পদের অনৈতিক ব্যবহারে বিসিএস শিক্ষা সমিতির নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা! - বিসিএস - দৈনিকশিক্ষা

পদের অনৈতিক ব্যবহারে বিসিএস শিক্ষা সমিতির নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা!

নিজস্ব প্রতিবেদক |

পরিচালক-উপপরিচালকসহ বিভিন্ন পদের অনৈতিক ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের কয়েকজন বিতর্কিত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি বিলুপ্ত হলেও সমিতির ব্যানারে সভা ডেকে অনৈতিক কাজ করে চলছেন। অনৈতিক কাজে অভিযুক্তরা কোটি কোটি টাকা কামিয়ে শিক্ষা ক্যাডারে চিরস্থায়ী বিশৃঙ্খলা তৈরি করে যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়ে যাওয়া মন্মথ বাড়ৈ সিন্ডিকেটের সদস্য। সিন্ডিকেট প্রধান বাড়ৈ গত ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেয়। সিন্ডিকেটের সদস্যরা নতুন রত্ন নিয়ে নতুন চেহারায় শিক্ষা প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি পদ দখল করে নতুন বছরে। দখলের পরপরই তারা পদের অপব্যবহার শুরু করেছেন। সর্বশেষ তারা বিলুপ্ত বিসিএস শিক্ষা সমিতির ব্যানার ব্যবহার করে সভা আহ্বান এবং সফল করতে চাপ প্রয়োগ করছেন কর্মকর্তাদের।   

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির সাবেক কয়েকজন নেতা দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, সম্প্রতি সিলেট ও বগুড়ায় এমন দুটি সভা ডাকা হয়েছে। এতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন শিক্ষা ক্যাডারের কয়েকজন অধ্যক্ষসহ সিনিয়র-জুনিয়র হাজার হাজার সদস্য। সিলেট ও বগুড়ার বিভিন্ন সরকারি কলেজ অধ্যক্ষদের বাধ্য করা হয়েছে বিতর্কিতদের ডাকা সভায় যোগ দিতে। সংক্ষুব্ধ সদস্যরা ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে সমালোচনা করছেন। 

অধিদপ্তরের পদ-পদবীর অনৈতিক ও অপব্যবহারে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে শিক্ষাজীবনের শিবির অথবা ছাত্রদলের রাজনীতি, চাকরি জীবনে ঢাকা বোর্ডের ৮০ কোটি টাকা বিতর্কিত বেসিক ব্যাংকে রাখা, শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে না জানিয় শত শত স্কুল-কলেজের অনুমতি ও জিপিএ ফাইভ বিক্রি, নিজ কন্যার জেএসসির ফল পাল্টে জিপিএ ফাইভ করা, বউ পিটিয়ে মারা, বউ পিটিয়ে জেল খাটা, পাঁচ তারকা হোটেলে মাস্তিশেষে মাতাল অবস্থায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের সাথে গোলাগুলিতে লিপ্ত হয়ে গুলিবিদ্ধ হওয়া, আন্ত:বোর্ড ক্রীড়া প্রতিযোগীতা উপলক্ষ্যে ঢাকা বোর্ডের স্মরনিকায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা ভুলভাবে উপস্থাপন করা এবং ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগে লাখ লাখ টাকা কামানোর অভিযোগ রয়েছে।   

বাড়ৈ সিন্ডিকেট সদস্যদের সর্বশেষ অপকর্মের মধ্যে মহাপরিচালকের কক্ষে মিছিল করিয়ে, তোপের মুখে রেখে নির্লিপ্তভাবে কান চুলকানো রয়েছে।  

বিলুপ্ত সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ক্যাডারের মুরুব্বী মহাপরিচালকের নির্দেশ মেনে চলতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।   

ঘুষের অর্ধকোটি টাকা নিয়ে শিক্ষা অফিসার-শিক্ষক নেতাদের পাল্টাপাল্টি - dainik shiksha ঘুষের অর্ধকোটি টাকা নিয়ে শিক্ষা অফিসার-শিক্ষক নেতাদের পাল্টাপাল্টি পরীক্ষা কার্যক্রমের সময় কমিয়েছে পিএসসি - dainik shiksha পরীক্ষা কার্যক্রমের সময় কমিয়েছে পিএসসি মন্ত্রিসভায় আসতে পারে নতুন মুখ - dainik shiksha মন্ত্রিসভায় আসতে পারে নতুন মুখ পিএসসির নতুন চেয়ারম্যান সোহরাব হোসাইন - dainik shiksha পিএসসির নতুন চেয়ারম্যান সোহরাব হোসাইন বৈষম্যমুক্ত শিক্ষা হোক মহান শিক্ষা দিবসের অঙ্গীকার - dainik shiksha বৈষম্যমুক্ত শিক্ষা হোক মহান শিক্ষা দিবসের অঙ্গীকার কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা পেনশন স্কিমে বিনিয়োগের সুযোগ চান শিক্ষকরা - dainik shiksha কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা পেনশন স্কিমে বিনিয়োগের সুযোগ চান শিক্ষকরা এমপিওভুক্ত হচ্ছেন দুই হাজারের বেশি শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন দুই হাজারের বেশি শিক্ষক please click here to view dainikshiksha website