পরীক্ষার হলে ২০ ছাত্রের চুল ছেঁটে দিলেন অধ্যক্ষ - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

পরীক্ষার হলে ২০ ছাত্রের চুল ছেঁটে দিলেন অধ্যক্ষ

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি |

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় পরীক্ষার হলে ঢুকে ২০ ছাত্রের চুল ছেঁটে দিলেন মাদরাসা অধ্যক্ষ। এ ঘটনায় পরীক্ষার হল ত্যাগ করে প্রতিবাদ জানান শিক্ষার্থীরা। পরবর্তী সময়ে শিক্ষকদের মধ্যস্থতায় শিক্ষার্থীরা হলে ঢুকে পরীক্ষা দেয়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। গত বুধবার (১৭ অক্টোবর) কোটালীপাড়ার কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাযিল মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটে। 

মাদরাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইয়ামিন শিকদার, মাহামুদুল হাসান, ইয়াসিন শেখ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘গত বুধবার তাদের বাংলা ১ম পত্রের পরীক্ষা চলছিল। এ সময় হঠাৎ করে অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসাইন কাঁচি দিয়ে ২০ ছাত্রের মাথার চুল ছেঁটে দেয়। এসময় শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা না দিয়ে হল থেকে বেরিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে মাদরাসার অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যস্থতায় শিক্ষার্থীরা তাদের পরীক্ষা শেষ করে।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘বাংলা পরীক্ষার ২ ঘণ্টা পড়ার পর হঠাৎ করে হুজুর আমাদের হলে ঢুকে সব ছাত্রের চুল ছেঁটে দেয়। এ ঘটনার পর আমরা পরীক্ষা না দিয়ে বেরিয়ে আসার পরে আমাদেরকে দাখিল পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে দেয়া হবে না বলে হুমকি দেয়া হয়। পরে আমরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করি।’

প্রতিষ্ঠানটির  অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, `আমি দাখিল শ্রেণির সব ছাত্রকে পরীক্ষার আগের দিন চুল ছেঁটে মাদরাসায় আসতে বলেছি। ছাত্ররা আমার কথার অবাধ্য হওয়ার কারণে ওদের চুল ছেঁটে দিয়েছি। তবে আমি কাউকে ফরম পূরণ করতে দিবো না এ কথা বলিনি। শিক্ষার্থীদের পরিচ্ছন্ন থাকা ও নৈতিক শিক্ষা দেয়ার জন্যই এ কাজ করেছি। তবে কাউকে ফরম পূরণ করতে দেবো না, এ কথা বলিনি।’ 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে বিধি মোতাবেক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দেয়াল ঘেঁষে তৈরি করা মার্কেট অপসারণের নির্দেশ - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দেয়াল ঘেঁষে তৈরি করা মার্কেট অপসারণের নির্দেশ নীতিমালা সংশোধন কমিটির দ্বিতীয় সভায় এমপিওভুক্তির শর্ত নিয়ে আলোচনা - dainik shiksha নীতিমালা সংশোধন কমিটির দ্বিতীয় সভায় এমপিওভুক্তির শর্ত নিয়ে আলোচনা এমপিও পুনর্বিবেচনা কমিটির সভা ১৫ ডিসেম্বর - dainik shiksha এমপিও পুনর্বিবেচনা কমিটির সভা ১৫ ডিসেম্বর সমাপনী পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের দায়ে ৩ শিক্ষক বরখাস্ত - dainik shiksha সমাপনী পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের দায়ে ৩ শিক্ষক বরখাস্ত ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিটি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজে খোঁজ রাখেন’ - dainik shiksha ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিটি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজে খোঁজ রাখেন’ এইচএসসি-আলিমের ফরম পূরণ শুরু - dainik shiksha এইচএসসি-আলিমের ফরম পূরণ শুরু জেএসসি-জেডিসির ফল ৩১ ডিসেম্বর - dainik shiksha জেএসসি-জেডিসির ফল ৩১ ডিসেম্বর লিফলেট ছড়িয়ে সরকারি স্কুল শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য, ভর্তির গ্যারান্টি! - dainik shiksha লিফলেট ছড়িয়ে সরকারি স্কুল শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য, ভর্তির গ্যারান্টি! এমপিওভুক্তিতে কর্তৃত্ব কমলো ডিডিদের, বাড়লো শিক্ষা ক্যাডারের - dainik shiksha এমপিওভুক্তিতে কর্তৃত্ব কমলো ডিডিদের, বাড়লো শিক্ষা ক্যাডারের শিক্ষামন্ত্রীকে লেখা এমপিদের চিঠিতে এমপিও কেলেঙ্কারি - dainik shiksha শিক্ষামন্ত্রীকে লেখা এমপিদের চিঠিতে এমপিও কেলেঙ্কারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনীর ফল বছরের শেষ দিনে - dainik shiksha প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনীর ফল বছরের শেষ দিনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় - dainik shiksha দৈনিকশিক্ষার ফেসবুক লাইভ দেখতে আমাদের সাথে থাকুন প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টায় শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার আসল ফেসবুক পেজে লাইক দিন please click here to view dainikshiksha website