নিয়মিত পাঠদানের দাবিতে মাদ্রাসায় তালা - মাদরাসা - Dainikshiksha

নিয়মিত পাঠদানের দাবিতে মাদ্রাসায় তালা

শেরপুর প্রতিনিধি |

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নিশ্চিন্তপুর আলিম মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা নিয়মিত পাঠদানের দাবিতে সব কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। গতকাল শনিবার এ ঘটনা ঘটে।

মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক সূত্রে জানা গেছে, ১৯৬১ সালে উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে নিশ্চিন্তপুর আলিম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করা হয়। প্রথম শ্রেণি থেকে আলিম (উচ্চমাধ্যমিক) পর্যন্ত শিক্ষার্থী রয়েছে ৪০০ জন। এদের পাঠদানের জন্য শিক্ষক রয়েছেন ১৯ জন। এক বছর ধরে অধ্যক্ষ মাদ্রাসায় নিয়মিত উপস্থিত হন না। এ কারণে শিক্ষকেরা নিয়মিত পাঠদানে অনীহা প্রকাশ করেন। এতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছিল।

 শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষকে একাধিকবার বিষয়টি জানালেও তাতে কোনো কাজ হয়নি। এর প্রতিবাদে এবং নিয়মিত পাঠদানের ব্যবস্থা করার দাবিতে শিক্ষার্থীরা সকাল সাড়ে নয়টায় মাদ্রাসার সব কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়। দুপুর ১২টায় বিষয়টি নিয়ে অধ্যক্ষ অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করেন। কাল থেকে নিয়মিত পাঠদানের প্রতিশ্রুতি দিলে শিক্ষার্থীরা সব কক্ষের তালা খুলে নেয়।

আলিম প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী উলফাতুন নেছা বলে, এক বছর ধরে প্রিন্সিপাল স্যার নিয়মিত মাদ্রাসায় আসেন না। তাই শিক্ষকেরাও ঠিকমতো ক্লাস করান না। বিষয়টি প্রিন্সিপাল স্যারকে জানানো হয়েছে। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। এতে লেখাপড়ায় দারুণ সমস্যা হচ্ছে। এর প্রতিবাদে ক্লাসরুমে তালা ঝোলানো হয়েছে।

আলিম প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী নুরে আলো বলে, ‘এক বছর ধরে মাদ্রাসায় ঠিকমতো ক্লাস হয় না। এতে পাঠদান ব্যাহত হয়। সামনে পরীক্ষা এভাবে চলতে থাকলে মাদ্রাসার সব শিক্ষার্থী খারাপ রেজাল্ট করবে। এ জন্য আমরা ক্লাসে তালা ঝুলিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছি।’

অধ্যক্ষ পোহাতে আলী বলেন, ‘কিছু সমস্যা ছিল। অভিভাবক ও শিক্ষকদের নিয়ে আলোচনা করেছি। কাল থেকে যথাসময়ে সব শিক্ষক উপস্থিত থাকবেন এবং শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পাঠদান করানো হবে। আশাকরি পরে আর কোনো সমস্যা হবে না।’

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর কবির বলেন, ‘বিষয়টি কেউ আমাকে জানাননি। দ্রুত জেনে মাদ্রাসার নিয়মিত পাঠদানের জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যান: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার - dainik shiksha অর্ধাক্ষর শিক্ষকরা সিকিঅক্ষর শিক্ষার্থী তৈরি করছেন: যতীন সরকার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে যা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন ২০ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website