please click here to view dainikshiksha website

প্রভাষকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি, স্ত্রীর স্বীকৃতি চান কলেজছাত্রী

কুমিল্লা প্রতিনিধি | আগস্ট ৪, ২০১৭ - ১১:৫৯ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

কুমিল্লায় এক প্রভাষকের সঙ্গে নিজের অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশ করে স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এক কলেজছাত্রী।

স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় সুমাইয়া খন্দকার বিথী নামে ওই কলেজছাত্রীকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

গত দেড় বছর আগে নগরীর হাউজিং এস্টেট এলাকার একটি বাসায় ডা. সাইফুল ইসলাম মজুমদার ওই ছাত্রীর সঙ্গে দাম্পত্য জীবন শুরু করেন। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ওই বাসা থেকে প্রভাষক সাইফুল উধাও হয়ে যান।

বিয়ের বিষয়টি অস্বীকার করায় স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে আদালতে মামলা করেন ওই ছাত্রী। মামলার পর থেকে ডা. সাইফুল ও তার লোকজনের হুমকির মুখে ওই ছাত্রীসহ তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর টমছমব্রিজ এলাকায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ও নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার জামাল খন্দকারের মেয়ে সুমাইয়া খন্দকার বিথী এসব অভিযোগ করেন।

লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে সেন্ট্রাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের প্রভাষক ডা. সাইফুল ইসলাম মজুমদারের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেম হয়।

পরবর্তীতে ওই বছরের ডিসেম্বর মাসে সুমাইয়াকে নিয়ে বাগেরহাটে যায় সাইফুল এবং সেখানে সাইফুলের বন্ধুদের পরিচিত এক কাজীর মাধ্যমে তাদের বিয়ে হয়। সেখানে স্থানীয় একটি আবাসিক হোটেলে চারদিন অবস্থান শেষে কুমিল্লায় ফিরে আসেন তারা।

পরে নগরীর হাউজিং এস্টেটের ৩ নং সেকশনের ফাইজা হাউজ নামের একটি বাড়িতে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করেন তারা। গত দেড় বছরে সুমাইয়াকে নিয়ে সাইফুল কুমিল্লা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন পর্যটন স্পটে আনন্দ ভ্রমণে ঘুরে বেরিয়েছেন।

পরবর্তীতে সুমাইয়া স্বামীর বাড়িতে যেতে চাইলে সাইফুল বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করেন। একপর্যায়ে সাইফুল ওই বাসায় সুমাইয়াকে রেখে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে কৌশলে উধাও হয়ে যান। বিষয়টি সুরাহার জন্য সুমাইয়া ও তার পরিবার সাইফুলের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করেও কোনো প্রতীকার পাননি।

এতে নিরূপায় হয়ে গত ৭ জুন কুমিল্লা নারী ও শিশু অপরাধ দমন আইনে একটি মামলা করেন সুমাইয়া। এদিকে ওই মামলার পর সাইফুল ও তার পরিবারের সদস্যরা তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে গত ৯ জুলাই কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। সুমাইয়া বলেন, গত ৩১ জুলাই আমার বাবাকে তালতলা চৌমুহনী নিয়ে ৫ লাখ টাকায় পুরো বিষয়টি মিটমাটসহ মামলাটি প্রত্যাহারের জন্য হুমকি দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাদের ভয়ে আমি এখন ঘর থেকে বের হওয়ার সাহস পাচ্ছি না। আমি টাকা-পয়সা চাই না, আমি সাইফুলের স্ত্রী হিসেবে জীবনের বাকি সময়টা কাটাতে চাই। আমি কোনোভাবেই তাকে ছাড়া বাঁচতে পারব না।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুমাইয়ার কলেজের সহপাঠী শাহিনুর রহমান, জোবায়েরুল হক নেপু, আবদুল আসাদ ও শাহিন আক্তার মুন্নী।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ডা. সাইফুল ইসলাম মজুমদার সাংবাদিকদের বলেন, নগরীর হাউজিং এস্টেটে বাসা ভাড়া করে সুমাইয়া থাকত। আমি মাঝে মাঝে সেখানে যেতাম। কিন্তু তাকে বিয়ে করিনি।

বাগেরহাটের বিনোদন স্পটে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের অনেকগুলো ছবি এবং সেখানে আবাসিক হোটেলে অবস্থানের রিসিট রয়েছে- এমন প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়ে সাইফুল ইসলাম বলেন, আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ৫৩টি

