ধর্ষণ মামলায় মাদরাসা সুপার গ্রেফতার - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

ধর্ষণ মামলায় মাদরাসা সুপার গ্রেফতার

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

বাগেরহাটের শরণখোলায় ছাত্রীকে ধর্ষণ ঘটনায় অভিযুক্ত মাদরাসা সুপারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা দায়েরের ২ মাস পর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) তাকে গ্রেফতার করে। যশোরের ঝিকরগাছায় প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রিযাপন করতে গিয়ে গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়ে কাগমারি দাখিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক। নোয়াখালীর চাটখিলে মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে চাচাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় গণধর্ষণ মামলার দ্বিতীয় আসামিকে গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিচে এ সম্পর্কে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

শরণখোলা (বাগেরহাট) : উপজেলায় এক ছাত্রীকে ধর্ষণ ঘটনায় অভিযুক্ত মাদরাসা সুপার ইলিয়াস হোসেন জোমাদ্দারকে (৪৮) গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা দায়েরের ২ মাস পর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক জীবনযাপন করছিলেন। জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার কাটাখালী এলাকা থেকে ইলিয়াস হোসেন জোমাদ্দারকে আটক করা হয়। একটি যাত্রীবাহী বাস তল্লাশি করে তাকে আটক করে পিবিআই। ইলিয়াস হোসেন জোমাদ্দার শরণখোলা উপজেলার খোন্তকাটা রশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসার সুপার। তিনি পূর্ব রাজাপুর গ্রামের আব্দুল গাফ্ফারের ছেলে। তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে ওই মাদরাসায় চাকরি করছেন। গত ৮ আগস্ট সেখানে লাইব্রেরি রুমে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে ১৯ আগস্ট ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শরণখোলা থানায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী (১১) ইলিয়াস হোসেন জোমাদ্দারের কাছে কুরআন শিক্ষা নিচ্ছিল। ৮ আগস্ট সকালে ইলিয়াস তাকে লাইব্রেরিতে ডেকে নেন। এরপর দরজা-জানালা বন্ধ করে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনা কাউকে জানালে হত্যার হুমকি দেয় ইলিয়াস। বাড়িতে পৌঁছে ছাত্রীটি ঘটনা জানায় তার মাকে। তখন ভয় দেখিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে ইলিয়াস। তারপর মামলা হলে পালিয়ে যায়।

বাগেরহাটে পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক জানান, পিবিআই ধর্ষণ মামলাটির তদন্তে নেমেছে ১৪ সেপ্টেম্বর। এরপর কয়েকদিন চলে অনুসন্ধান। পলাতক আসামি ইলিয়াস দ্রুত স্থান পরিবর্তন করতে থাকে। বৃহস্পতিবার বাগেরহাট থেকে অন্যত্র পালিয়ে যাচ্ছিল। বিষয়টি জানতে পেরে কাটাখালী এলাকায় বাসে তল্লাশি চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পিবিআই কার্যালয়ে রেখে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ঝিকরগাছা (যশোর) : জেলার ঝিকরগাছা উপজেলায় প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রিযাপন করতে গিয়ে গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়ে কাগমারি দাখিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক মাওলানা আব্দুল্লাহ আল মামুন যশোরী। ঘটনাটি ঘটেছে, গত বুধবার গভীর রাতে উপজেলার ডহরমাগুরা গ্রামে। মাওলানা যশোরী উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউপির কাগমারি গ্রামের মৃত তফসির আলীর ছেলে। তিনি বিভিন্ন স্থানে মাওলানা যশোরী নামে ওয়াজ মাহফিলে বক্তব্য রাখেন।

গ্রামবাসীরা জানান, বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে একটি মোটরসাইকেলযোগে মাওলানা যশোরী ডহরমাগুরা কাউন্সিল এলাকার একটি মসজিদে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি রেখে গোপনে প্রবাসী শফিয়ার রহমানের স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী সাজেদা খাতুনের ঘরে ঢুকেন। জানতে পেরে রাত ৩টার দিকে গ্রামবাসী উভয়কে ওই ঘর থেকে আটক করে। এ সময় গ্রামবাসী উভয়কে মারপিট করে আটকে রাখে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়রা আব্দুল্লাহ আল মামুন ও প্রবাসীর স্ত্রীকে মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদে হাজির করেন। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোসলেম আলী মৃধা, পার্শ্ববর্তী গঙ্গানন্দপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আমিনুর রহমানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সালিশি বৈঠকে বসেন। বৈঠকে মাওলানা যশোরী ও প্রবাসীর স্ত্রী উভয়ই তাদের দোষ স্বীকার করে মুচলেকা দেন। মাওলানা যশোরীর মতো একজন মানুষের এ রকম কাজে এলাকায় ছি ছি রব উঠেছে।

