পাবিপ্রবিতে জামায়াতপন্থী শিক্ষকের খাস কামরায় যৌন হয়রানি - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

পাবিপ্রবিতে জামায়াতপন্থী শিক্ষকের খাস কামরায় যৌন হয়রানি

পাবিপ্রবি প্রতিনিধি |

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান জামায়াতপন্থী শিক্ষক ড. কামরুজ্জামানের কার্যালয়ে খাসকামরা আবিষ্কার ও যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা।

উভয়পক্ষ ক্যাম্পাসে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী পালন করছে। রবিবার দুপুর ১২টার দিকে ক্যাম্পাসে ওই শিক্ষকের পক্ষে কিছু শিক্ষক ও কর্মকর্তা মানববন্ধন করেছেন। অপরপক্ষে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সকালে বিশ্ববিদ্যালয় মূলফটক বন্ধ করে যৌন নিপীড়ক শিক্ষকের বিচার দাবিতে অবস্থান নিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকান্ড অচল হয়ে যায়। আবার খাস কামরার হোতা শিক্ষকের পক্ষে ভিসির অবস্থান নেয়াকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে চরম আলোচনা সমালোচনা চলছে।

জানা গেছে, রবিবার ১২টার দিকে ড. কামরুজ্জামানের পক্ষে ক্যাম্পাসে খাস কামরার ঘটনা নিয়ে কিছু শিক্ষক কর্মকর্তা মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে মানববন্ধন করে। এর আগেই শিক্ষার্থীরা ওই শিক্ষকের বিচার দাবিতে তদন্ত কমিটি গঠন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল প্রশাসনিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে ছাত্র ধর্মঘট শুরু করে।

সকালেই বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধানফটক বন্ধ করে দিলে শিক্ষা কার্যক্রম অচল হয়ে পড়ে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানান, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ড. কামরুজ্জামান বিভিন্ন সময়ে বিভাগের নারী শিক্ষার্থীদের প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে যৌন নির্যাতন চালায় ওই খাস কামরায়।

এ বিষয়টি ওপেন সিক্রেট হলেও সামাজিক সম্মান ও শিক্ষা জীবনের কথা ভেবে ভুক্তভোগীরা লিখিত অভিযোগ করতে সাহস পায়নি। শিক্ষার্থীরা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ ও সকল প্রশাসনিক কর্মকা- থেকে অব্যাহতি প্রদানের দাবি জানান। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষক জানান, ওই শিক্ষক জিয়া পরিষদের একজন নেতা সে নারী লোভীও বটে। তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগের পরও কি করে শিক্ষকতা করেন তা তাদের লজ্জায় ফেলেছে।

এ নিয়ে ক্যাম্পাস ও বাইরে চরম বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষকরা অবস্থান করছেন বলেও তারা জানান। পাবিপ্রবি ছাত্রলীগ সভাপতি মাহমুদ চৌধুরী আসিফ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ভাল ফলাফলের নিশ্চয়তা দিয়ে যৌন হয়রানির চেষ্টা করা মোটেও সমর্থনযোগ্য নয়। আমরাও খাস কামরার হোতা যৌননিপীড়ক জামায়াতপন্থী ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি ওই শিক্ষকের পক্ষে অবস্থান নেয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগও সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে সরাসরি অবস্থান নেবে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি ড. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, যৌন হয়রানির অভিযোগে অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের পক্ষে বিপক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বিভক্ত হয়ে পড়েছে, বিষয়টি সত্যিই কষ্টের।

আমি ভিসি স্যারের সঙ্গে বসে বিষয়টি সমাধানের কথা বলব। আমি নিজেও খাস কামরার বিষয়টি নিয়ে বিব্রত। এদিকে ভিসির সঙ্গে চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। উল্লেখ, গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যানের কক্ষে গোপন খাস কামরার সন্ধান পেয়ে বিক্ষোভ করে সাধারণ ছাত্ররা। পরে তাদের বিক্ষোভের মুখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ওই কামরা থেকে খাটসহ আসবাবপত্র বের করে দিতে বাধ্য হয়।

 

 

শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় - dainik shiksha শিক্ষা আইন যেন শুধু শিক্ষকদের শাসন করার জন্য না হয় হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ - dainik shiksha হঠাৎ রাজধানীর ৩ স্কুলে প্রতিমন্ত্রী, ৫ শিক্ষককে শোকজ ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের - dainik shiksha ১৩ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতির হুমকি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগের নীতিমালা প্রকাশ এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে - dainik shiksha কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কবে ভর্তি পরীক্ষা, এক নজরে শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন - dainik shiksha শিক্ষার এক্সক্লুসিভ ভিডিও দেখতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website