  1. মোঃরেজাউল করিম ইত্যা আদর্শ মাঃবিঃ মনিরামপুর,যশোর says:

    উপযুক্ত শাস্তি পেতে হবে নিঃসন্ধে ।

  2. জামাল হোসেন says:

    উনি ডাক্তার কিন্তুু তাকে ডাক্তার হিসেবে পরিচয় না দিয়ে প্রভাষক হিসেবে নিউজ করা হলো কেন।

  3. মনোজ কুমার বিশ্বাস, সিনিয়র শিক্ষক(গণিত), কদমবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়, রাজৈর। says:

    মাননীয় প্রধান মন্ত্রী,

    শিক্ষকদের মধ্যে বৈশম্য দূর করে বেসরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে জাতীয় করন করুন।

  4. একেএম এরশাদুজ্জামান টিটো প্রভাষক কিশোরগঞ্জ নীলফামারী says:

    ঐ ডা. শিক্ষক প্রতারকের বিচার হওয়া অত্যাবশ্যক।

  5. হারুন রশিদ আহমদ says:

    বিচার মানে বিয়ে, এখানেই সমাধান!

  6. রাহি says:

    মেয়ে দিলে কোন দোষ নাই,মেয়েটি সব কিছু না জেনে বিয়ে করল কেন?

  7. moniruzzaman;bezpara hayatunnesa dakhil madrasah.koyra; khulna says:

    Sad.

  8. সুমন তালুকদার says:

    এখানে কে দায়ী…..? এক জন নাড়ী হয়ে কেন সুমাইয়া আপনি অবিভাবক ছাড়া বিয়ে করলেন…? আপনার অবিভাবকরা কি আপনাকে প্রাত্রস্থ করতনা..?

  9. গাজী ইমাম বিন নুর says:

    এই শিক্ষকের বিচার হওয়া উচিত।

  10. মোঃ শহিদুল ইসলাম says:

    সংবাদ সম্মেলনে কলেজের সহপাঠি উপস্থিত কেন? তার পিতা-মাতা, ভাই-বোন, নিকট আত্বীয় কোন লোকজন কি আদৌ নাই, সুমাইয়া ও তার পরিবার কোনদিন কি জামাই বাবুকে দাওয়াত ও করেন নি? আজকাল স্মার্টফোনে অনেক অন্তরঙ্গ ছবি সহজেই আপলোড করা যায়;

  11. মো:সাইফুল ইসলাম,অধ্যক্ষ কোহিনৃর হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ,তরগাও,কাপাসিয়া,গাজীপুর। says:

    ডাঃ সাইফুল এর সাজা হওয়া উচিৎ। সুমাইয়া তুমার কিন্তু মা বাবাকে বাদদিয়ে বিয়ে করাটা ঠিক হয়নি।

  12. Momtaz Ahmed Taz says:

    পরিবারিক ভাবে বিয়ে করা উচিত ছিল মেয়েটির

  13. shahid zaman says:

    একা বিয়ে করার সময় মনে হয়নি যে এটা ঠিক করলেন কিনা। এখন এত সমস্যা?

  14. মেজবা says:

    অতিরিক্ত লোভের কারনে এমন হয়।এসব মেয়েরা শুধুমাত্র লোভের কারনে কারও সাথে শুতেও দিধা করেনা।এদের অভিযোজ আমলে নানেয়ই উচিত।কোনভাবেই এদের প্রশায় দেয়া উচিত না।ডাক্তার না হয়ে বেকার ছেলেহলে কি সংবাদ সম্মেলন হত?

  15. md.habibur rahman says:

    দুজনই শাস্তি যোগ্য অপরাধ করেছে।এভাবে অবৈধ সম্পর্ক যখন হয় তখন কি তার প্রতিকার চেয়েছেন না চেষ্টা করেছেন।বেহায়া।।

  16. Md Babul Hossen says:

    আসলে ছেলেটির চেয়ে মেয়েটি এখানে বেশী দোষী। তবে ২ জনেরই শাস্তি হওয়া উচিত

  17. khasru says:

    Mayder onek dos kintu ora dake na ora subidha badi jokon anondo Kore tokon somosa na jokon babohar Kore bad dai tokon mamla ora sujog na dela selera pay ki Kore? Selera to karapi hobe karon she mukto.

