প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ধামরাই উপেজেলা শাখার নির্বাচন অনুষ্ঠিত - সমিতি সংবাদ - Dainikshiksha

প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ধামরাই উপেজেলা শাখার নির্বাচন অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ধামরাই উপেজেলা শাখার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছ। ধামরাই উপজেলার কালামপুর আতাউর রহমান খান স্কুল এন্ড কলেজে শুক্রবার (১১ মে)এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। 

এ নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন মো. সিরাজুল ইসলাম। 

ধামরাই উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ১৭১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ এ নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১১৮৭ জন। এদের মধ্যে মোট ১০১৮ জন ভোটার কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে ভোট দিয়েছেন।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ধামরাই উপেজেলা শাখার এ নির্বাচনে সভাপতি পদে মো. রবিউল করিম ৭৪৩ ভোট পেয়ে ও সাধারণ সম্পাদক পদে গোলাম কিবরিয়া ৬৫০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। 

শুক্রবার (১১ মে) সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে দুপুর ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত নামাজের বিরতি পর বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহন। 

নির্বাচন পর্যবেক্ষন করার জন্য বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষা অধিকার সুরক্ষা কোরামের আহবায়ক ও দৈনিক শিক্ষা ডট কমের সম্পাদকীয় উপদেষ্টা মো. সিদ্দিকুর রহমান, বাংলাদেশ প্রথমিক শিক্ষক সমিতির সিনিয়র সহ-সম্পাদক মো. আরিফ হোসেন দেওয়ান ও কেন্দ্রিয় সদস্য মো. আওলাদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন। 

এ নির্বাচনে মোট ১৮জন বিভিন্ন পদে প্রতিদন্দিতা করেন। ভোটার ছাড়াও বিভিন্ন পেশার বিপুল সংখ্যক সাধারণ মানুষ উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন উপভোগ করেন।     


এ নির্বাচন সম্পর্কে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষা অধিকার সুরক্ষা কোরামের আহবায়ক ও দৈনিক শিক্ষা ডট কমের সম্পাদকীয় উপদেষ্টা মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ধামরাই প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচন অতিতের বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সকল পর্যায়ের নেতৃত্ব নির্বাচনের ইতিহাসকে স্মরন করিয়ে দেয়। তিনি বলেন, সারা দেশে নির্বাচনই পারে শিক্ষকদের ঐক্য ও সংগ্রামী ইতিহাস অক্ষুন্ন রাখতে। 

বাংলাদেশ প্রথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. আনোয়ারুল ইসলাম তোতা ও সাধারণ সম্পাদক গাজীউল হক চৌধুরী শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য ধামরাই উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষকদের কৃতজ্ঞতা জানান।

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না - dainik shiksha ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনে আবেদনের সময় বাড়ছে না প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল হবে: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ - dainik shiksha পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ করার উদ্যোগ ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে - dainik shiksha ৫ বছরে পৌনে দুই লাখ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা - dainik shiksha প্রাণসহ ৫ কোম্পানির নিষিদ্ধ পণ্য বিক্রি, সাত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা - dainik shiksha কলেজের নবসৃষ্ট পদে এমপিওভুক্তির নির্দেশনা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website