নোয়াখালী : জেলার চাটখিল উপজেলার বদলকোর্ট ইউনিয়নে মাদরাসাছাত্রীকে (১২) ধর্ষণের অভিযোগে চাচাকে (৬০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিযুক্ত সেলিমকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে এবং আদালতে ভিকটিমের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে বুধবার রাতে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক চাচাকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত চাচা বদলকোর্ট ২নং ওয়ার্ড মেঘা গ্রামের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার দুপুরে পরিবারের লোকজন পার্শ্ববর্তী বাড়িতে ধান রোদে দিতে গেলে স্থানীয় বদলকোর্ট মহিলা মাদরাসারছাত্রী তাদের ঘরে একা ছিল। এ সুযোগে ভিকটিমের চাচা তাদের ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। বাড়ির লোকজন তাদের ঘরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ভেতর থেকে ধ্বস্তাধ্বস্তির শব্দ শুনতে পেয়ে ঘরের দরজা ধাক্কা দিয়ে খুললে ধর্ষক পালিয়ে যায়।

ভিকটিমের বাবা অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার পর থেকে ধর্ষক ও তার ছেলেসহ কয়েক জন তাদের হুমকি দিয়ে আসছে। তাই ভয়ে তিনি এতদিন মামলা করতে পারেননি।

চাটখিল থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার অপর আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) : উপজেলায় গণধর্ষণ মামলার দ্বিতীয় আসামি ফারুক মিয়াকে (২৭) গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ফারুক মিয়া দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিল। গত বুধবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার গণধর্ষণ মামলার ওই আসামিকে আাদালতে পাঠানো হয়েছে। সে কৈয়ারচালা গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে। উল্লেখ্য, ৩ আগস্ট উপজেলার আছিম কুটিরা এলাকায় এক কিশোরীকে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে ৩ যুবক। ৪ আগস্ট তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করে ওই কিশোরী। পরে রাতে ফুলবাড়িয়ার কালাদহ ঈদগাহর সামনে ধর্ষণকারীরা অবস্থান করছে- এমন সংবাদে অভিযানে যায় ডিবি পুলিশ। জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে গণধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি জহিরুল ইসলাম (২০) মারা যায়।

স্নাতক ছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি নয়: প্রজ্ঞাপন জারি - dainik shiksha স্নাতক ছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি নয়: প্রজ্ঞাপন জারি নবসৃষ্ট পদে এমপিও জটিলতা নিয়ে যা বললেন শিক্ষকরা (ভিডিও) - dainik shiksha নবসৃষ্ট পদে এমপিও জটিলতা নিয়ে যা বললেন শিক্ষকরা (ভিডিও) জেএসসি-জেডিসির ১২ নভেম্বরের পরীক্ষাও স্থগিত - dainik shiksha জেএসসি-জেডিসির ১২ নভেম্বরের পরীক্ষাও স্থগিত অনার্স ২য় বর্ষ পরীক্ষার সংশোধিত সূচি - dainik shiksha অনার্স ২য় বর্ষ পরীক্ষার সংশোধিত সূচি এমপিওভুক্তি : ভুল প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রস্তুত - dainik shiksha এমপিওভুক্তি : ভুল প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রস্তুত অতিরিক্ত ক্লাসের নামে স্কুল কক্ষেই চলে কোচিং - dainik shiksha অতিরিক্ত ক্লাসের নামে স্কুল কক্ষেই চলে কোচিং ভোকেশনাল সমাপনী পরীক্ষার সংশোধিত সূচি - dainik shiksha ভোকেশনাল সমাপনী পরীক্ষার সংশোধিত সূচি আলিমের সিলেবাস ও মানবণ্টন দেখুন - dainik shiksha আলিমের সিলেবাস ও মানবণ্টন দেখুন শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website