  18. অধ্যক্ষ মো. রহমত উল্লাহ্‌ says:

    এভাবে মামলা করে জেল জরিমানা হতে পারে। সুখী দাম্পত্য সংসার হয়না, হবেনা। আরো বড় সমস্যা/বিপদ হবে।

  19. সিকদার অহিদুজ্জামান লেবু, সহকারী অধ্যাপক,নর্থ খুলনা কলেজ,তেরখাদা,খুলনা। says:

    সমাজে এরা দুজনই অপরাধ করেছে এবং দুজনেরই কঠিন শাস্তি হওয়া উচিৎ।

  20. রশিদ says:

    বিষয়টা জটিল। ভিতরে অবশ্যই কোনো রহস্য থাকতে পারে। সুমাইয়ার পারিবারিক অবস্থান কোথায়, কিভাবে সাইফুলের সাথে পরিচয়, এতোটাদিন বিয়ের বিষয়টি গোপন থাকে কি করে। তার মা বাবা কি মেয়ের খবর রাখে না। এখন কিভাবে আপোষ বৈঠকে থাকতে পারে।
    এখানে আমার মতে শুধুমাত্র সাইফুলই নয়, সুমাইয়ার মা বাবার আগে বিচার হওয়া উচিত। তারপর অসৎ সুমাইয়া এবং লম্পট সাইফুল জুতা গলায় দিয়ে একত্রে রাস্তায় ঘুরানো উচিত।
    সব শেষে সুমাইয়ার যে বন্ধু বান্ধবীরা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে সুমাইয়াকে উৎসাহ যুগিয়েছে তাদেরকেও স্যান্ডেলাইজিং করা উচিত।

  21. রশিদ says:

    বিষয়টা জটিল। ভিতরে অবশ্যই কোনো রহস্য থাকতে পারে। সুমাইয়ার পারিবারিক অবস্থান কোথায়, কিভাবে সাইফুলের সাথে পরিচয়, এতোটাদিন বিয়ের বিষয়টি গোপন থাকে কি করে। তার মা বাবা কি মেয়ের খবর রাখে না। এখন কিভাবে আপোষ বৈঠকে থাকতে পারে।
    এখানে আমার মতে শুধুমাত্র সাইফুলই নয়, সুমাইয়ার মা বাবার আগে বিচার হওয়া উচিত। তারপর অসৎ সুমাইয়া এবং লম্পট সাইফুলকে জুতা গলায় দিয়ে একত্রে রাস্তায় ঘুরানো উচিত।
    সব শেষে সুমাইয়ার যে বন্ধু বান্ধবীরা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে সুমাইয়াকে উৎসাহ যুগিয়েছে তাদেরকেও স্যান্ডেলাইজিং করা উচিত।

  22. প্রভাষক মাহবুবুর রহমান বাবুল সহ-সভাপতি নান্দাইল প্রেস says:

    শিক্ষা নামক শব্দটি আজ হেলাফেলা পরিণত হচ্ছে। একজন ডিগ্রি শ্রেণীতে পড়ুয়া একটা মেয়ে একাকী বিয়ের মত জঠিল বিষয়ে সিদ্বান্ত নেবেন তা ভাবা যায়না। কিন্ত আজকাল হরহামেশাই ঘটছে নানা কেলেঙ্কারি। কেন এ রকম ঘটনা ঘটছে,,? সুমাইয়াকে যে অভিভাবক ডিগ্রী পয’ন্ত পড়াশুনা খরচ বহন করছে এ অভিভাবকের নিশ্চয় একটা স্বপ্ন ছিল,,, কিন্ত আজ সব স্বপ্ন ভেংগে চুরমার হয়ে গেল।।। আর ডা,সাহেব নিশ্চয় সজ্ঞানে এ নেক্কার অবিবেচক কাজটি করছেন,, এর বিচার এখন সময়ের দাবী,,,,

  23. মোঃ আলাউদ্দিন সহকারী শিক্ষক পুরকুইল গাউছিয়া হাবিবিয়া আলিম মাদ্রাসা। কসবা -ব্রাম্মনবাড়িয়া। says:

    মেয়েদের আবেগ বেশি।তাই তারা এ রকম সমস্যায় পড়ে।তার মানে এই নয় ডা:সাইফুলের বিচার হবেনা তার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত।

  24. এস এম says:

    ডাক্তার ছেলে পেয়ে সে বেহুঁশ হয়ে গিয়েছিল। তার বাবা মাকে জানানোর প্রয়োজন বোধ করেনি। এরকম লোভ করাটা ঠিক হয়নি। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে উভয়কে শাস্তির আওতায় আনা হোক।

  25. হুমায়ুন কবির says:

