পদোন্নতি পাচ্ছেন মাধ্যমিকের ৫০ শতাংশ শিক্ষক - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

পদোন্নতি পাচ্ছেন মাধ্যমিকের ৫০ শতাংশ শিক্ষক

রুম্মান তূর্য |

পদোন্নতি পাচ্ছেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ শতাংশ শিক্ষক। নতুন নিয়োগ বিধিমালা অনুযায়ী সৃষ্ট সিনিয়র শিক্ষক পদে এসব শিক্ষককে পদোন্নতি দেয়া হবে। বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষকের ৫০ শতাংশ শিক্ষককে সিনিয়র শিক্ষক হিসেবে পদোন্নতি দেয়া হবে বলে দৈনিক শিক্ষাকে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র।

সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত সহকারী শিক্ষকদের পদোন্নতি দেয়ার কার্যক্রম ইতিমধ্যে শুরু করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শিক্ষকদের কাগজ পত্র চাওয়া হয়েছে। অধিদপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি সব আঞ্চলিক উপপরিচালকদের কাছে পাঠানো হয়েছে।  

চিঠিতে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত সহকারী শিক্ষকদের সিনিয়র শিক্ষক পদে পদোন্নতি প্রদানের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আগামী ১৫ অক্টোবরের মধ্যে বিশেষ বাহক মারফত অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে।

আগামী ৩১ অক্টোবর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের যেসব সহকারী শিক্ষকের চাকরির ৮ বছর পূর্তি হবে তাদের হিসাবরক্ষণ অফিস প্রদত্ত চাকরির বিবরণী, নিয়োগপত্র, আত্তীকরণ আদেশ, স্থায়ীকরণ আদেশ, নিয়মিতকরণ আদেশ, যোগদান পত্রের সত্যায়িত কপি, প্রতিষ্ঠান প্রধানের দেওয়া মামলা সংক্রান্ত প্রত্যয়ন পত্র এবং চাকরির ধারাবাহিকতা ও চাকরিকালের সন্তোষজনক প্রত্যয়ন পত্র অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া এসব শিক্ষকের বিএড পাস সনদের সত্যায়িত কপি এবং বিগত ৫বছরের বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদনও অধিদপ্তরে পাঠাতে আঞ্চলিক উপপরিচালকদের বলা হয়েছে।   

অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, সারাদেশে ৪৯৩টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে পুরাতন ৩৩৩টি এবং ১২টি মডেল বিদ্যালয়সহ সরকারিকরণ হওয়া ১৩০টি বিদ্যালয় রয়েছে। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের নিয়োগ বিধিমালা না থাকায় গত আট বছর ধরে পদোন্নতি কার্যক্রম স্থগিত হয়ে পড়ে।

চাকরিবিধি অনুযায়ী, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রথম শ্রেণি এবং সহকারী শিক্ষকদের পদমর্যাদা দ্বিতীয় শ্রেণির হওয়ায় সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) আওতাভুক্ত হয়ে যায়। এতে নিয়োগ ও পদোন্নতি কার্যক্রম আটকে পড়ে। পরে পিএসসির সহায়তায় এ স্তরের শিক্ষকদের জন্য একটি নিয়োগ বিধিমালা চূড়ান্ত করা হয়।

মাধ্যমিকের শিক্ষকরা কবে নাগাদ পদোন্নতি পাবেন জানতে চাইলে অধিদপ্তরের মাধ্যমিক শাখার পরিচালক অধ্যাপক ড.মো: আবদুল মান্নান দৈনিক শিক্ষাকে বলেন, নতুন বিধিমালা অনুযায়ী সিনিয়র শিক্ষক পদে পদোন্নতির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিপুল সংখ্যক শিক্ষকের কাগজপত্র চাওয়া হয়েছে। তাদের কাগজপত্র যাচাই বাছাই ও পর্যালোচনার ব্যাপার আছে। তবে দ্রুততম সময়ে এ প্রক্রিয়া শেষ করতে আমরা কাজ করছি।

রিফাত হত্যা মামলা : মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি, খালাস ৪ - dainik shiksha রিফাত হত্যা মামলা : মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি, খালাস ৪ টাইমস্কেল পাওয়া অধিগ্রহণকৃত স্কুল শিক্ষকদের টাকা ফেরত নেয়ার কাজ শুরু - dainik shiksha টাইমস্কেল পাওয়া অধিগ্রহণকৃত স্কুল শিক্ষকদের টাকা ফেরত নেয়ার কাজ শুরু বিনা প্রয়োজনে কলেজ ক্যাম্পাসে জনসাধারণের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি - dainik shiksha বিনা প্রয়োজনে কলেজ ক্যাম্পাসে জনসাধারণের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান - dainik shiksha ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভ্যাট ফাঁকি, গোয়েন্দাদের অভিযান কোচিং ও পরীক্ষা নিয়ে সাংবাদিকদের যা জানাল মন্ত্রণালয় - dainik shiksha কোচিং ও পরীক্ষা নিয়ে সাংবাদিকদের যা জানাল মন্ত্রণালয় এইচএসসি পরীক্ষা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে টেকনিক্যাল কমিটি কাজ করছে - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে টেকনিক্যাল কমিটি কাজ করছে জাল নিবন্ধন সনদে এমপিওভুক্তি : প্রভাষক-অধ্যক্ষের বেতন বন্ধ - dainik shiksha জাল নিবন্ধন সনদে এমপিওভুক্তি : প্রভাষক-অধ্যক্ষের বেতন বন্ধ ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! - dainik shiksha জালসনদেই ৭ বছর এমপিওভোগ! কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি - dainik shiksha কবে কোন দিবস, কীভাবে পালন, নতুন নির্দেশনা জারি please click here to view dainikshiksha website