নিরবাস ইসলামের ব্যাপারে তদন্ত করবে মালয়েশিয়া - ইংলিশ মিডিয়াম - Dainikshiksha

নিরবাস ইসলামের ব্যাপারে তদন্ত করবে মালয়েশিয়া

দৈনিক শিক্ষা ডেস্ক |

2016_07_03_03_29_49_1pibQKARRUMUG0JiPIqwOY51QfNfkV_original

গুলশানের রেস্তোরাঁয় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত পাঁচ জঙ্গির মধ্যে একজন নিরবাস ইসলাম মালয়েশিয়ার মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। তাঁর ব্যাপারে দেশটির উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয় তদন্ত করবে। গতকাল সোমবার দেশটির ‘দ্য স্টার’ পত্রিকার এক খবরে এ কথা বলা হয়েছে।

গত শুক্রবার গুলশানের রেস্তোরাঁয় জিম্মি উদ্ধার অভিযানে নিহত সন্দেহভাজন হামলাকারীর একজন নিরবাস ইসলাম। তিনি মালয়েশিয়ার মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের মালয়েশিয়া ক্যাম্পাসের ছাত্র হলেও দীর্ঘদিন ধরে ঢাকাতেই অবস্থান করেছেন।

গতকাল সোমবার মালয়েশিয়ার উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে তারা জেনেছে ঢাকার রেস্তোরাঁয় সন্ত্রাসী হামলায় ঘটনায় অভিযুক্ত একজন বা একাধিক অপরাধী বিভিন্ন সময়ে মালয়েশিয়ায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয় এই গুরুতর ব্যাপারটি বিবেচনায় নিয়েছে। সেই সঙ্গে এ ঘটনায় তারা তদন্ত করবে।’

মালয়েশিয়ার মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র সুশীলা নাইর এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এক ছুটির দিনে আমরা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জানতে পারি বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত অপরাধীদের মধ্যে দু-একজন আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। পাশাপাশি অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুলেও পড়েছেন। এটা জানার পর আমরা সচেতন হয়ে উঠি।’

সুশীলা নাইর আরও বলেন, ওই সন্ত্রাসী হামলায় আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জড়িত থাকার ব্যাপারে সরকারিভাবে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়নি। শুধু গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আমরা এ ব্যাপারে তথ্য পাচ্ছি। গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মালয়েশিয়ার উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের এক বৈঠক হয়েছে। তিনি বলেন, ঢাকায় ওই জঙ্গি হামলায় অবশ্যই গভীরভাবে ব্যথিত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বাংলাদেশকে তদন্তের ব্যাপারে পূর্ণ সহযোগিতা করা হবে। যদি এ ব্যাপারে আরও তথ্য পাওয়া যায়, তবে মোনাশ মালয়েশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশকে হালনাগাদ তথ্য প্রদান করবে।

এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ - dainik shiksha এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষার ফল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ ১ জুলাই থেকে পাঁচ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট কার্যকরের আদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের - dainik shiksha ১ জুলাই থেকে পাঁচ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট কার্যকরের আদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিজয় দিবসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার নির্দেশ - dainik shiksha বিজয় দিবসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার নির্দেশ স্ত্রীর মৃত্যুতে আজীবন পেনশন পাবেন স্বামী - dainik shiksha স্ত্রীর মৃত্যুতে আজীবন পেনশন পাবেন স্বামী বদলে যাচ্ছে বাংলা বর্ষপঞ্জি - dainik shiksha বদলে যাচ্ছে বাংলা বর্ষপঞ্জি ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা - dainik shiksha ২০ হাজার টাকায় শিক্ষক নিবন্ধন সনদ বিক্রি করতেন তারা অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ - dainik shiksha অকৃতকার্য ছাত্রীকে ফের পরীক্ষায় বসতে দেয়ার নির্দেশ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু - dainik shiksha আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি - dainik shiksha নির্বাচনের সঙ্গে পেছাল সরকারি স্কুলের ভর্তি শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! - dainik shiksha শিক্ষকদের অন্ধকারে রেখে দেড় লাখ কোটি টাকার প্রকল্প! দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষায় বিজ্ঞাপন পাঠান ইমেইলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website