    আর কোনো কথাই নয়- ডা. নামের এই কলঙ্ককে ধরে এনে সরাসরি গুলী করে হত্যা৷

  26. শাহীনূর আক্তার,প্রভাষক (উদ্ভিদবিদ্যা) আমতলী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা। says:

    এক্ষেত্রে দোষীর শাস্তি হওয়া উচিৎ। একই সাথে মেয়ে তোমাকে বলছি -এভাবে তুমি ওর স্ত্রীর মর্যাদা পেলেও সংসার এ সুখ পাবেনা। ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নেও।

  27. মোঃ আলাউদ্দিন সহকারী শিক্ষক পুরকুইল গাউছিয়া হাবিবিয়া আলিম মাদ্রাসা। কসবা -ব্রাম্মনবাড়িয়া। says:

    তার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত।

  28. সাহানুর রহমান,প্রভাষক,আর্সিয়া বি.এম.কলেজ হাতিবান্ধা,লালমনিরহাট। says:

    আবেগের বশে এত কিছু করার ফল এগুলোন।তবে শাস্তি ঐ বদমায়েশ পাওয়ার যোগ্য।

  29. motiur rahman says:

    উভয়েই অপরাধী । তবে একজন প্রভাষক হয়ে ছাএীর সঙ্গে গোপনে বিবাহ করা। একএে ভাড়া বাসায় রাএি যাপন করা। নিঃ সন্দেহ বড় অপরাধ । উক্ত ছাএীকে স্তী হিসাবে গ্রহন করা উচিৎ

  30. মো: আব্দুল মুজিব সহকারি শিক্ষক.ধামাইচ বিলচলন উচ্চ বিদ্যালয়.তাড়াশ. সিরাজগঞ্জ। says:

    ok

  31. জুলকার নাইন, কুটি বালিকা উচ্চ বিশনিবার দ্যালয়, কুটি কসবা, ব্রাহ্মণ বাড়িয়া। says:

    কোন মুসলমান নারীর অভিভাবক ছাড়া বিয়ে করা হারাম ।নষ্টা মেয়েরা যা করে এটা তারই ফল ।

  32. জুলকার নাইন, কুটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুটি, কসবা, ব্রাহ্মণ বাড়িয়া। says:

    কোন মুসলমান নারীর অভিভাবক ছাড়া বিয়ে করা হারাম ।নষ্টা মেয়েরা যা করে এটা তারই ফল ।

  33. Rasel, hajigonj. says:

    jodi meyetir ovijhog sotti hoy
    tahole oi protarok daktar ke kothin sasthi deya hok.

  34. জুলকার নাইন, কুটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুটি, কসবা, ব্রাহ্মণ বাড়িয়া। says:

    তোমার জন্য দুঃখ হচ্ছে ।

  35. পরমানন্দ ঢালী says:

    মেয়েটির আর কোনো খদ্দের পাওয়া সম্ভব ছিল না। তাই একটি খদ্দের পেয়েই তার সদ ব্যবহার করেছে।

  36. জাহাঙ্গীর আলম says:

    নারী নির্যাতন মামলার ‘অধিকাংশই মিথ্যা’!
    মিজানুর রহমান খান | ডিসেম্বর ২৯, ২০১৬ | প্রথম আলো।
    দেশের ৭২টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বর্তমানে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৩টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। অথচ এসব ট্রাইব্যুনালের বিচারকেরা ইঙ্গিত দিয়েছেন, এগুলোর ‘অধিকাংশই মিথ্যা মামলা’। এর ৮০ শতাংশ মামলা যৌতুক, ধর্ষণ ও যৌন পীড়নের অভিযোগে দায়ের করা হলেও এর আড়ালে রয়েছে অন্য ধরনের বিরোধ। এসব মামলা তাই আপসে নিষ্পত্তির জন্য আদালত থেকে সরিয়ে সুপ্রিম কোর্টের লিগ্যাল এইডের কাছে পাঠানোর সুপারিশ করেছেন বিচারকেরা।
    এ বিষয়ে মন্তব্য চাওয়া হলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে, আমি আশা করি বিচারেকরা যেসব ক্ষেত্রে অনুধাবন করবেন যে মামলা মিথ্যা, সেসব ক্ষেত্রে তাঁরা আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন।’
    জানতে চাইলে আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সুলতানা কামাল প্রথম আলোকে বলেন, বিচারকদের এই মূল্যায়ন সঠিক। তবে কেন এটা ঘটছে, তার কারণ অনুসন্ধান করে ২০০০ সালের ওই আইনে উপযুক্ত সংশোধনী আনার ওপর তিনি গুরুত্ব দেন। নির্যাতিত নারীর সামনে প্রতিকারের অন্য বিকল্প বন্ধ থাকায় তাঁরা সমস্যায় পড়লে পুলিশ, আত্মীয়স্বজন ও আইনজীবীদের পরামর্শে এ ধরনের মামলা করেন বলে মনে করেন তিনি।
    সুপ্রিম কোর্টে ২৫ ডিসেম্বর জাতীয় বিচার বিভাগীয় সম্মেলনের ঘরোয়া কর্ম-অধিবেশনে আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. ইমান আলীর সভাপতিত্বে জেলা ও দায়রা জজ পদমর্যাদার ৪০টির বেশি ট্রাইব্যুনালের বিচারকেরা এক উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন। এ বিষয়ে প্রস্তুত করা ১০ দফা-সংবলিত একটি প্রাথমিক প্রতিবেদনে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ার কারণ হিসেবে ‘মিথ্যা মামলা’কেই ১ নম্বর সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

