পুনঃভর্তির নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ - স্কুল - Dainikshiksha

পুনঃভর্তির নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

নোয়াখালী প্রতিনিধি |

নোয়াখালী জেলার চাটখিলে বর্তমানে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং মাদ্রাসাগুলোতে পুনঃভর্তির নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করার অভিযোগ রয়েছে। এতে করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। দরিদ্র শ্রেণির লোকজন তাদের ছেলেমেয়েদের ভর্তির টাকা জোগাড় করতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন।

জানা গেছে, চাটখিলে ৩২টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ২০টি মাদ্রাসা রয়েছে। বিদ্যালয়গুলোতে এখন ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ১০ম এবং মাদ্রাসাগুলোতে ৬ষ্ঠ থেকে দাখিল শ্রেণি পর্যন্ত পুনঃভর্তি চলছে। পুনঃভর্তির সময় এসকল বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা সেশন ফি, লাইব্রেরি ফি, মেরামত ফি, বিজ্ঞানাগার ফি, তথ্য ও প্রযুক্তি ফি, দরিদ্র ফি, প্রগ্রেস কার্ড ফি, স্কাউট ফি, রেড ক্রস ফি, মনিহারি ফি, বিবিধ, ক্রীড়া ফি, বিদ্যুত্ ফি, উন্নয়ন ফি, অনলাইন ফি-সহ বিভিন্ন খাত দেখিয়ে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে। এ ফি পর্যায়ক্রমে এবং শ্রেণিভেদে ৮শ থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত। পাল্লা মাহাবুব উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কয়েকজন অভিভাবক এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সরেজমিনে পাল্লা বাজারে গেলে দিনমজুর আমির হোসেন ও আব্দুল হক জানান, তাদের বর্তমানে কোনো কাজ নেই, বিদ্যালয়ে পুনঃভর্তিতে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করায় তারা তাদের ছেলেকে পুনঃভর্তি করাতে পারছেন না। মল্লিকা দিঘীরপাড়ের রিকশা চালক হোসেন আহম্মেদ জানান, তার মেয়ে শ্রীরায় মহিলা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। তিনিও তার মেয়েকে পুনঃভর্তি করাতে পারছেন না। অভিযোগকারীরা বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় প্রশাসন ও সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন। প্রতি বছরের শুরুতে বিদ্যালয় এবং মাদ্রাসাগুলোর পুনঃভর্তির সুযোগে বিভিন্ন খাতে লাখ লাখ টাকা আদায় করে থাকে।

পাল্লা মাহাবুব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমির হোসেন জানান, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই অর্থ আদায় করা হচ্ছে। অভিভাবকদের অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে তিনি জানান, এই ব্যাপারে করণীয় নির্ধারণ এবং ফি কমানোর জন্য কমিটি সভা আহ্বান করেছে। চাটখিল উপজেলা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মোনাজের রশিদ জানান, ভর্তির সময় বিদ্যালয়সমূহ বিদ্যালয়ের উন্নয়নসহ বিভিন্ন খাতে অর্থ আদায় করতে পারে। তবে এর সীমাবদ্ধতা রয়েছে।

একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু - dainik shiksha একাদশে ভর্তি: ২য় দফার আবেদন শুরু বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু - dainik shiksha বিসিএসেও তৃতীয় পরীক্ষক চালু ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো - dainik shiksha ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়লো জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস - dainik shiksha জিপিএ-৫ বিলুপ্তির পর যেভাবে হবে নতুন গ্রেড বিন্যাস পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষার গ্রেড: যা আছে আর যা হবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় কঠোর নজরদারির নির্দেশ গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন - dainik shiksha শিক্ষক নিবন্ধন: ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিষয়ের নতুন সিলেবাস দেখুন সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ - dainik shiksha সার্টিফিকেট ছাপার আগেই ২ কোটি টাকা তুলে নিলেন ছায়েফ উল্যাহ রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট - dainik shiksha রাজধানীর সকল ফার্মেসি থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ এক মাসের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে: হাইকোর্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া  - dainik shiksha please click here to view dainikshiksha website