প্ররোচনার অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা - বিবিধ - Dainikshiksha

প্ররোচনার অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি |

‘তোমরা সবাই ভালো থাকবে। আমার জন্য একটুও কাঁদবে না। তাহলে আমি কষ্ট পাব। তোমরা আমাকে অনেক ভালোবাসো। কিন্তু ইন্দ্র (স্কুলশিক্ষক ইন্দ্রজিৎ চন্দ্র দাস) একটুও ভালোবাসে না। আমার এ মৃত্যুর জন্য দায়ী ইন্দ্র।’ পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশে এ চিঠি লিখেছিল নবম শ্রেণির ছাত্রী বর্ণিতা হাওলাদার (১৪)। আত্মহত্যার চেষ্টা করে গুরুতর আহত হয়ে সে প্রায় দুই মাস চিকিৎসাধীন ছিল। গত শনিবার ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার মৃত্যু হয়।

বর্ণিতা ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার দক্ষিণ তারাবুনিয়া গ্রামের বিপুল চন্দ্র হাওলাদারের মেয়ে। সে উপজেলার পশ্চিম চাড়াখালী হাফেজ উদ্দিন মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে পড়ত। বর্ণিতা তার মৃত্যুর জন্য বিদ্যালয়ের শিক্ষক ইন্দ্রজিৎ চন্দ্র দাসকে দায়ী করেছে। এ ঘটনায় গত শনিবার আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে ইন্দ্রজিৎকে আসামি করে রাজাপুর থানায় মামলা করেছেন বিপুল চন্দ্র হাওলাদার। ইন্দ্রজিৎ উপজেলার পশ্চিম ফুলহার গ্রামের রমেশ চন্দ্র দাসের ছেলে।

বর্ণিতার বড় ভাই বিপ্লব হাওলাদার বলেন, ইন্দ্রজিৎ দাসের সঙ্গে বর্ণিতার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি পরিবারের সবাই জানত। সম্প্রতি ইন্দ্রজিৎ অন্যত্র বিয়ের জন্য মেয়ে পছন্দ করেন। এই খবর শুনে বর্ণিতা ৮ জুন সন্ধ্যায় নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। কিন্তু ওড়না খুলে বর্ণিতা নিচে পড়ে গুরুতর আহত হয়। অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে প্রথমে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় চার দিন পর তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। বর্ণিতার শ্বাসনালি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। সে স্বাভাবিকভাবে নিশ্বাস নিতে পারত না। ঢাকায় দুই মাস চিকিৎসার পর অবস্থার তেমন উন্নতি হয়নি। ৪ আগস্ট তাকে বাড়িতে আনা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় শনিবার সকালে বর্ণিতাকে আবার ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে বেলা ১১টায় তার মৃত্যু হয়।

বিপ্লব হাওলাদার অভিযোগ করেন, বর্ণিতার মৃত্যুর জন্য ইন্দ্রজিৎ দায়ী। বর্ণিতা চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ইন্দ্রজিৎ এলাকায় অবস্থান করছিলেন। তার মৃত্যুর পর থেকে ইন্দ্রজিৎ পলাতক রয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে ইন্দ্রজিৎ দাসের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ধরেননি।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস বলেন, বর্ণিতার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গতকাল রোববার ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে।

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) - dainik shiksha এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব - dainik shiksha ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা - dainik shiksha নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website