  37. Md. Mosharrof Hossain. Urun, Kapasia, Gazipur says:

    It seems to me, something is wrong……

  38. Waesh Ali says:

    অভিযোগকারী ছাত্রীর অভিযোগ যদি সত্যি হয়ে থাকে তাহলে (অবশ্যই সত্যি হবে) ডাক্তার সাইফুলের মতো কিছু কুলাঙ্গার শিক্ষকদের কারণে আজ জাতি গড়ার কারিগর শিক্ষক সমাজের মান-সম্মান ধুলোয় মিশে যাচ্ছে। এ ধরণের কুলাঙ্গার শিক্ষকদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তীর ব্যবস্হা না করলে এ ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনা বন্ধ হবে না।

  39. বিনোদ লাল মৈশান,কোড়েরপাড় আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ , মুরাদনগর, কুমিল্লা। says:

    এক হাতে তালি বাজে না । দুইজনেই সমান দোষী ।একজন উচ্চ শিক্ষিত লোকের কাছে এমন আচরণ অপ্রত্যাশিত ।

  40. Abdul Mannan says:

    যখন আবাসিক হোটেলে একসাথে থাকে, এক বাসায় স্ত্রী পরিচয়ে এনজয় করে তখন কী পতিতার মর্যাদায় ছিলেন?
    মজা করার সময় খবর থাকেনা? এখন সাজা ভোগ করেন।

  41. Principal Ranajit kumar saha. says:

    সুমাইয়া,ডাঃ সাইফুল দুজনই অপরাধ করেছে এবং দুজনেরই কঠিন শাস্তি হওয়া উচিৎ। দুজনেই প্রতারক। Socity hate them. I het them.

  42. খায়রুল ইসলাম says:

    এ ধরনের কিছু লম্পট শিক্ষকদের জন্যই সারাদেশের শিক্ষকদের ভাবমুর্তি নষ্ট হচ্ছে। তিনি আবার ডাক্তার শিক্ষক, এই লম্পটের দৃষ্টান্তমূলক শাস্থি হওয়া দরকার।

  43. শাহিনুর আলম, প্রভাষক,ডিমলা মহিলা মহাবিদ্যালয়,নীলফামারী says:

    প্রকৃত ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত?

  44. MM Kamroul Islam, Rashidpur,Sonaimuri,Noakhali. says:

    ডাক্তারের কাজ শিক্ষক নামে শিরোনাম করা হল কেন ? এতো শিক্ষকদের ছোট করা হল। তাড়াতড়ি সংশোধন করুন।

  45. মোঃ শাহ্‌জাহান আলী প্রামানিক says:

    ওলি ছাড়া বিবাহ হারাম। অতএব উভয়ের যেনার শাস্তি হওয়া দরকার।

  46. মুহাম্মদ শোয়াইব says:

    যেহেতু ডা: সাইফুল আত্মগোপনে সেহেতু ডা: সাইফুল অপরাধী।

  47. মো:সরওয়ার উদ্দীন,সিনিয়র সহ:শিক্ষক(ইংরেজী)বেংগুরা সি:মাদ্রাসা,বোয়ালখালী,চট্টগ্রাম says:

    বিবাহের নিকাহ নামা কোথায়? মোহরানা বা কত? আর ডা: সাহেব ভীরু কেন?সংসার করতে চাই না তো তালাক দিবে,সাথে মেয়েটির মোহরানা দিয়ে দিবে,,এত লুকোচুরি কেন? ওই ডা:রের?

আপনার মন্তব্য দিন