দৈনিক শিক্ষায় সংবাদ প্রকাশের পর ময়নার লেখাপড়ায় ব্যবসায়ীর সহায়তা - বিবিধ - Dainikshiksha

দৈনিক শিক্ষায় সংবাদ প্রকাশের পর ময়নার লেখাপড়ায় ব্যবসায়ীর সহায়তা

এমএ বশার, বাউফল (পটুয়াখালী) |

পরীক্ষার ফি দিতে মাঠে মাঠে ডাল কুড়ায় ময়না’ শিরোনামে দৈনিকশিক্ষা ডটকমে সংবাদ প্রকাশিত হয় গত ২৬ এপ্রিল।বাবা-মায়ের স্নেহ বঞ্চিত অসহায় দুই ভাই-বোন ময়না-রাজ্জাক পটুয়াখালীর বাউফলের ধানদী গ্রামের অসুস্থ নানা আব্দুল মজিদের (লেদু বিশ্বাস) পরিবারে আশ্রয় নিয়ে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার খবর উঠে আসে সেই সংবাদে।সেই ময়না ও রাজ্জাকের লেখাপড়া চালিয়ে নিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন শাকিল মাহমুদ (২৯) নামে ঢাকার এক তরুণ ব্যবসায়ী। 

কেবল নাম জানালেও নিজ পরিচয় গোপন রেখে শাকিল জানান ছোটখাট ব্যবসায়িক আয় থেকে নিয়মিত ময়না-রাজ্জাকের লেখাপড়ার খরচ চালিয়ে যেতে চান তিনি। ময়নার নানা বাড়িতে তাঁর (শাকিল মাহমুদের) বাবাকে পাঠিয়ে ময়নার মামাতো ভাই সোহেল বিশ্বাসের কাছে এক হাজার টাকা পৌঁছে দিয়েছেন। অনুরোধ করেছেন, ময়না-রাজ্জাকের পড়াশুনা নিয়মিত চালিয়ে নিতে। কোনোক্রমেই পিছিয়ে না থেকে শত প্রতিকূলতায়ও দুই ভাই-বোনকে পড়ালেখা চালিয়ে নিতে অনুরোধ জানিয়েছেন তাঁর বাবার মাধ্যমে। লেখাপড়ার মাঝে থাকলে নিয়মিতভাবে সাধ্যমতো সাহায্য-সহযোগিতা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

ময়নার মামাতো ভাই সোহেল বিশ্বাস জানান, দৈনিকশিক্ষা ডটকমে রিপোর্ট প্রকাশের পর বিভিন্নভাবে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে অনেকেই ঢাকা, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে যোগাযোগ করেছেন। ময়না-রাজ্জাকের খোঁজ-খবর জানতে চেয়েছেন। কেউ কেউ বৃদ্ধ নানা-নানীসহ ওদের সঙ্গে কথাও বলেছেন। এর মধ্যে সুলতানা জান্নাত নামে ঢাকার বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের একজন কর্মকর্তা পরিচয়ে খোঁজ নিয়ে নিশ্চিত হয়ে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আগ্রহ জানিয়েছেন ওদের সব দায়-দায়িত্ব নিতে। সাংবাদিক পরিচয়ে খোঁজ-খবর নিতে ছুটে এসেছেন অনেকে। আবার জেলা প্রশাসক দেখা করতে বলেছেন এমনটি জানিয়ে নির্ধারিত স্থানে হাজির হওয়ার জন্য মোবাইল ফোনে কলও করেছেন কয়েকবার। তবে এপর্যন্ত নিয়মিত আর্থিক সহযোগিতা দেয়া শুরু করেছেন একমাত্র শাকিল মাহমুদ।  


 
ময়নার মামাতো বোন স্থানীয় পৌর সদরের ইঞ্জিনিয়ার ফারুক তালুকদার মহিলা কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী মিশু আক্তার জানান, দৈনিক শিক্ষার প্রতিবেদন দেখে নাম প্রকাশ না করার শর্তে পাশ্ববর্তী বড়ডালিমা গ্রামের অপর একজন ময়নার পরীক্ষার কলম-পেন্সিল কিনতে ও রাজ্জাকের অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার ফি দিতে ৮০০ টাকা পাঠিয়েছেন।

ময়নার বয়স নয় বছর। ভাই রাজ্জাক তিন বছরের বড়। ময়নার বয়স যখন দেড় বছর তখন মারা যান বাবা ইসহাক আকন। বছর খানেক আগে দ্বিতীয় বিয়েতে সম্মত হয়ে পাশের গ্রামের একজনের হাত ধরে সটকে পড়েন মা ফজিলাতুন নেছা। স্বাভাবিক উচ্ছলতা হারিয়ে ফেলা নানা-নানীর অভাবী পরিবারের আয়ের সহযোগী হয়ে পড়ালেখার সংগ্রামে লিপ্ত তারা দুই ভাইবোন।

প্রাথমিকে অতিরিক্ত ২০ শতাংশ শিক্ষক নিয়োগের চিন্তা - dainik shiksha প্রাথমিকে অতিরিক্ত ২০ শতাংশ শিক্ষক নিয়োগের চিন্তা প্রাথমিকের ১২ শিক্ষা কর্মকর্তার বদলি - dainik shiksha প্রাথমিকের ১২ শিক্ষা কর্মকর্তার বদলি এক এমপিওভুক্ত শিক্ষকের চার প্রতিষ্ঠানে চাকরি! - dainik shiksha এক এমপিওভুক্ত শিক্ষকের চার প্রতিষ্ঠানে চাকরি! শোক দিবস পালনে সরকারি বরাদ্দের টাকা পায়নি ১১০ স্কুল - dainik shiksha শোক দিবস পালনে সরকারি বরাদ্দের টাকা পায়নি ১১০ স্কুল সরকারিকরণ করলে সরকারেরই লাভ : শাব্বীর মোমতাজী (ভিডিও) - dainik shiksha সরকারিকরণ করলে সরকারেরই লাভ : শাব্বীর মোমতাজী (ভিডিও) ম্যানেজিং কমিটি প্রবিধানমালা সংশোধনের সিদ্ধান্ত ২২ আগস্ট - dainik shiksha ম্যানেজিং কমিটি প্রবিধানমালা সংশোধনের সিদ্ধান্ত ২২ আগস্ট কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে ঢাবিতে ১ম বর্ষ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha ঢাবিতে ১ম বর্ষ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website