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের বিষ্ণাদী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশ্বাবর্তী স্থানে স্থানীয় যুব সমাজের উদ্যোগে এক ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ওয়াজ মাহফিলের জন্য বিদ্যালয়ের মাঠে প্রায় ৫০টিও অধিক দোকান বসায় ওই এলাকায় বখাটে ইলিয়াস মোল্লা ও নুরুল ইসলাম। বিষয়টি ওই স্কুলের পরিচালনা কমিটির সভাপতি আনিছুজ্জামান মুকুল ও এলাকায় গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের জানিয়ে স্কুল মাঠ থেকে ওই দোকানগুলো সরিয়ে দেয় ওই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. খোরশেদ আলম।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২০ নভেম্বর দুপুরে ওই এলাকার সাহেব আলীর ছেলে ইলিয়াস মোল্লা ওরফে ইব্রাহিম মোল্লা, ওসমান মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম, নিলুফা সহ ৫৭ জনের একটি দল লাঠিসোটা নিয়ে স্কুলে প্রবেশ করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. খোরশেদ আলম ও সহকারী শিক্ষক মনিরা সুলতানাকে পিটিয়ে আহত করে। পরে আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আহত মো. খোরশেদ আলম জানান, ইলিয়াস মোল্লা টাকার বিনিময়ে স্কুলের কাউকে না জানিয়ে স্কুলের মাঠে ৫০টিও অধিক দোকান বসিয়েছে। এতে করে স্কুলের ক্লাস নেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না। এবিষয়টি পরিচালনা কমিটিকে জানিয়ে স্কুলের পক্ষ থেকে দোকানগুলো সরিয়ে  দেওয়া হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে ও এক শিক্ষিকাকে পিটিয়ে আহত করে।

এবিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে জানিয়েছি। এর আগেও ইলিয়াস মোল্লার ইভটিজিংয়ের কারণে এ স্কুলের দু’জন মহিলা শিক্ষক অন্যত্র বদলি হয়ে চলে যান। বিষয়টি পরিচালনা কমিটির সকলেই অবগত রয়েছেন।

সোনারগাঁও উপজেলা প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মিয়া বলেন, দুই শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। দীর্ঘ ১০দিন পর মামলা গ্রহণের বিষয়টি রহস্যজনক। আসামীদের আইনের আওতায় এসে সঠিক বিচার দাবি করছি।

সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্তে ধীরগতি থাকায় মামলা নিতে দেরি হয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে।

এমপিওভুক্তি : মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাই ১৮ থেকে ২৪ ডিসেম্বর - dainik shiksha এমপিওভুক্তি : মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের তথ্য যাচাই ১৮ থেকে ২৪ ডিসেম্বর এমপিওভুক্ত মাদরাসার তথ্য যাচাইয়ে যেসব কাগজপত্র লাগবে - dainik shiksha এমপিওভুক্ত মাদরাসার তথ্য যাচাইয়ে যেসব কাগজপত্র লাগবে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা সমমান সনদ নিয়ে আইসিটির ভাইভা প্রার্থীদের জটিলতা নিরসনে এনটিআরসিএর পরামর্শ - dainik shiksha সমমান সনদ নিয়ে আইসিটির ভাইভা প্রার্থীদের জটিলতা নিরসনে এনটিআরসিএর পরামর্শ ঢাকা বোর্ডের এসএসসিতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের তালিকা - dainik shiksha ঢাকা বোর্ডের এসএসসিতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের তালিকা ঢাকা বোর্ডে এইচএসসিতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের তালিকা - dainik shiksha ঢাকা বোর্ডে এইচএসসিতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের তালিকা অতিরিক্ত কর্তন : কথা রাখেননি সিনিয়র সচিব (ভিডিও) - dainik shiksha অতিরিক্ত কর্তন : কথা রাখেননি সিনিয়র সচিব (ভিডিও) প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফল ২০ ডিসেম্বর মধ্যে - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফল ২০ ডিসেম্বর মধ্যে এমপিও নীতিমালা সংশোধন সংক্রান্ত কয়েকটি প্রস্তাব - dainik shiksha এমপিও নীতিমালা সংশোধন সংক্রান্ত কয়েকটি প্রস্তাব দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় - dainik shiksha দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন please click here to view dainikshiksha website